gramerkagoj
শুক্রবার ● ১৪ জুন ২০২৪ ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
লোকসানের বোঝা নিয়েই ঢাকা ছুটলো ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ জুন , ২০২৪, ০৩:১০:০০ পিএম
হাফিজুর রহমান পান্না, রাজশাহী ব্যুরো:
GK_2024-06-11_66681482be60b.jpg

আম পরিবহনের জন্য পঞ্চমবারের মতো চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে ঢাকা রুটে আবারো চালু হলো ‘ম্যাংগো স্পেশাল’ ট্রেন। গেল কয়েক বছরের লোকসানের বোঝা মাথায় নিয়েই সোমবার (১০ জুন) বিকেল ৪টায় চাঁপাইনাবগঞ্জের রহনপুর স্টেশন থেকে ১ হাজার ২০ কেজি আম নিয়ে ট্রেনটি যাত্রা করে। পরে সন্ধ্যা ৬টায় চাঁপাইনবাগঞ্জ স্টেশনে ৭৮৫ কেজি আম তুলে আনুষ্ঠানিকভাবে এটির উদ্বোধন করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের এমপি মো: আব্দুল ওদুদ। ট্রেনটি পদ্মা সেতু হয়ে রাজধানী ঢাকায় পৌঁছাবে সোমবার দিবাগত রাত সোয়া ২টায়।
এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক আহম্মেদ হোসেন মাসুদ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোছা. তাছমিনা খাতুন, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ্রপ্রধান প্রকৌশলী আসাদুল হক ও বিভাগীয় (পাকশী) ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ।
এদিকে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রে জানা গেছে, ট্রেনটি গত চার বছরে আয়ের চেয়ে ব্যয় করেছে দ্বিগুণেরও বেশি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত চার মৌসুমে লোকসানের পরিমাণ প্রায় দুই কোটি টাকা।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে, নিরাপদে স্বল্প সময় ও খরচে আম পরিবহনের লক্ষ্যে লোকসান মাথায় নিয়েই এই ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’ চালু হলো। ট্রেনটিতে ছয়টি লাগেজ ভ্যানের মাধ্যমে আম পরিবহন করা যাবে ২৮ দশমিক ৮৩ টন। যাত্রা পথে রহনপুর স্টেশন থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী, আব্দুলপুর, ঈশ্বরদী, পোড়াদহ, রাজবাড়ী, ফরিদপুর ও ভাঙ্গাসহ মোট ১৫টি স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেবে ট্রেনটি।
সূত্রটি আরও জানায়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন হয়ে ঢাকা পর্যন্ত প্রতি কেজি আম পরিবহনে ভাড়া লাগবে ১ টাকা ৪৭ পয়সা, রাজশাহী থেকে ১ টাকা ৪৩, পোড়াদহ থেকে ১ টাকা ১৯, রাজবাড়ি থেকে ১ টাকা ৭, ফরিদপুর থেকে ১ টাকা ১ এবং ভাঙ্গা থেকে ৯৮ পয়সা। ব্যবসায়ীরা স্বল্প সময় ও স্বল্প খরচে নিরাপদে আম পরিবহন করলেও লোকসান গুনছে রেলওয়ে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্যানুযায়ী, ২০২০ সালে ৪৭ দিনে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনে আম পরিবহন হয় ১১ লাখ ৯৯ হাজার ৫৯ কেজি। এতে আয় হয় ১৩ লাখ ৩৭ হাজার ৫৩৬ টাকা, আর ব্যয় হয় ৫৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। ২০২১ সালে ৪৯ দিনে ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেনে আম পরিবহন হয় ২২ লাখ ৯৯ হাজার ৯২০ কেজি। এতে আয় হয় ২৬ লাখ ৩০ হাজার ৯২৮ টাকা আর ব্যয় হয়েছে ৫৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। ২০২২ সালে ম্যাঙ্গো স্পেশাল ট্রেন আম পরিবহন করেছে ৭ দিন। এ সময় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৭৭৮ কেজি আম পরিবহন হয়। এতে আয় হয় ২ লাখ ১২ হাজার ১৭৪ টাকা আর ব্যয় হয়েছে ১২ লাখ ৪০ টাকা।
সবশেষ ২০২৩ সালে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনে আম পরিবহন হয়েছে ১৮ দিন। এসময় ১২ লাখ ৭ হাজার কেজি আম পরিবহন হয়। এতে আয় হয়েছে ৪ লাখ ৪৮ হাজার ৫০২ টাকা। আর ব্যয় ১৯ লাখ ৬২ হাজার টাকা। চার বছরে রেল আয় করেছে ৪৬ লাখ ২৯ হাজার ১৪০। এ সময় রেল পরিচালনা করতে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৪৭ লাখ ২২ হাজার টাকা। ফলে আম পরিবহন করে রেল লোকসান গুনেছে ১ কোটি ৯২ হাজার ৮৬০ টাকা।
পশ্চিম রেলওয়ের মহাব্যাবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, প্রতি বছরের মতো এবারও রহনপুর, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে ঢাকার উদ্দেশে আম নিয়ে ছুটবে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন। সন্ধ্যা ৬টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করলো ট্রেনটি।
তিনি বলেন, গত চার বছরে রেল আয় করেছে ৪৬ লাখ ২৯ হাজার ১৪০ টাকা। এসময়ে রেল পরিচালনা করতে ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ৪৭ লাখ ২২ হাজার টাকা। ফলে আম পরিবহন করে রেল লোকসান গুনেছে ১ কোটি ৯২ হাজার ৮৬০ টাকা। তবে এত পরিমাণ আর্থিক লোকসান সত্ত্বেও সোমবার (১০ জুন) থেকে এই স্পেশাল ট্রেন আবারো যাত্রা শুরু করল।
আরও বলেন, লোকসান সত্বেও স্থানীয় আমচাষি, ব্যবসায়ী ও খামারিদের সুবিধার্থে ট্রেনটি চালু করা হয়েছে। তবে এ বছর কেমন সাড়া পড়বে এখনো বোঝা যাচ্ছে না। বিকেল ৫টা পর্যন্ত বুকিং নেওয়া হবে। তখন সাড়া বোঝা যাবে।

আরও খবর

🔝