আজ রবিবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৫ জুন ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়নে বিশ্বাসী : প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী       ফকিরহাট ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিশেষ বরাদ্দের সরকারি অনুদান সামগ্রী বিতরণ       ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়ে শেখ হাসিনা দেশকে আলোকিত করছেন : এমপি মনির        পৃথিবী হলো পরকালের শস্য ক্ষেত্র : শেখ আফিল উদ্দিন এমপি        যশোরে বিভিন্ন সংগঠনের ঈদ বস্ত্র ও সেমাই-চিনি বিতরণ        গুদামে চাল নেই তাই ঈদে গম দেয়া হচ্ছে দরিদ্রদের       নড়াইলের পেড়লী গ্রামে ঈদ আনন্দ নেই : বাড়ি ছাড়া পুরুষেরা       বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরে ঈদের ছুটি ৪ দিন       আমাকে টেক্কা দেবে, এমন নায়িকা বাংলাদেশে নেই : নুসরাত ফারিয়া        চালকের হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা জানিয়ে দেবে গাড়ি      
কেশবপুরে দোকানে ইয়াবা রেখে ব্যবসায়ীকে ফাঁসাতে যেয়ে এএসআই ক্লোজড
স্টাফ রিপোর্টার, কেশবপুর (যশোর) ব্যুরো :
Published : Tuesday, 27 December, 2016 at 12:57 AM
কেশবপুরে দোকানে ইয়াবা রেখে ব্যবসায়ীকে ফাঁসাতে যেয়ে এএসআই ক্লোজডকেশবপুরের জাহানপুর বাজারে রোববার রাতে একটি মুদি দোকানে ইয়াবা রেখে এক ব্যবসায়ীকে ফাঁসানোর চেষ্টা করায় এক এএসআইকে ক্লোজ করা হয়েছে। ইয়াবা উদ্ধারের নামে ভালুকঘর পুলিশ ক্যাম্পের ৩ পুলিশ ওই দোকান থেকে হালখাতার ৮০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়ায় জনতা তাদেরকে মারপিট করে একটি ঘরে আটকে রাখে। খবর পেয়ে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন।
সাতবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সামসুদ্দিন দফাদার জানান, জাহানপুর বাজারের মুদি ব্যবসায়ী আব্দুল লতিফের মেহেদী স্টোরে রোববার রাতে হালখাতা চলছিল। রাত ৮ টার দিকে ভালুকঘর পুলিশ ক্যাম্পের আইসি এএসআই মিজানুর রহমান, কনস্টেবল ইসমাইল ও ব্যাটালিয়ান জোবায়ের ওই দোকানে ঢুকে ওই ব্যবসায়ীকে জানান এ দোকানে ইয়াবা ট্যাবলেট রয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, তারা নিজেদের কাছে থাকা ইয়াবা বের করে দোকানের ক্যাশ বাক্স তল্লাশির নামে হালখাতায় আদায়কৃত ৮০ হাজার টাকা নিয়ে নেয়। এ সময় তারা দোকান মালিক আব্দুল লতিফকে আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বাজার কমিটিসহ স্থানীয় লোকজন তাদের আটকে দেয়। এরপর জনগণ তাদের মারপিট করে একটি ঘরে আটকে রাখে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকার সহ¯্রাধিক মানুষ একত্রিত হয়ে অধিক রাত পর্যন্ত বাজার ঘেরাও করে রাখেন। সংবাদ পেয়ে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই দারোগার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান এবং দোকান থেকে নেয়া টাকা দোকান মালিককে ফিরিয়ে দেন।
এ ব্যাপারে কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, একজন সোর্স ফোন করে ওই দোকানে ইয়াবা আছে বলে ফাঁড়িতে খরব দেয়। তারা ওই ইয়াবা উদ্ধার করতে গিয়ে জনরোষে পড়েন। এএসআই মিজানকে যশোর পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়েছে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft