শিরোনাম: সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শোক দিবস পালন করতে হবে: এমপি নাসির       রাজশাহী বিভাগে ৩১৪ জনের করোনা শনাক্ত       নারায়ণগঞ্জে নিখোঁজ অটোচালকের হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার       রাজশাহীতে যুবককে কুপিয়ে হত্যা       নড়াইলে চিরনিদ্রায় শায়িত পর্বতারোহী রেশমা       লালপুরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী পালিত       চীনের নজর এবার তাজাকিস্তানের দিকে       মার্কিন পণ্যের ওপর পাল্টা বাড়তি শূল্ক আরোপ করবে কানাডা       নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের ঘোষণা মাহাথিরের       গোপালগঞ্জে পানিবন্দি ৩ হাজার পরিবার      
ক্রিকেটাররা ক্লাবগুলোর কাছে পারিশ্রমিকের অর্ধেক চাইছেন
ক্রীড়া ডেস্ক :
Published : Wednesday, 8 July, 2020 at 2:52 PM
ক্রিকেটাররা ক্লাবগুলোর কাছে পারিশ্রমিকের অর্ধেক চাইছেনপাকিস্তান সফর বাতিল। আয়ারল্যান্ড-ইংল্যান্ড সফরেও যাওয়া হয়নি। অস্ট্রেলিয়ার যে টেস্ট খেলতে আসার কথা ছিল, সেটাও স্থগিত হয়েছে। নিউজিল্যান্ডের বাংলাদেশ সফরও স্থগিত হয়েছে। আর আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফরও আপাতত হচ্ছে না। সব মিলে করোনার কারণে বাংলাদেশের পাঁচটি সিরিজ বন্ধ হয়ে গেছে।
এদিকে করোনা পরিস্থিতি এখনও আগের মতই। আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কমেনি। প্রতিদিনই হাজার-হাজার আক্রান্ত হচ্ছেন। প্রাণনাশের ঘটনাও ঘটছে বেশ। এরকম অবস্থায় বাংলাদেশে কবে জনজীবন স্বাভাবিক হবে? কবে নাগরিক জীবনের গতি ফিরে আসবে? বলা কঠিন। করোনার প্রকোপ কমলেই জাতীয় ক্রিকেট দলের অনুশীলন শুরুর কথা চিন্তাভাবনা চলছে।
যেহেতু এখনও বাতিলের আনুষ্ঠানক ঘোষণা আসেনি, তাই এশিয়া কাপকে সামনে রেখে জাতীয় দলকে প্রস্তুত করার কথা ভাবছে বিসিবি। সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ হতে পারে- এমন ভেবে চলতি মাসের শেষ ভাগে না হলেও ঈদ-উল-আজহার পর আগামী আগস্টের প্রথম সপ্তাহে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অনুশীলন শুরুর ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন ক্রিকেট অপারেশন্স প্রধান আকরাম খান।
অবশ্য সেটা করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়া সাপেক্ষে। আকরাম খান জানিয়ে দিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি ভাল হলেই কেবল প্র্যাকটিস শুরু হবে। বিসিবির এ ঘোষণায় আরও একটি প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। তা হলো, জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা যদি অনুশীলনে নামেন আর এশিয়া কাপ খেলতে দেশের বাইরে যান, তাহলে ঢাকার ক্লাব ক্রিকেটের কী হবে? দেশের সিংহভাগ ক্রিকেটারের রুটি-রুজির ঐ আসর কি আর এ বছর মাঠে গড়াবে? প্রিমিয়ার লিগ খেলে যারা সারাবছর চলেন, এই ক্লাব ক্রিকেটই যাদের অর্থ উপার্জনের একমাত্র উৎস- তাদের কী হবে?
এ প্রশ্ন সামনে রেখে মঙ্গলবার রাতে অনলাইনে সভায় বসেছিল ত্রিকেটার্স ওয়েলফেয়ার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (কোয়াব)। কোয়াবের দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে, করোনা পরিস্থিতি বিচার বিশ্লেষণ করে সভায় ধরেই নেয়া হয়েছে খুব সহসা মানে অন্তত এক-দুই মাসের ভেতরে প্রিমিয়ার লিগ মাঠে গড়াচ্ছে না বা গড়ানোর সম্ভাবনা নেই।
সেক্ষেত্রে সম্ভাব্য করণীয় খুঁজতে গিয়ে কোয়াব কর্তারা বিসিবির মাধ্যমে ক্লাবগুলোর কাছে একটি আন্তরিক আবেদন রেখেছেন। কোয়াব থেকে বিসিবির কাছে অনুরোধ জানানো হয়েছে যে, প্রিমিয়ারের ক্লাবগুলো যেন যত দ্রুত সম্ভব ক্রিকেটারদের অন্তত ৫০ শতাংশ পারিশ্রমিক দিয়ে দেয়। তাতে করে ক্রিকেটারদের আর্থিক ক্ষতি কিছুটা হলেও পোষাবে।
কোয়াব সভাপতি নাইমুর রহমান দুর্জয়সহ সভাপতি খালেদ মাহমুদ সুজন, সদস্য সচিব দেববব্রত পাল, ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, আব্দুর রাজ্জাক, তুষার ইমরান, জহুরুল ইসলাম অমি, নাসির হোসেন, এনামুল হক জুনিয়র, শাহরিয়ার নাফীস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আফিফ হোসেন ধ্রুব ও নাইম শেখরা এ অনলাইন সভায় অংশ নেন।
তাদের সাথে বিসিবি সিইও নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন ও বিসিবি পরিচালক এবং সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনামও সভায় আমন্ত্রিত ছিলেন। তাদের মতামতও নেয়া হয় এবং বিসিবির ও দুই শীর্ষকর্তা তাৎক্ষণিকভাবে জেনে যান যে, কোয়াব বোর্ডের মাধ্যমে প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবগুলোর কাছে ক্রিকেটারদের অর্ধেক পারিশ্রমিক আবেদন করেছে।
বিসিবিকে বলা হয়েছে ক্লাবের সাথে আলোচনা করে ৫০ ভাগ পারিশ্রমিকের ব্যবস্থা করতে। এছাড়া কোয়াব জাতীয় দলের অনুশীলন ও বিদেশ সফরের বিষয়ে ক্রিকেট বোর্ডের সিদ্ধান্তকেই চূড়ান্ত বলে গণ্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ জাতীয় দলের অনুশীলন কবে কোথায় শুরু হবে এবং জাতীয় দল বিদেশ সফরে যাবে কি যাবে না?- সে বিষয়ে বোর্ডের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে গণ্য করা হবে। এ নিয়ে কোয়াবের আর কোন ভিন্ন বক্তব্য নেই।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft