শিরোনাম: মৃত্যুর মিছিল বাড়ছেই       স্বাস্থ্যবিধি মানায় শৈথিল্য যশোরের অধিকাংশ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে       যশোরাঞ্চলে নামছে অর্ধেক গাড়ি       যশোরে স্বাস্থ্যসেবীসহ নতুন শনাক্ত চারজন       লিবিয়ায় পাচারকারীদের গুলিতে নিহত রাকিবুলের পরিবারে শোকের মাতম       সন্ত্রাসী হামলায় কালিয়া এখন আতঙ্কিত জনপদ       করোনা সঙ্কটে যশোরে শিক্ষার্থীদের মেসভাড়া কমানোর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন       স্বাস্থ্যবিধি মানায় শৈথিল্য যশোরের অধিকাংশ ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে       চাল ছাড়া প্রায় সব পণ্যের দাম কমছে        যশোরে যুবক অপহরণের অভিযোগে বিক্ষোভ      
করোনায় বাড়ছে দেশি নাটকের দর্শক
স্বপ্না দেবনাথ :
Published : Thursday, 2 April, 2020 at 5:27 PM
করোনায় বাড়ছে দেশি নাটকের দর্শককরোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ পরিস্থিতিতে দেশব্যাপী মানুষ এখন ঘরে। অপ্রত্যাশিত এ অবসরে পারস্পারিক পারিবারিক বন্ধন সুদৃঢ় হচ্ছে তেমনি অনেকের দীর্ঘদিনের অভ্যাসের পরিবর্তন ঘটছে। গত এক সপ্তাহে নারী, পুরুষ, শিশু, বৃদ্ধ নির্বিশেষে সকলের ভারতীয় টিভি চ্যানেলে প্রচারিত মেগা ধারাবাহিক প্রীতি কমেছে। লক ডাউনের কবলে বাংলাদেশের মতো ভারতেও বন্ধ আছে নাটকের শুটিং। সকলের মুখে মুখে ফেরা জনপ্রিয় সব নাটকের নতুন পর্ব প্রচার বন্ধ আছে। এ পরিস্থিতিতে ভারতীয় টিভি নাটকের আসক্তিও কমেছে অনেকের। দেশীয় চ্যানেলে প্রচারিত খবরের পাশাপাশি অন্য অনুষ্ঠানের দর্শকও বাড়ছে।
এ বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন অনেকে। নিজেদের মানসম্মত অনুষ্ঠান দিয়ে এ সময়টি ‘ঘরের ছেলেকে ঘর মুখো করার সুযোগ’ বলে মনে করছেন দেশীয় টিভি চ্যানেলের নাটকের ভক্তরা।
সারাদিন খাটুনি শেষে নির্বিঘ্নে একটু আনন্দ উপভোগের জন্য টিভি দেখা। সেখানে যদি বিজ্ঞাপন আর অযথা কথার ফুলঝুরি দেখতে হয় তাহলে আর ইচ্ছা থাকে না। তাই বাধ্য হয়েই ভারতীয় সিরিয়াল দেখা। নিজের অভিব্যক্তি এভাবে প্রকাশ করে গৃহিনী শিপ্রা পাল জানান, গত কয়েকদিন চর্বিতচর্বন কাহিনী দেখানোর কারণে তিনি এখন আর ভারতের চ্যানেলও দেখছেন না। দেশীয় টিভি নাটক দেখছেন তিনি। মানসম্মত কাহিনী নির্ভর নাটক তৈরি হলে দেশীয়  নাটক বাদ দিয়ে কেউ বিদেশী নাটকে হাবুডুবু খাবে না বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
মেজবা উদ্দিন টুটুল নামে এক এনজিও কর্মী বলেন, আমাদের দেশের এমন কোনো টিভি চ্যানেল নেই যেখানে দিনে একটা দুটো লাইভ শোসহ টকশো থাকে না। এগুলো আসলে দর্শক চাহিদা কতটা অনুসরণ করে তা নিয়েই মাঝে মাঝে সন্দেহ জাগে। দেশের অনেক নাটক মানুষের মনে দাগ কেটে আছে। কাহিনী আর শিল্পী নির্বাচন যথাযথ হলে নাটক দর্শক আকর্ষণ করে। হুমায়ুন আহমেদের নাটক তার প্রমাণ। সালাউদ্দিন লাভলু আর বিন্দাবন দাসের যুগলবন্দীও দর্শক হৃদয়ে দাগ কেটেছে। চ্যানেল কর্তৃপক্ষ, পরিচালক, নাট্যকার কিংবা প্রযোজকদের দর্শক আগ্রহের পাশাপাশি ইমোশনকেও প্রাধান্য দিতে হবে বলে মত প্রকাশ করেন তিনি।
চরম ব্যস্ততার জীবনে সকলে এখন ঘরবন্দী। প্রকৃতি ফিরে পাচ্ছে তার স্বভাবিক জীবন। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের খুব কাছাকাছি খেলছে ডলফিন। চেতনায় এক হয়ে দূরে দূরে কাছে থেকে দেশপ্রেম আর সচেতনতার পরিচয় দিচ্ছেন দেশবাসী। করোনার ছোবলের এ সময়  কি পারবে আগামীতেও ভারতীয় মেগা ধারাবাহিকের আসক্তি থেকে দর্শকদের মুক্ত রাখতে!   










« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft