আজ সোমবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৪ জুলাই ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: যশোর বোর্ডে পাশের হার কমেছে ১৩ ভাগ        যশোরেও প্রথমবারের মত জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস উদযাপিত       যশোরের বিভিন্ন কলেজের ঈর্ষণীয় ফলাফল অর্জন       ডুমুরিয়ার সেচ্ছাশ্রমে চলছে পলি অপসারণের কাজ        জনপ্রশাসন পদক প্রাপ্ত নাজমুল আহসান ও সাবিনা ইয়াসমিনকে ফুলেল শুভেচ্ছা        অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে কৃত্রিম ফ্লেবার দিয়ে তৈরি হচ্ছে বেকারী সামগ্রী        তলিয়ে গেছে রাজগঞ্জ মোবারকপুর মহিলা আলীম মাদ্রাসা        এমপি না আসায় বৃক্ষমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আসেননি চেয়ারম্যানরাও       লোহাগড়ায় দু‘পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০       যশোর বোর্ডের ১০ জেলায় শীর্ষে খুলনা       
চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাব : মশা নিধন করুন
Published : Saturday, 20 May, 2017 at 12:19 AM
রাজধানী ঢাকায় গত দুইমাসে চিকুনগুনিয়া ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এ নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে লোকজনের মধ্যে। যদিও স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন চিকনগুনিয়া ও ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাবের কোনো আশঙ্কা নেই। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে চিকনগুনিয়া রোগ বিস্তাররোধে করণীয় সংক্রান্ত এক সভায় সভাপতিত্বকালে তিনি একথা জানান। চিকনগুনিয়া মরণঘাতী কোনো রোগ নয় উল্লেখ করে এ নিয়ে অহেতুক ভীত বা আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন থাকার জন্য দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। সেইসঙ্গে এ দুই জ্বরের ভাইরাস প্রতিরোধে গণসচেতনতা কার্যক্রম জোরদার করার আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রী।  
চিকুনগুনিয়া মশাবাহিত একটি ভাইরাসের নাম। ডেঙ্গু রোগের ভাইরাস বহনকারী মশাই চিকুনগুনিয়া ভাইরাস বহন করে। গ্রামাঞ্চলে অনেকে একে ‘ল্যাংড়া জ্বর’ বলে। এ রোগের লক্ষণ হচ্ছে প্রথমদিন থেকেই রোগীর অনেক বেশি তাপমাত্রায় জ্বর ওঠে। কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসে। প্রায়ই তা একশ’ চার বা পাঁচ ডিগ্রি ফারেনহাইট তাপমাত্রায় উঠে যায়। একইসঙ্গে প্রচ- মাথা ব্যথা, শরীর ব্যথা, বিশেষ করে হাড়ের জয়েন্টে ব্যথা হয়। জ্বর ভালো হলেও অনেকদিন ধরে ভোগান্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এ রোগের কোনো ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। তাই প্রতিকারের আগে প্রতিরোধ গড়ে তোলা জরুরি। সেজন্য আমাদের সচেতন হতে হবে।   
যেহেতু মশার কারণে রোগটি ছড়ায়, তাই মশার কামড় থেকে বাঁচার ব্যবস্থা করতে হবে। এ জন্য ঘরের বারান্দা, আঙিনা বা ছাদ পরিষ্কার রাখতে হবে। এসি বা ফ্রিজের নিচেও যেন পানি জমে না থাকে। মশাটি দিনের বেলায় কামড়ায়, তাই দিনে কেউ ঘুমালে অবশ্যই মশারি ব্যবহার করতে হবে। মশা মারার জন্য স্প্রে ব্যবহার করা যেতে পারে। বাচ্চাদের হাফপ্যান্টের বদলে ফুলপ্যান্ট পরাতে হবে। সবার খেয়াল রাখতে হবে যেন মশা ডিম পাড়ার সুযোগ না পায়। আর জ্বরাক্রান্ত রোগীকে বেশি মাত্রায় পানি, কিংবা শরবত খাওয়ানো যেতে পারে।
চিকুনগুনিয়ার প্রকোপ থেকে বাঁচতে হলে মশক নিধনে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনকে আরো সক্রিয় হতে হবে যাতে এডিস মশার সংখ্যা বৃদ্ধি না পায়। এ লক্ষ্যে সরকার, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়, গণমাধ্যমসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। মানুষজনকে সচেতন করে তুলতে হবে। মনে রাখতে হবে প্রতিষেধকের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft