শিরোনাম: আত্মমানবতার সেবায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইচ্ছাপূরণ       ইলিয়াস কাঞ্চনের ‘মুখোশ উন্মোচনের’ হুংকার শাজাহান খানের       দুর্নীতি প্রতিরোধে রাজনৈতিক অঙ্গীকার পেয়েছি : টিআইবি       খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ করে দিয়েছে সরকার : রিজভী       পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে আলোচনার কোনো সুযোগ নেই : উ. কোরিয়া       হট্টগোলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইনি নোটিশ       আমরা চমক সৃষ্টি করতে পেরেছি : এলজিআরডি মন্ত্রী       তাপস বলার কে, প্রশ্ন দুদক চেয়ারম্যানের       মামলা লড়তে হেগের উদ্দেশে সু চি       ‘রিটার্ন দাখিলে বাধ্য করা হবে’      
সেপটিক ট্যাংকগুলো নিরাপদ কিনা যাচাই দরকার : শিক্ষা উপমন্ত্রী
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি :
Published : Tuesday, 19 November, 2019 at 8:23 PM
সেপটিক ট্যাংকগুলো নিরাপদ কিনা যাচাই দরকার : শিক্ষা উপমন্ত্রীশিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, অপরিকল্পিতভাবে দালান নির্মাণ করা হয়েছে এখানে। কোনও পরিকল্পনাগত ত্রুটি হয়েছে কিনা তা যাচাই করা দরকার। কারণ ভবন নির্মাণ করতে গিয়ে ডিজাইনে যদি ত্রুটি থাকে তাহলে সবার বসবাস করা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যায়।
তিনি বলেন, আমরা দালান নির্মাণ করেছি ঠিকই কিন্তু সেপটিক ট্যাংকগুলো যেখানে নির্মিত হয়েছে, সেখান থেকে উৎপাদিত মিথেন গ্যাস সঠিকভাবে বের হচ্ছে কিনা তা তদারকি করার সময় এসেছে।
মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) সকালে নগরীর পাথরঘাটা ব্রিকফিল্ড রোডে গ্যাসলাইন বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।
শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, ভবনের নিচে সেপটিক ট্যাংক মরণফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রতিটি দালানের নিচে সেপটিক ট্যাংকগুলোতে গ্যাস নির্গমনে যথাযথ ব্যবস্থা করা হয়েছে কিনা তা তদারকি করতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন, ওয়াসা ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (সিডিএ) আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, এই যে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, এটি শুধু গৃহের বাসিন্দাদের আহত করেনি রাস্তার পাশে চলা পথচারীরাও নিহত হয়েছেন সরাসরি। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানাবো, তারা যেন পরিদর্শন কাজ দ্রুত শুরু করেন। তবে যাতে দালান মালিকরা হেনস্থের শিকার না হন সেই বিষয়টিও খেয়াল রাখতে হবে। পরিদর্শন করে যদি ঝুঁকির কিছু পায় তাহলে তাদের নির্দেশনা ও সচেতনতার বিষয়ে ব্রিফ করতে হবে। কারণ অনেক ভবন মালিক জানেন না।
নওফেল বলেন, বিস্ফোরণ ঘটার পর আমরা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি। তদন্ত কমিটির সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বিস্ফোরণের বিষয়ে প্রাথমিকভাবে একটা ধারণা করছিলেন। আমরা চাই তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশিত হোক। রাজধানীতেও কয়েকটা ঘটনা ঘটেছে। তবে বিস্ফোরণ খুব কম হয়েছে। যেহেতু বিস্ফোরণের মতো ঘটনা ঘটেছে তাহলে বুঝতে হবে প্রত্যেক ঘরের নিচে সেপটিক ট্যাংকগুলো সেভ নেই। গ্যাস যদি বের হওয়ার উপায় না থাকে তাহলে বিস্ফোরিত হবেই।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft