শিরোনাম: কলেজে অতিরিক্ত ভর্তি ফি আদায়        যশোরে সেবিকা, স্বাস্থ্যকর্মীসহ আরও ২০ জন করোনায় আক্রান্ত        ফড়িয়া থেকে রক্ষা পাবে কৃষক       অ্যাম্বুলেন্স দিচ্ছেন মেয়র, ৪৫ লাখ টাকা দেনা যমেক হাসপাতাল        সাংবাদিকদের নিয়ে এমআরডিআইয়ের প্রশিক্ষণ       আমরা মানুষের জন্য রাজনীতি করি : রেলপথমন্ত্রী       একাদশে অনলাইনে ক্লাস অক্টোবরে       এবারের আইপিএলে কমবে চার-ছক্কার প্রদর্শনী!       করোনা পরিস্থিতিতে এবছর ‘শহরের ঠাকুর দেখুন হেঁটে নয় নেটে’       যুক্তরাষ্ট্রে পার্টিতে গোলাগুলি, নিহত ২      
রাজ্য ও বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার বর্ষপূর্তি ঘিরে কাশ্মীরে কারফিউ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Tuesday, 4 August, 2020 at 11:09 AM
রাজ্য ও বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার বর্ষপূর্তি ঘিরে কাশ্মীরে কারফিউকাশ্মীরের রাজ্য ও বিশেষ স্বায়ত্তশাসন মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার বর্ষপূর্তি ঘিরে বিক্ষোভ ঠেকাতে সেখানে কারউফি জারি করেছে ভারত।
সোমবার তড়িঘড়ি করে কারফিউ জারি করা হয়। আগামী বুধবার পর্যন্ত এই কারফিউ জারি থাকবে।
পাশাপাশি করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) সংক্রান্ত বিধিনিষেধের সময়সীমা ৫ আগস্ট থেকে বাড়িয়ে ৮ আগস্ট করা হয়েছে বলে জানায় এই সময়।
গত বছর কাশ্মীরের বিশেষ স্বায়ত্তশাসন সংক্রান্ত সংবিধানের ৩৭০ ধারা এবং ৩৫(এ) ধারা বাতিল করে হিন্দুত্বাবাদী বিজেপি সরকার। এই দুই ধারা অনুসারে প্রায় সাত দশক জম্মু ও কাশ্মীর বিশেষ ক্ষমতা ভোগ করে আসছিল। একই সঙ্গে কাশ্মীর থেকে লাদাখকে বিচ্ছিন্ন করে রাজ্যের মর্যাদাও কেড়ে নেওয়া হয়।
ভারতীয় গোয়েন্দাদের তথ্য অনুযায়ী, ৫ আগস্ট ৩৭০ ধারা বাতিলের বর্ষপূর্তিতে কাশ্মীরজুড়ে ‘কালো দিবস’ পালনের পরিকল্পনা করছে সেখানকার রাজনৈতিক ও বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলো। এই বিক্ষোভ সহিংস হয়ে উঠতে পারে।
এর পর কারফিউ জারি করে জেলা প্রশাসন। এ সংক্রান্ত নির্দেশিকায় বলা হয়, ‘৫ আগস্ট শহরে সম্ভাব্য সহিংস বিক্ষোভের সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া গেছে। এতে সাধারণ মানুষের জীবন ও সম্পত্তিহানীর আশঙ্কা আছে। এই রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে সম্ভাব্য সহিংসতা আটকানো এবং জীবন ও সম্পত্তি রক্ষায় অবিলম্বে জেলায় কারফিউ জারি করা হচ্ছে।’
খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া জেলাজুড়ে সাধারণ মানুষের চলাচলের ওপরে সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বন্ধ থাকবে সব ধরনের জমায়েত।
এদিকে, সোমবারও উপত্যকাজুড়ে কড়া বিধিনিষেধ জারি ছিল। কার্যত অঘোষিত কারফিউর রূপ নিয়েছিল উপত্যকা। সমস্ত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান, দোকানপাট, বাজার ছিল বন্ধ। পথে নামেনি যানবাহন। জনগণের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। রাস্তায় রাস্তায় বিপুল সংখ্যক ভারতীয় সেনাকে টহল দিতে দেখা গেছে।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft