শিরোনাম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে খাদ্য সামগ্রী বিতরন       রামপালে বাংলাদেশ ইন্ডিয়া ফ্রেন্ডশীপ পাওয়ার কোম্পানি লিঃ এর ওয়াটার অসমোসিস প্লান্ট উদ্ভোধন        অবৈধ বালু উত্তোলন, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা       মাগুরায় গাছ থেকে পড়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু        মহেশপুরে বইছে ২৫তম মেয়র নির্বাচনের হাওয়া       স্মার্ট লাইসেন্স সিস্টেমের আওতায় রাজশাহী       ঝালকাঠির গ্রামীণ জনপদে গড়ে উঠছে হাঁসের খামার       কাশ্মীর ইস্যুতে জাতিসংঘে ভারতের ওয়াকআউট       ঝালকাঠির মহাসড়কে পৌর টোলের নামে চাঁদাবাজি, বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ       দিনাজপুরে আহমদ শফী স্মরনে ও দোয়া মাহফিল       
দমদম বিমানবন্দরে অত্যাধুনিক যন্ত্র ব্যবহারের প্রস্তুতি
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 12 August, 2020 at 3:06 PM
দমদম বিমানবন্দরে অত্যাধুনিক যন্ত্র ব্যবহারের প্রস্তুতিকেরলের কোঝিকোড়ে বিমান দুর্ঘটনার পর অতিরিক্ত সর্তকতা নিয়েছে দেশের বিমানবন্দরগুলি। বাড়তি সাবধানতা কলকাতা বিমানবন্দরেও। বিমান দুর্ঘটনার পর ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারকারী বিভাগগুলির সঙ্গে সমন্বয় করে কাজের জন্য রানওয়েতে মোবাইল কম্যান্ড পোস্ট (MCP) নামক বিশেষ একটি যান নামানো হবে বলে জানা গিয়েছে। কোনও দুর্ঘটনা ঘটলে আধুনিক ব্যবস্থায় সজ্জিত এই বাহন দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাজ শুরু করে দেবে।
মঙ্গলবার নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এই খবর জানিয়েছে। বিশেষ এই যানটি আগেই নিয়ে আসা হয়েছিল কলকাতায়। কোঝিকোড়ের ঘটনার পর সেটাকে আরও গুরুত্বের সঙ্গে ব্যবহারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বিমানবন্দরের তরফ থেকে।
এমসিপি আসলে অনেকটা ছোট লরির মতো। এই যানটিতে থাকবে একাধিক আধুনিক ক্যামেরা, সাময়িক চিকিৎসা সরঞ্জামও। ক্যামেরার মাধ্যমে ঘটনাস্থলের টাটকা ছবি গাড়ির মধ্যেই দেখতে পাবেন উদ্ধারকারীরা। সেই ছবি উদ্ধারকাজে যুক্ত সংশ্লিষ্ট বিভাগকে পাঠানো যাবে সঙ্গে সঙ্গে। উদ্ধারকারী দলের নেতৃত্বে যাঁরা থাকবেন, এমসিপির সাহায্যে তাঁরা সমগ্র কাজ পরিচালনা করতে পারবেন ঘটনাস্থল থেকেই। এই গাড়িতে থাকবে ৮ জনের বসার জায়গা। থাকবে ডিজিটাল বোর্ডের মাধ্যমে প্রোজেকশনের ব্যবস্থা এবং শব্দ প্রক্ষেপণের প্রযুক্তি। ঘটনাস্থলের টাটকা ছবি দেখে পরিকল্পনা করে দ্রুত নির্দেশ দিয়ে উদ্ধারকারী বিভাগকে সচল রাখতে এই গাড়ির বিশেষ ব্যবস্থা কার্যকরী ভূমিকা নেবে বলে আশাবাদী বিশেষজ্ঞরা।
গত শুক্রবারের দুর্ঘটনার পর আপৎকালীন পরিস্থিতিতে এসআরসি বা সারভাইভারস রিসেপশন সেন্টার খোলা হয়। তার সঙ্গে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট সেন্টার (CMC) এবং এয়ারপোর্ট অপারেশন কন্ট্রোল সেন্টার (AOCC) খোলা হয় সাময়িকভাবে। এই তিন গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ দুর্ঘটনার পর সংশ্লিষ্ট উদ্ধারকারী দলকে মূলত নেতৃত্ব দেয়। এই গোটা বিষয়টি র সমন্বয় সাধনের কাজটি করবে মোবাইল কম্যান্ড পোস্ট গাড়িটি। ঘটনাস্থলের ৯০ মিটারের মধ্যে দাঁড়িয়ে এটি কাজ করবে। সেরকম প্রযুক্তি ব্যবহার করেই তৈরি করা হয়েছে এই বিশেষ যানটি। এর মূল্য প্রায় ৪৬ লক্ষ টাকা। এপ্রিল মাসের শেষে এই যান কলকাতা বিমানবন্দরে আনা হয়েছিল। এখন এটিকে আরও গুরুত্ব সহকারে ব্যবহার করার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft