শিরোনাম: যশোরে শ্বাসকষ্টে ওসির স্বামীর মৃত্যু       কুষ্টিয়া পৌর বাজার ইসলামীয়া কলেজ মাঠে স্থানান্তর       মার্কিন বিমানবাহী রণতরীর ২৮৬ নাবিক করোনা আক্রান্ত       ইয়েমেনে সৌদি জোটের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা       বিনামূল্যে ২০ দেশকে করোনা মারার ওষুধ দেবে জাপান       করোনা আতঙ্কে কলারোয়ায় পানির দামে দুধ কিক্রি       সাতক্ষীরায় অহেতুক ঘোরাঘুরি করায় ২৪ ঘণ্টায় ৪০ মামলা       গোপালগ‌ঞ্জে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, ২২ মামলা       দিনাজপুরের খানসামায় আগুন লেগে ২টি পরিবার ছাই        রাজশাহী কারাগারের ৫০০ কয়েদিকে মুক্তির সুপারিশ      
পৃথিবীর বাইরে আসলেই কী প্রাণের অস্তিত্ব আছে?
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 18 February, 2020 at 4:32 PM
পৃথিবীর বাইরে আসলেই কী প্রাণের অস্তিত্ব আছে?আমাদের পৃথিবীর বাইরে প্রাণীর অস্তিত্ব আছে কিনা বা সত্যিই এলিয়েনের অস্তিত্ব আছে কিনা, তা নিয়ে তর্ক-বিতর্ক কখনই শেষ হবার নয়। বিজ্ঞানের অগ্রগতির সাথে সাথে এ বিষয়ে মানুষের কৌতুহল শুধু বেড়েছেই। খবর: বিবিসি বাংলা।
চলতি মাসের শুরুতেই বৈজ্ঞানিক মনিকা গ্রেডি মন্তব্য করেছিলেন যে, তিনি ‘প্রায় নিশ্চিত’ যে জুপিটারের একটি চাঁদ ‘ইউরোপা’য় প্রাণের অস্তিত্ব আছে। তবে সেটি হাঁটাচলা করতে পারার বা কথা বলতে পারা কোনও এলিয়েন না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।
লিভারপুল হোপ ইউনিভার্সিটির গ্রহ ও মহাকাশ বিষয়ক বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মনিকা গ্রেডি বলেন, সেখানে যে ধরণের প্রাণের অস্তিত্ব পাওয়া যাবে, তা ‘অক্টোপাসের বুদ্ধিমত্তার কাছাকাছি প্রাণী’ হতে পারে।
তিনি মনে করেন, ঐ প্রাণীটি ইউরোপার বরফের নিচে থাকতে পারে।
বৃহস্পতি গ্রহের যে ৭৯টি চাঁদের সম্পর্কে জানা গেছে, ইউরোপা তার মধ্যে একটি। এটি ১৫ মাইল পুরু বরফের আস্তরণে ঢাকা।
চলতি বছরের শুরুতে মার্কিন মহাকাশ বিজ্ঞানীদের একটি দল ধারণা প্রকাশ করেন যে তারা যদি মহাকাশে অক্সিজেনের অস্তিত্ব খুঁজে বের করতে পারেন তাহলে প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজে পেতেও সক্ষম হবেন।
যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা পৃথিবীর বাইরে অন্যান্য গ্রহে অক্সিজেন গ্যাস খোঁজার একটি পদ্ধতিও আবিষ্কার করেছেন বলে জানিয়েছেন।
প্রাণের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে মঙ্গলগ্রহে!
অধ্যাপক গ্রেডি মনে করেন, মঙ্গলগ্রহে প্রাণের সন্ধান পাওয়া গেলেও সেখানে খুব উন্নত বুদ্ধির কোনও প্রাণী পাওয়া যাওয়ার সম্ভাবনা কম।
তিনি বলেন, মঙ্গলগ্রহে যদি প্রাণের সন্ধান পাওয়াও যায়, সেটি খুবই ক্ষুদ্র আকৃতির হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যেমন ধরুন, ব্যাকটেরিয়ার মত।
মহাকাশের বার্তা!
গত সপ্তাহে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা মহাকাশ থেকে প্রতি ১৬ দিন অন্তর পাঠানো বার্তা শনাক্ত করতে সক্ষম হন।
এ ধরণের সিগন্যাল বা বার্তা পাওয়া খুব একটা অস্বাভাবিক নয়, তবে এর আগে আসা এরকম বার্তা একেবারেই এলোমেলোভাবে এসেছে। এরকম ধারাবাহিক বিরতিতে এর আগে সিগন্যাল পাওয়া যায়নি।
বার্তাগুলো কোথা থেকে আসছে সে বিষয়ে এই মুহূর্তে তারা নিশ্চিত না হলেও এগুলো ব্ল্যাক হোল বা বড় কোনও নক্ষত্র থেকে আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
ধারণা করা হচ্ছে, সিগন্যালটি মাঝারি আকারের কোনও ছায়াপথ থেকে আসছে যেটি ৫০ কোটি আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত হতে পারে।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft