gramerkagoj
রবিবার ● ২১ এপ্রিল ২০২৪ ৭ বৈশাখ ১৪৩১
gramerkagoj
মাতৃভাষা দিবস অনুষ্ঠানে নেই শিক্ষকরা, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির ক্ষোভ
প্রকাশ : বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি , ২০২৪, ০২:৪৫:০০ পিএম , আপডেট : মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল , ২০২৪, ০৪:৫২:৪২ পিএম
এস.এম.রকি,খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
GK_2024-02-21_65d5adbaba8d7.jpg

মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২৪ উপলক্ষে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের অনুপস্থিতি নিয়ে ক্ষোভ ঝাড়লেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম।
বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারী) সকালে উপজেলা পরিষদ হলরুমে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি এই বক্তব্য দেন।
এই সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, ২১ ফেব্রুয়ারী বাঙালিদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ দিন। এই দিনটি ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হয় কিন্তু আজকের প্রভাতফেরী ও শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণসহ সকল আয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা তাদের শিক্ষার্থীদের উপর দায়িত্ব দিয়ে উধাও।
বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি বলেন, দয়াকরে যেসকল শিক্ষক উপস্থিত আছেন একটু পরিচয় দিবেন। এই সময়ে অনেক প্রতিষ্ঠানের অনুপস্থিতি অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলের নজরে আসে।
তিনি আরো বলেন, উপজেলা পরিষদে কর্মরত কর্মকর্তারা যদি রাত জেগে এখানে থেকে ২১ ফেব্রুয়ারী পালন করতে পারে তাহলে শিক্ষকরা বাড়িতে থেকে ২১ শে ফেব্রুয়ারি পালনে সমস্যা কোথায়? এদের বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে প্রশাসন ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার প্রতি আহ্বান জানান এই নেতা।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির এমন বক্তব্যে পুরো হলরুমে নিস্তব্ধ হয়ে যায়। বক্তব্য শেষে পুরো রুমে হাততালি।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-২০২৪ পালন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত প্রস্তুতি সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রভাতফেরীতে গ্রীণ লিফ কিন্ডারগার্টেন, খানসামা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খানসামা মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, খানসামা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, খানসামা দ্বিমুখী ফাযিল মাদ্রাসা, খানসামা মহিলা কলেজ, খানসামা ডিগ্রি কলেজ ও হোসেনপুর ডিগ্রি কলেজের নাম উল্লেখ করে শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিত থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়। কিন্তু এই নির্দেশনা উপেক্ষা করে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী উপস্থিতি দেখা গেছে অন্যদিকে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের কোন উপস্থিতিই সরেজমিনে দেখা যায়নি।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: তাজ উদ্দিন বলেন, নির্দেশনা উপেক্ষা করে কোন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী উপস্থিতিতে গাফিলতি থাকলে বিধি মোতাবেক তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও খবর

🔝