আজ বুধবার, ১১ শ্রাবণ ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৬ জুলাই ২০১৭ খ্রিস্টাব্দ
শিরোনাম: পানি নামার প্রায় সব পথ বন্ধ!       ক্ষত কমেনি পরিবারে, খুনীদের প্রতি ঘৃণা, পূষ্পার্ঘ্য অর্পণ       তদন্তেই সীমাবদ্ধ যমেক হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরি যাওয়ার ঘটনা        যশোর এমএম কলেজে দু’মাস ব্যাপি আইসিটি প্রশিক্ষণ শুরু       দাকোপে কৃষকের জমিতে জলবদ্ধতায় ব্যাপক ক্ষতির আশংকা       মোরেলগঞ্জে ভেসে গেছে ৫ শ’ ঘের নদীগর্ভে এক কিলোমিটার পাকা রাস্তা        ক্ষতিকর ক্যামিকেল ও রং দিয়ে যশোরে তৈরি হচ্ছে ব্রান্ডেড জর্দা        বারান্দিপাড়ায় আনন্দ অনুষ্ঠানে হামলা চক্রের হোতা আল আমিন পাকড়াও       বেনাপোলে লটারী জুয়ায় প্রতিদিন ৩০ লাখ টাকা হাতবদল        মহেশপুরে দালালের খপ্পরে পড়ে সৌদি আরবে পাচার হয়ে যাওয়া চামেলীর বাঁচার আকুতি       
বাঙালী সংস্কৃতির মূলধারাকে বেগবান করার প্রত্যয়ে
শেষ হলো যশোরে দু’দিনব্যাপি লোকসংস্কৃতি উৎসব
স্বপ্না দেবনাথ :
Published : Friday, 21 April, 2017 at 12:06 AM

শেষ হলো যশোরে দু’দিনব্যাপি লোকসংস্কৃতি উৎসব যশোরে অনুষ্ঠিত দুদিনব্যাপি লোকসংস্কৃতি উৎসব সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে। আত্মনির্ভর দর্শনে নিজেদের জীবনকে আরো সৌকর্যপূর্ণ করার লক্ষ্যে লোক সংস্কৃতির ধারাকে বাঙালী সংস্কৃতির মূলধারায় বেগবান ও উজ্জ্বল করে রাখতে হবে এ প্রত্যয়ে উদীচী এবারের আয়োজনের সমাপ্তি ঘোষণা করে। হাজার হাজার সংগীত প্রেমীকে উচ্ছ্বাস আর আনন্দের বন্যায় ভাসিয়ে বৃহস্পতিবার টাউনহল মাঠের রওশন আলী মঞ্চে সমাপ্তি ঘটে উৎসবের। আয়োজনের শেষ দিনে স্থানীয় শিল্পীদের পাশাপাশি দেশের অন্যতম বাউল শিল্পী ফকির শাহবুদ্দিন তার ব্যতিক্রমী উপস্থাপনা ও সুর আর বার্তায় সকলের মন ভরিয়ে দেন। কম ছিলনা ঢাকার শিল্পী জাকির হোসেনের সুর মূর্ছনাও।
‘ফিরে চল মাটির টানে’ এ আহবানে উদযাপিত উৎসবের সমাপনী দিনের পরিবেশনা শুরু হয় উদীচীর শিল্পীদের সমবেত জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে। এরপর স্থানীয় লোকশিল্পী সুব্রত দাস, পরিতোষ বাউল, শাজাহান আলমগীর, গোবিন্দ বিশ্বাস, সিলভিয়া আফরোজ জয়ী, তারান্নুম প্রভা, রীপা রায় ও রফিকুল ইসলাম সঙ্গীত পরিবেশন করেন। বাংলা লোক সংস্কৃতির সাথে নাচও জড়িয়ে আছে ওতপ্রোত ভাবে। সেই ধারাকে উপস্থাপন করতে উদীচীর শিল্পীরা পরিবেশন করে কয়েকটি মনোমুগ্ধকর লোকনৃত্য। ফকির শাহবুদ্দিনের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনার পর উৎসবের সমাপনি বক্তব্য রাখেন উদীচী যশোরের সভাপতি ডিএম শাহিদুজ্জামান। শুভঙ্কর গুপ্তের সঞ্চালনায় দ্বিতীয় দিনের উৎসব উদযাপন করা হয়। সমাপনি বক্তব্যে শাহিদুজ্জামান বলেন, লোকসংগীত আমাদের দেশের স্বাধিকার আন্দোলনসহ সকল প্রগতিশীল আন্দোলন সংগ্রামে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছে। যথাযথ মর্যাদার অভাব এবং অবহেলায় লোক সংস্কৃতির সহজ সরল ধারা আজ শহরের সংস্কৃতির সঙ্গে সংঘর্ষে  উপনীত হচ্ছে। জগাখিচুড়ি সংস্কৃতি চর্চার সঙ্গে লোক সংস্কৃতির দ্বন্দ্ব প্রকট হয়ে দেখা দিচ্ছে। বিজাতীয় সংস্কৃতি ও সা¤প্রদায়িক শক্তির আগ্রাসনে বাঙালী সংস্কৃতি হারিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে স্ববিরোধী কর্মকান্ড না করে দেশীয় সংস্কৃতি রক্ষার আন্দোলন জোরদার করার আহবান জানান তিনি।
উৎসবে বাদ্যযন্ত্রে সঙ্গত করেন স্থানীয় যন্ত্রশিল্পী। বাঁশিতে ছিলেন দেলোয়ার, দো-তারায় বিকাশ শীল, ঢোলে মিলন, খমক ও ম্যারাকাসে পরিতোষ দাস প্রমুখ। সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে এ উৎসব সমাপ্তি হওয়ায় লোকসংস্কৃতি উৎসব উদযাপন পর্ষদ ১৪২৪ এর আহবায়ক মাহবুবুর রহমান মজনু ও সদস্য সচিব শেখ মারুফ হাসান সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আগামীতে আরো বৃহৎ কলেবরে এ উৎসব আয়োজনের ক্ষেত্রে যশোর বাসীর স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতার  প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
এ উৎসবের সমাপনি দিনে ডাক্তার আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ অধ্যক্ষ জেএম ইকবাল হোসেন, প্রবীণ শিক্ষক তারাপদ দাস, সনাক সদস্য প্রশান্ত দেবনাথসহ উপস্থিত বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, লোকগীতির বিভিন্ন চরিত্র এদেশের বিভিন্ন সুরে বিভিন্ন বৈচিত্র্যে সমৃদ্ধভাবে অবস্থান করছে। অঞ্চলে অঞ্চলে আলাদা বৈশিষ্ট্য নিয়ে তা উজ্জ্বল। এই উজ্জ্বলতা সব মানুষের চোখে তুলে ধরার জন্য সমন্বিত প্রচেষ্টা দরকার, এজন্য সাংগঠনিক ও প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম আরো বেশি বেগবান করা প্রয়োজন। আর এজন্য শুধু সঙ্গীত নয় লোককাহিনী, ছড়া, প্রবচন, যাত্রা শিল্পসহ বিভিন্ন পেশা যে গুলো দিন দিন আধুনিকতার কষাঘাতে মানুষ ছেড়ে যাচ্ছে সেগুলোর পৃষ্ঠপোষকতা করা দরকার। নিজস্ব মৌলিকতা সমৃদ্ধ এ অপার সম্ভবনার খনি নতুন করে আবিষ্কার করতে হবে। এটাকে  শুদ্ধ ভাবে ব্যবহার করার জন্য পদ্ধতি ও কৌশলও সকলকে সম্মিলিত ভাবে উদ্ভাবন করতে হবে। 




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : gramerka@gmail.com, editor@gramerkagoj.com
Design and Developed by i2soft