gramerkagoj
বৃহস্পতিবার ● ২৫ এপ্রিল ২০২৪ ১২ বৈশাখ ১৪৩১
gramerkagoj
সুুম্মান না লোক দেকানো; কোনডা জরুলী!
প্রকাশ : শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি , ২০২৪, ১০:০৩:০০ পিএম
:
GK_2024-02-24_65da13e67c47f.jpg

মাজেমদ্দি মনে করি কিচু বিষায় আষায় নিয়ে কোনটোয় কিচু কবোও না, লেকপোও না। কিন্তুক তালবায়না দেকলি জানের মদ্দি কাইন্দে দেয়। না কইয়ে থির থাকতি পারিনে। পেত্তেক সুমায় এট্টা জিনুস আমার খুব খারাপ লাগে। বিচি ভাইঙ্গে কলি বুজদি সবার যুইত হবেনে।
জাতীয় ও বিশেষ দিবসে আমরা শ্রদ্দা নিবেদন করি। যারা ঐ দিনির সাতে জড়ায় আছেন তাইগের স্মৃতির পোতি সুম্মান দেকানোর জন্যি ফুল দিয়া, আলোচুনা করাসহ নানান কিচু করা হয়। অইন্য সব গুলো বাদ দিয়ে যদি ২১ ফেব্রুয়ারি, ২৬ মার্চ আর ১৬ ডিসেম্বরডাও ধরি যে তিনডে দিন আমাগের জাতীয় জীবনে সব্বোচ্চ গুরুত্বপূন্ন দিন। যাইগের জীবন বিনিময় কইরে এই দিন গুলো আমরা পাইছি তাইগের স্মরন আর শোদ্দায় ফুল দিয়া হয়। সেই ফুল দিয়া নিয়ে হ্যানো কোন জাগা নেই আগে দিয়া নিয়া পাল্লাপাল্লি, ঠেলাঠেলি, ঢেক্কাঢেক্কি হচ্চেনা। ইডা যেন নিয়মে দাড়ায় গেচে।
সবাই আইচি শোদ্দা জানাতি স্যানে আগে না দিলি সব খ্যায় হইয়ে যাবে ইরাম করার তো কারন দেকিনি। ফুল আগে দিয়া নিয়ে কতক জাগায় দাবড়া দাবড়িত্তে মারামারি পন্তি হইয়ে যায়। ইরাম খাইন বাদে নিজির চোকি পোশাসনরেও দাবড় খাতি দেকিচি। পিটি বাড়ি পড়লি তকন ভ্যালা ফুল আর শোদ্দা। সব ভাইঙ্গে চুরে জুতো পায় দিয়ে শহীদ বেদিতে মলন মইলে কিডা কার আগে পলাবে তাই নিয়ে ব্যস্তর। আমি ভাইবে পায়নে এর মদ্দি শোদ্দা ভালবাসা আর চেতনা কনে থাকে। আমরা যে ফুল শহীদগের পোতি সুম্মান দেকায়ে দিতি যায় সিডা বড়, না বেদির ওপর চইড়ে ফটক তুলা বড়। ফটক তুলার কচনে একন ফুল দিয়ায় দায়। একবার যারা বেদিতি চইড়ে বসতে পারে ব্যস আর কিডা কনে আচে সে দিকি কারো খিয়াল দিয়ার সুমায় কনে। এ নিয়েও আইজকাল কাজাকাজি হচ্চে জাগায় জাগায়।
এই সবের চাইতেও আমার মন খারাপ হয় আরাট্টা জিনুস দেকলি। আমরা যাগের জন্যি হ্যাতো পথ হাইটে যায় নিয়ে যায়, সেই ফুল কট্টুক সুমায় লাস্টিং করে। দিতি আর থুতি যট্টুক সুমায়। চোকির পলকে কিডা কনতে আইসে ফুল স্যানতে নিয়ে চইলে যাবে তার কোন হদিস পাওয়া যায় না। অনুষ্টান চলার মদ্দিও ফুল ছিনোয় নিয়ে চইলে যায়। আর ফুল দিয়া অনুষ্টান শেষ হওয়ার দু’মিনিট পরতো শহীদ বেদি মনে ধুলো ময়লার আস্তাকুড়।
এই ফুলগুলো যদি দিনির দিনও টিকোয় রাকা যাইতো, তালি কত সুন্দর দেকা যাইতো। যাইগের এ সব দেকার কতা তাইগের কি এ সব ককনো মনেও হয় না?
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা

আরও খবর

🔝