gramerkagoj
শুক্রবার ● ১৪ জুন ২০২৪ ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে গাজায় যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব পাস
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ জুন , ২০২৪, ১০:৪১:০০ এ এম , আপডেট : শুক্রবার, ১৪ জুন , ২০২৪, ১১:২১:৫০ এ এম
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
GK_2024-06-11_6667d11a493de.jpg

অবশেষে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দেওয়া ফিলিস্তিনের গাজায় যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব পাস হয়েছে। ১৫ সদস্যের মধ্যে প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়েছে ১৪টি। এই প্রস্তাবে ভোট দেওয়া থেকে শুধু বিরত ছিল রাশিয়া। খবর বিবিসির।
গত ৩১ মে গাজায় তিন ধাপে যুদ্ধবিরতি কার্যকরের প্রস্তাবটি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। সোমবার (১০ জুন) প্রস্তাবটির ওপর নিরাপত্তা পরিষদে ভোটাভুটি হয়।
ইসরায়েল ও হামাসকে অবিলম্বে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের দূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড। যুদ্ধবিরতির এই প্রস্তাবকে নতুন সুযোগ বলেও অভিহিত করে বলেন, ‘আজ আমরা শান্তির জন্য ভোটাভুটি করলাম।’
নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব নিয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি ইসরায়েল। তবে এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। এক বিবৃতিতে যুদ্ধবিরতির শর্তগুলো কীভাবে বাস্তবায়ন করা যায়, সে বিষয়ে মধ্যস্থতাকারীদের সঙ্গে কাজ করার সদিচ্ছার কথা জানিয়েছে হামাস।
এর আগে গত ২৫ মার্চ গাজায় যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব পাস হয়। ওই প্রস্তাবের পক্ষে ১৪ সদস্য ভোট দিয়েছিল। তখন ভোটদানে বিরত ছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে ওই প্রস্তাব মানেনি ইসরায়েল।
গত বছর ৭ অক্টোবর হামাস অতর্কিতে দক্ষিণ ইসরায়েলে হামলা করলে যুদ্ধের শুরু হয়। হামলায় প্রায় ১,২০০ ইসরাইলি নিহত হয়, যাদের বেশিভাগ বেসামরিক। এছাড়া ২৫০ জনকে পণবন্দী করে গাজায় নিয়ে যাওয়া হয়। পণবন্দীদের ১২০ জন এখনো হামাসের হাতে রয়েছে, আর ৪৩ জন মারা গেছেন বলে ধারণা করা হয়।
গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, ইসরাইলের সামরিক অভিযানে ৩৬ হাজার ৭০০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে, যাদের বেশিভাগ নারী ও শিশু। আহত হয়েছে ৮৩ হাজারের বেশি।

আরও খবর

🔝