শিরোনাম: ভারত ফেরতদের নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে যশোর স্বাস্থ্য বিভাগ       চেয়ারম্যান শাহারুলের খাবার সামগ্রী বিতরণ       অসহায়দের ঘরে ঘরে খাবার সামগ্রী পৌঁছিয়ে দিচ্ছেন কাউন্সিলর হাজী সুমন       হাত পাততে না পারা মানুষের দুর্বিসহ অবস্থা       চীনের মেডিকেল টিম আসছে বাংলাদেশে       খালেদা জিয়ার হোম কোয়ারেন্টিন শেষ       মোরেলগঞ্জে একই পরিবারে দু’জনের মৃত্যু নিয়ে আতংক নয়, করোনার উপসর্গ মেলেনি        ডোমারে শ্বাসকষ্ট ও জ্বরে বৃদ্ধের মৃত্যু,নমুনা সংগ্রহ করে বাড়ি লকডাউন       তাবলিগ নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে : মমতা       কেশবপুর পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় স্ব-উদ্যোগে লকডাউন      
‘মুজিববর্ষে মোদি যোগ দিলে বদরের যুদ্ধের পুনরাবৃত্তি হবে’
সিলেট সংবাদদাতা :
Published : Friday, 28 February, 2020 at 8:12 PM
‘মুজিববর্ষে মোদি যোগ দিলে বদরের যুদ্ধের পুনরাবৃত্তি হবে’ভারতের দিল্লিতে হিন্দুত্ববাদীদের সহিংসতা ও মুসলিম গণহত্যার প্রতিবাদে সিলেটে বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতাকর্মীরা। একই ইস্যুতে সিলেটের আরও কয়েকটি সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠন শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে নানা স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে সিলেট নগরের রাজপথ। এছাড়া সিলেটের প্রতিটি মসজিদে মসজিদে ভারতে নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য জুমার নামাজ শেষে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।
জুমার নামাজের পর নগরের বন্দরবাজার দলীয় অফিসের সামনে থেকে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিলেট জেলা ও মহানগরের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে নগরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সিটি পয়েন্টে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হন। বিক্ষোভ কর্মসূচিতে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও বিপুল সংখ্যক সাধারণ মুসল্লি অংশ নেন। এ সময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মী ও মুসল্লিরা নরেন্দ্র মোদিকে আবু জেহেলের উত্তরসূরি আখ্যা দিয়ে কুশপুত্তলিকা দাহ করে তার দুই গালে জুতা মারেন।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি একজন সন্ত্রাসী। তার নির্দেশেই নিরীহ মুসলমানদের উপর হত্যাযজ্ঞ চালানো হচ্ছে। তারা নির্বিচারে গুলি করে মুসলমানদের মারছে। মসজিদ-মাদরাসা জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে দিচ্ছে, মিনারে হনুমানের পতাকা লাগিয়েছে। এসব কাজ বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমানের কলিজায় আঘাত দিয়েছে।
বক্তারা আরও বলেন, মার্চে মুজিববর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানে ইসলাম ও মুসলিমবিদ্বেষী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশের জনগণ দেখতে চায় না। মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে মোদি যোগ দিলে এদেশে বদরের যুদ্ধের পুনরাবৃত্তি হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তারা।
বক্তারা বলেন, শাপলা চত্বরে রক্ত দিয়েছি, এ রক্তের দাগ এখনও শোকায়নি। প্রয়োজনে মোদি দেশে আসলে আবারও রক্ত দিতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। তবুও মুসলমানদের ওপর কোনো ধরণের নির্যাতন সহ্য করবো না।
ভারতের শত শত বছরের ইতিহাস, ঐতিহাসিক স্থাপনা ও ঐতিহ্যে মুসলমানদের নাম মিশে আছে উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, ভারতের ঐতিহাসিক বহু স্থাপত্য মুসলমানদের তৈরি। চাইলেই এসব মুছে দেয়া যায় না। ভারতীয় মুসলমানদের অবদানের কাছে আজও পুরো বিশ্ব ঋণী। বিজেপিসহ কট্টরপন্থী হিন্দু সংগঠনগুলো ভারতকে মুসলিমশূন্য করার জন্য মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর ধারাবাহিক যে নির্যাতন নিপীড়ন চালাচ্ছে তা মোদি ও হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলোর পতন ডেকে আনবে।
জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম সিলেট মহানগরের সভাপতি মাওলানা খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ লুৎফুর রহমানের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য দেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মাওলানা শাহীনুর পাশা চৌধুরী, মহানগর জমিয়তের সিনিয়র সহসভাপতি অধ্যক্ষ হাফিজ আব্দুর রহমান সিদ্দিকী, জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আতাউর রহমান, মহানগরের সহ-সভাপতি মাওলানা খয়রুল হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাওলানা সৈয়দ শামীম আহমদ, মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ সালিম কাসেমী, মহানগর জাতীয় ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা হাবিব আহমদ শিহাব, যুব জমিয়তের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা আখতারুজ্জামান তালুকদার, মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, হাফিজ কবির আহমদ, মহানগর যুব জমিয়তের সভাপতি মাওলানা কবির আহমদ, সৈয়দ ওবায়দুর রহমান, মাওলানা মতিউর রহমান, মাওলানা আসাদ উদ্দিন প্রমুখ।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft