শিরোনাম: নড়াইলের ফ্যামিলি কেয়ারে আবারো অপচিকিৎসা       যমেক হাসপাতালের ব্লাডব্যাংকে চাঁদাবাজি সুজন সিন্ডিকেটের        মঙ্গলবার যশোরে ডাক্তারসহ ২৩ জনের করোনা শনাক্ত       যশোরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সভা       স্রষ্টা ভাবনা        নুরজাহান ইসলাম নীরা মনোনয়ন পাওয়ায় কেশবপুরে শুভেচ্ছা মিছিল       করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক নাছিমের রোগমুক্তি কামনা       শার্শার বাগআঁচড়া বাজারে দুই কারেন্টজাল বিক্রেতাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা       মাগুরায় ৫ হাজার তালবীজ রোপন কর্মসূচির উদ্বোধন       বিএনপির প্রার্থীকে বিজয়ী করতে রাণীনগরে যুবদলের আলোচনা সভা       
যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থা বছর জুড়েই রয়েছে বক্সিংয়ের অনুশীলন
ক্রীড়া সংবাদ
Published : Tuesday, 15 September, 2020 at 11:57 PM

যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থা
বছর জুড়েই রয়েছে
বক্সিংয়ের অনুশীলনযশোর জেলায় সারা বছর ধরে রয়েছে বক্সিংয়ের অনুশীলন। সকালে নওদাগ্রামে আর বিকেলে জেলা ক্রীড়া সংস্থার বক্সিং রিংয়ে এটি হয়। সম্প্রতি জেলা ক্রীড়া সংস্থা বক্সিং, বডি বিল্ডিং ও ভারোত্তলন পরিষদ গঠন করেছে।
বক্সিং, বডি বিল্ডিং ও ভারোত্তলন এই তিনটি আলাদা ইভেন্ট। কিন্তু পরিষদ একটিই। বক্সিংয়ের থাকলেও বডি বিল্ডিং ও ভারোত্তলনের চর্চা নেই। যশোর স্টেডিয়াম সংলগ্ন একটি ব্যায়ামাগার রয়েছে। এছাড়া, ব্যক্তি উদ্যোগে শহরে রয়েছে কয়েকটি জিম সেন্টার। এসব জায়গায় বিভিন্ন ইভেন্টের খেলোয়াড় ছাড়াও মেদ কমানোর জন্যে কিছু মানুষের যাতায়াত রয়েছে। সত্যিকার অর্থে বডি বিল্ডিং বলতে যা বোঝায় তা মোটেও চোখে পড়ে না। ভারোত্তলনের কথা উঠলে বলতে হয় একেবারেই অনুপস্থিত।
বক্সিংয়ে আলাদা সুনাম রয়েছে যশোরের। সাফ গেমসে এই জেলার মেয়েরা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণই শুধু করেনি, রয়েছে পদক জয়ের ইতিহাসও। কোনো খেলোয়াড় যদি একটু সফলতা দেখান তাদের আর ধরে রাখা যায় না! বিভিন্ন বাহিনীতে চাকরির সুযোগ পেয়ে সেখানে যোগ দেন। এ রকম ঘটনা অহরহ।
যশোরে বক্সিং শুরু হয় ১৯৮০ সালের মাঝামাঝি। এরপর বিভিন্ন সময় টাউনহল,  মোমিননগর প্রীতি পরিষদ ক্লাব মাঠ, নতুন খয়েরতলা ভাস্কর্য মোড়ে ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার বক্সিং রিংয়ে বেশ কয়েকবার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সারাবছর অনুশীলন থাকলেও নিয়মিত প্রতিযোগিতা হয় না। রয়েছে বক্সিং সরঞ্জামাদির অভাব। এসব সমস্যা থেকে উত্তরণ ঘটাতে প্রয়োজন অর্থ। অর্থনৈতিক সমস্যার সমাধান করা গেলে বক্সিংয়ের জৌলুস আরও বৃদ্ধি পাবে-এমনটাই মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
জেলা ক্রীড়া সংস্থার বক্সিং, বডি বিল্ডিং ও ভারোত্তলন পরিষদের সম্পাদক করা হয়েছে জাতীয় বক্সিং প্রশিক্ষক ফজলুর রহমানকে। তিনি প্রথমবারের মতো এই দায়িত্ব পেয়েছেন। ফজলুর রহমান জানান, ঘরোয়া টুর্নামেন্ট করার পাশাপাশি জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় আরও ভালো ফল বয়ে আনা তাদের লক্ষ্য।
এই পরিষদের সদস্য সংখ্যা ১১ জন। সভাপতি হয়েছেন মোহিত কুমার নাথ। সহসভাপতি অ্যাডভোকেট সফিউর রহমান মল্লিক ও দেলোয়ার হোসেন। যুগ্ম সম্পাদক জিল্লুর রহমান ও একরামুল করিম সুমন। সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ফেরদৌসী বেগম, শিমুল বিশ্বাস শিমু, আসাদুজ্জামান আসাদ, সাঈদুজ্জামান মিঠু ও শামিমা আক্তার আদুরী। আগামীকাল প্রকাশিত হবে ভলিবল নিয়ে প্রতিবেদন।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft