শিরোনাম: পাবনায় ট্রাক-থ্রি হুইলার সংঘর্ষে নিহত ২       মণিরামপুরে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত নিহত       জমি জেলা প্রশাসনের, বিক্রি করছে পাবলিক!       অবিলম্বে মোদির রাষ্ট্রীয় আমন্ত্রণ বাতিলের দাবি আহমদ শফীর        আপনাদের এই আদালতের মুখোমুখি হতে হবে : দুদু       পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে ভারত       ১১ বছরে মিডিয়ার অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে       করোনাভাইরাস: ওমরাহ হজ নিষিদ্ধ করলো সৌদি       দুদক স্বাধীন না হলে মন্ত্রী-এমপিরা টার্গেট কেন : কাদের       সংঘর্ষের পর দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ বিচারপতিকেই মাঝরাতে বদলি      
হাতিরঝিলে কোনো অবৈধ স্থাপনা থাকবে না : গণপূর্তমন্ত্রী
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 22 January, 2020 at 8:17 PM
হাতিরঝিলে কোনো অবৈধ স্থাপনা থাকবে না : গণপূর্তমন্ত্রীহাতিরঝিলের অনুমোদিত নকশার বাইরে কোনো অবৈধ স্থাপনা থাকতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।
তিনি বলেন, দৃষ্টিনন্দন হাতিরঝিলে অবৈধভাবে গড়ে তোলা বিজিএমইএ ভবন ভাঙা শুরু হয়েছে। দেশের পরিবেশ ও রাষ্ট্রের সুরক্ষার লক্ষ্যে এটি করা হয়েছে।
আজ বুধবার (২২ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অবৈধভাবে হাতিরঝিলে নির্মিত বহুল আলোচিত বিজিএমইএ’র ভবন ভাঙার কার্যক্রম উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, হাতিরঝিলে পানিতে এখন আর খারাপ গন্ধ নেই। তারপরও আমরা পানি নিষ্কাশন ও পরিষ্কারের জন্য অস্ট্রেলিয়া থেকে যন্ত্র নিয়ে এসেছি। প্রতিদিনই পানি পরীক্ষা করা হবে এবং পানি যাতে সুন্দর থাকে সেই ব্যবস্থা করা হবে। হাতিরঝিলে পানি থেকে কোনোরকম দুর্গন্ধ বের হবে না।
প্রসঙ্গত, ২০০৬ সালের দিকে হাতিরঝিলে আড়াআড়িভাবে গড়ে ওঠা বিজিএমইএ ভবনের নির্মাণকাজ শেষ হয়। জলাশয়ে ভবনটি নির্মাণ করায় শুরু থেকেই এর বিরোধিতা করে আসছিলেন পরিবেশবাদীরা। পরে বিষয়টি আদালতে গড়ায়। বিজিএমইএ ভবন অপসারণে আপিল বিভাগের দেয়া এক বছর সময় শেষ হয় গত ১২ এপ্রিল। ২ এপ্রিল সর্বোচ্চ আদালত ভবনটি অপসারণে তৈরি পোশাক ও রফতানিকারকদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএকে এক বছর ১০ দিন সময় দেন।
২০১১ সালের ৩ এপ্রিল হাইকোর্ট এক রায়ে বিজিএমইএ’র বর্তমান ভবনটিকে ‘হাতিরঝিল প্রকল্পে একটি ক্যান্সারের মতো’ উল্লেখ করে রায় প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে ভবনটি ভেঙে ফেলতে নির্দেশ দেন। এর বিরুদ্ধে বিজিএমইএ লিভ টু আপিল করে, যা ২০১৬ সালের ২ জুন আপিল বিভাগে খারিজ হয়।
রায়ে বলা হয়, ‘ভবনটি নিজ খরচে অবিলম্বে ভাঙতে আবেদনকারীকে (বিজিএমইএ) নির্দেশ দেয়া যাচ্ছে। এতে ব্যর্থ হলে রায়ের কপি হাতে পাওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে রাজউককে ভবনটি ভেঙে ফেলতে নির্দেশ দেয়া হলো।’ পরে ভবন ছাড়তে উচ্চ আদালতের কাছে সময় চায় বিজিএমইএ। এরপর ১৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় ভবনটিতে তালা ঝুলিয়ে দেয় রাজউক।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft