শিরোনাম: ‘সংক্রমণ আরও বাড়বে, সঠিক সিদ্ধান্ত হয়নি’       স্বাস্থ্যবিধি মানার অনুরোধ বিমানে যাত্রীদের        জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চাকরি বাঁচাতে ঢাকা যাচ্ছে মানুষ       বিশ্বের ২৬ কোটি মানুষ খাদ্য সঙ্কটের মুখে       দাগমুক্ত উজ্জ্বল ত্বক পাবেন পেঁয়াজের রসেই!       করোনার ওষুধ আসছে কবে?       চুল পড়া রোধের কার্যকরী সাত উপায়       রাজশাহী বিভাগে একদিনে বেড়েছে ৪৩ করোনা রোগী       কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের পর মুক্তিপণ দাবি, গ্রেপ্তার ৬       ঢাকা থেকে বাড়ি এসে করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু      
সাবধান ! জানাজা দেওয়ার লোক থাকবে না
ইঞ্জিঃ মোঃ শাহজালাল
Published : Sunday, 19 April, 2020 at 5:48 PM
সাবধান ! জানাজা দেওয়ার লোক থাকবে নাআল্লাহ যদি আমাদের শরীরে করোনা প্রতিরোধের জন্য যথেষ্ট পরিমাণ ইমিউনিটি না দেন অথবা করোনাকে দুর্বল করে না দেন তা হলে অতি সচেতন মানুষও মনে হয় এই সংক্রমন থেকে রেহাই পাবেন না। লক্ষ লক্ষ মানুষ বাড়ি ফিরবেন, শিল্পপতিরা সরকারের সাধারণ ছুটি উপেক্ষা করে শ্রমিকদের ডেকে এনে কারখানাতে ঢুকাবেন, সরকারি পয়সায় লোকশান পোষানোর বন্দবস্ত হলে আবার ফেরত পাঠাবেন, বাজারে থাকবে উপচেপড়া ভিড়, বাসার ছাদে জামাত করবেন, যুবক ছেলে বাড়িতে মন বসেনা পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে ঘুরে বেড়াবেন এ মহল্লা থেকে আরেক মহল্লা, এ গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে।
আর ইসলামের অন্যান্য ফরজ মানি বা না মানি বড় হুজুরের জানাজায় যেতেই হবে যদি হুজুরের উছিলায় জান্নাত পাওয়া যায়। আমার তো মনে হয় যদি মসজিদে বড় জমায়েত নিষিদ্ধের মত জানাজার নামাজেও বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয় এবং আল্লাহ না করুক সেই সময়ে কোন বড় নেতার মৃত্যু হয়, তাহলে সেই জানাজাতেও একি দৃশ্য দেখা যাবে। আপনি এত কিছু করবেন তবুও আপনার কোন দোষ নেই কিন্তু যখনি খবরে দেখবেন নতুন আক্রান্তের সংখ্যা এবং মৃত্যের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে তখনি গালাগালি শুরু করবেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে, সরকারকে আর তুলনা করতে বসে যাবেন অমুক দেশের ডাক্তারা/স্বাস্থ্য কর্মীরা তাদের দেশের জন্য এই করেছে সেই করেছে আর আমাদের ডাক্তাররা চেম্বার বন্ধ করে রেখেছে অমুক করেছে তমুক করেছে সমালোচনা চলছে আর এর মধ্যেই করোনা আপনার শরীরে।
বিশ্বাস করেন করোনা আপনার বাড়ীতে একা আসবে না তার আরেক বন্ধু দুর্ভিক্ষকে সাথে নিয়ে আসবে। আর একবার যদি দুই বন্ধু এক হয়ে যায় তখন আপনি বাজারে ঠিকই যাবেন কিন্তু খাবার পাবেন না। পেটে যদি খাবার না থাকে তাহলে হাটা-চলার শক্তিই থাকবে না সেখানে ঘুরতে যাওয়া তো শুধু কল্পনাতেই সম্ভব। আর সেই সময়ে যদি আপনি মারা যান এবং আপনার করোনা নেগেটিভও থাকে তবুও আপনার জানাজা দেওয়ার লোক থাকবে না। কারণ ততো দিনে কয়েক কোটি মানুষ করোনায় আক্রান্ত থাকবে।
আমার মনে হয় মৃত্যুর পরও আপনি রক্ষা পাবেন না।
আপনাকে জিজ্ঞেস করা হতে পারে কেন আত্মহত্যা করেছো এবং কেন এতগুলো লোককে হত্যা করেছো ? আপনার অসচেতনতার জন্য আপনার দ্বারা যারা সংক্রমিত হয়ে মারা যাবেন তাদের হত্যার দায় আপনার ঘাড়েই আসতে পারে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক হুজুরের জানাযার ছবি দেখে আমার এমটাই মনে হয়েছে।
ইসলাম এ ব্যাপারে কী বলছে সেটা দেখে নেওয়া যাক।
শতর্কতা সম্বন্ধে রাসুল (সঃ) বলেন- তোমরা যদি কোথাও মহামারির সংবাদ পাও তবে সেদিকে যেওনা আর যদি মহামারী আক্রান্ত ভূমিতে পূর্ব থেকেই অবস্থান করো তাহলে সেখান থেকে পালিয়ো না (বুখারী- ৫৭৩৯, মুসলিম - ২২১৯)
পুরষ্কার সম্বন্ধে রাসুল (সঃ) বলেন- যখন কোন বান্দা মহামারীতে পতিত হয় এবং নেকির আসায় ধৈর্য সহকারে সেখানে অবস্থা করে এবং বিশ্বাস রাখে আল্লাহর হুকুম ব্যাতিত কিছুই হয় না। তাহলে সে শহীদের সওয়াব পায়। (বুখারী- ৫৪০২)
ইসলামের নিষেধ এবং এত গৌরবময় পুরষ্কার থাকার পরও এই মানুষগুলো কোন এলেমে এই জমায়েত করলেন তা তারাই ভালো জানেন।
আল্লাহ আমাদের সকলকে বোঝার তৌফিক দান করুণ এবং এই মহামারি থেকে আমাদেরকে রক্ষা করুণ।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft