আজ শনিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: এবার বিচারকের আসনে মালাইকা আরোরা       চোখ ও ঠোট দেখে চিনতে পারবেন সঙ্গীকে       শরীর সুস্থ রাখতে রোজ খান আমড়া       বিএনপি শুধু সমালোচনাই করছে: কাদের       ‘বিকারগ্রস্ত’ ট্রাম্পকে চড়া       ক্ষমা চাইলেন নেইমার       আখাউড়া যেন নিরাপদে লাশ ফেলার এক স্বর্গ       সরকার পঁচা চাল আমদানি করছে : রিজভী       ভারতের ছোঁড়া গুলিতে পাকিস্তানের ৬ বেসামরিক নাগরিক নিহত       নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী ব্যস্ততম দিন অতিবাহিত করছেন      
খালেদার দুর্নীতির দু’মামলায় পরবর্তী শুনানি ২১ সেপ্টেম্বর
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 14 September, 2017 at 2:59 PM
খালেদার দুর্নীতির দু’মামলায় পরবর্তী শুনানি ২১ সেপ্টেম্বরবিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দুর্নীতির দুই মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ২১ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা ‍নুর আহমেদকে আংশিক জেরা করা হয়।
আংশিক জেরা শেষে বাকি জেরার জন্য সময় চান খালেদা জিয়ার পক্ষে জেরাকারী অ্যাভোকেট আমিনুল ইসলাম।
রাজধানীর বকশিবাজারে কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামানের আদালত আবেদন মঞ্জুর করে বাকি জেরার জন্য আগামী ২১ সেপ্টেম্বর পরবর্তী দিন ধার্য করেন।
এর আগে খালেদা জিয়া অসুস্থ মর্মে তিন সপ্তাহ সময়ের আবেদন করেন অ্যাডভোকেট ছানাউল্লাহ মিয়া ও জিয়াউদ্দিন আহমেদ।
চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় মোট আসামি চারজন। খালেদা ছাড়া অভিযুক্ত অপর তিন আসামি হলেন খালেদার তৎকালীন রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছ চৌধুরীর তৎকালীন একান্ত সচিব বর্তমানে বিআইডব্লিউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান। হারিছ চৌধুরী মামলার শুরু থেকেই পলাতক।
অন্যদিকে অরফানেজ মামলায় খালেদা জিয়াসহ আসামি মোট ছয়জন। অন্য পাঁচ আসামি হলেন- বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদার বড় ছেলে তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, সাবেক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।
আসামিদের মধ্যে ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমান মামলার শুরু থেকেই পলাতক। বিদেশে থাকা তারেক রহমানকেও পলাতক দেখিয়ে মামলার বিচারিক কার্যক্রম চলছে। বাকিরা জামিনে রয়েছেন।
২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করা হয়। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।
অন্যদিকে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা দায়ের করে দুদক। এতিমদের সহায়তা করার উদ্দেশে একটি বিদেশি ব্যাংক থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ এনে এ মামলা দায়ের করা হয়।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft