gramerkagoj
সোমবার ● ২৭ মে ২০২৪ ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
পাঁচ বছর পালিয়ে থাকার পর,পাঁচ বছরের সাজাপ্রাপ্ত নারী আসামী গ্রেপ্তার
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ মে , ২০২৪, ০৬:২৯:০০ পিএম
এস আর এ হান্নান, মহম্মদপুর:
GK_2024-05-15_6644ab8f373c6.jpg

পাঁচ বছরের দন্ডপ্রাপ্ত এক নারী আসামী পাঁচ বছর পালিয়ে থাকার পর অবশেষে ধরা পড়েছে। সোনালী সাখাওয়াত (৩৫) নামের ওই নারী আসামীকে মঙ্গলবার (১৪ মে) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহম্মদপুর থানার এসআই রিপনসহ পুলিশের একটি দল তাকে মাগুরা জেলা শহরের পারনান্দুয়ালী এলাকার ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে। তিনি মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের পানিঘাটা গ্রামের মেয়ে।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বোরহান উল ইসলাম জানান, আমেরিকায় পাঠানোর কথা বলে ঢাকার আশুলিয়ার কাইচা বাড়ি এলাকার আব্দুল আউয়ালের ছেলে আব্দুল মালেক নামের এক ব্যক্তির নিকট থেকে মাগুরা মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের পানিঘাটা গ্রামের ওয়াদুদ সাখাওয়াতের মেয়ে সোনালী সাখাওয়াত ১৬ লাখ টাকা নেন। কিন্তু দীর্ঘদিনেও ওই ব্যক্তিকে আমেরিকা না পাঠিয়ে লাপাত্তা হওয়ায় ঢাকার আশুলিয়ার কাইচা বাড়ি এলাকার আব্দুল আউয়ালের ছেলে আব্দুল মালেক বাদি হয়ে ২০১২ সালে আশুলিয়া থানায় একটি প্রতারণা মামলা দায়ের করেন।

ঢাকার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২০১৯ সালে সোনালী সাখাওয়াতকে প্রতারণার দায়ে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের বিনাশ্রম দন্ডাদেশ দেন। এরপর থেকে আসামী সোনালী সাখাওয়াত পলাতক ছিলেন। পাঁচ বছর পালিয়ে থাকার পরও রক্ষা হলোনা ওই নারী আসামীর। মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার হন তিনি। বুধবার সকালে তাকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

আরও খবর

🔝