gramerkagoj
সোমবার ● ২৭ মে ২০২৪ ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
gramerkagoj
রাবির ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ৪ নেতা বহিষ্কার
প্রকাশ : বুধবার, ১৫ মে , ২০২৪, ০২:৪২:০০ পিএম
হাফিজুর রহমান পান্না, রাজশাহী ব্যুরো:
GK_2024-05-15_66447280833a9.jpg

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে রাতে (রাবি) ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় চার নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম পান্থ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বহিষ্কৃত চার নেতা হলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শাহিনুল ইসলাম সরকার (ডন), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিয়াজ মোর্শেদ, আশিকুর রহমান (অপু) এবং সাংগঠনিক সম্পাদক কাবিরুজ্জামান রুহুল।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংগঠনের শৃঙ্খলা ও মর্যাদা পরিপন্থী কার্যকলাপে লিপ্ত হওয়ার অভিযোগে কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক রাবি শাখা ছাত্রলীগের চার নেতাকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হলো। তাদের বিরুদ্ধে কেন পরবর্তীতে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না তার লিখিত জবাব উল্লিখিত ব্যক্তিদের আগামী সাত দিনের মধ্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দপ্তর সেলে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
এ বিষয়ে বহিষ্কৃত নেতা শাহিনুল ইসলাম সরকার (ডন) বলেন, আমাদের কি দোষ ছিল? কী কারণে আমাদের বহিষ্কার করা হলো, তা আমরা কিছুই জানি না। আমাদের ৭ দিনের সময় দেওয়া হয়েছে কারণ দর্শানোর জন্য।
আশিকুর রহমান (অপু) বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে হঠাৎ করে কেন বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলো, তা আমি জানি না সস্প্রতি এমন কোনো ঘটনার সঙ্গেও আমি সম্পৃক্ত না যেটা কোনো গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। আমি মনে করি এটা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমাদের নামে মিথ্যা, বানোয়াট তথ্য দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কাছে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান (বাবু) বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের হোসেন শহিদ সোহরাওয়ার্দী হলে গত তিন-চার দিন ধরে বহিরাগত ও স্থানীয় সন্ত্রাসীদের সঙ্গে নিয়ে যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছিল, শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট করেছিল, তাদের কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ বহিষ্কার করেছে। এর মাধ্যমে আবারও প্রমাণিত হলো ছাত্রলীগে অন্যায়কারীর জায়গা নেই।
প্রসঙ্গত, গত শনিবার (১১ মে) রাত ১১টা থেকে রাত আড়াইটা পর্যন্ত ছাত্রলীগের গ্রুপে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপ, দুটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও ছয়টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সাতজন আহত হয়।

আরও খবর

🔝