শিরোনাম: ইলিয়াস কাঞ্চনের ‘মুখোশ উন্মোচনের’ হুংকার শাজাহান খানের       দুর্নীতি প্রতিরোধে রাজনৈতিক অঙ্গীকার পেয়েছি : টিআইবি       খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ বন্ধ করে দিয়েছে সরকার : রিজভী       পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ ইস্যুতে আলোচনার কোনো সুযোগ নেই : উ. কোরিয়া       হট্টগোলে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইনি নোটিশ       আমরা চমক সৃষ্টি করতে পেরেছি : এলজিআরডি মন্ত্রী       তাপস বলার কে, প্রশ্ন দুদক চেয়ারম্যানের       মামলা লড়তে হেগের উদ্দেশে সু চি       ‘রিটার্ন দাখিলে বাধ্য করা হবে’       দিল্লিতে কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৪৩       
টিকটকে মজেছেন মাধুরী দীক্ষিত
বিনোদন ডেস্ক :
Published : Friday, 15 November, 2019 at 6:38 AM
টিকটকে মজেছেন মাধুরী দীক্ষিতবলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাধুরী দীক্ষিত এবার মজেছেন টিকটকে। এর আগে অনেক তারকাই টিকটকে নানান ভিডিও শেয়ার করেছেন।
টিকটক কমিউনিটি থেকে মাধুরী দীক্ষিত ও অনিল কাপুর অভিনীত ব্লকবাস্টার ছবি ‘তেজাব’-এর ৩১ বছর উদযাপন করছে মহাধুমধাম করে। সেই উপলক্ষে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘#এক দো তিন চ্যালেঞ্জ’ চ্যালেঞ্জ ছুঁড়েছেন।
সেই চ্যালেঞ্জ নিতে একটি টিকটক ভিডিওতে অংশ নেন মাধুরী। ‘তেজাব’ ছবিতে অলকা ইয়াগ্নিকের গাওয়া ও মাধুরীর লিপে ‘এক দো তিন’ গানটি সুপারহিট হয়েছিল। এই গানটি আজও বলিউডপ্রেমীদের হৃদয়ে সমানভাবে গেঁথে রয়েছে। সেই গানটির উপরেই টিকটকের নিয়ম মেনে ছোট মোবাইল ভিডিও তৈরি করতে হচ্ছে চ্যালেঞ্জ রাখতে।
স্বয়ং মাধুরী দীক্ষিত নিজে এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছেন এবং ভিডিও তৈরি করে পোস্ট করেছেন। বলিউডের ডান্সিং কুইন নিজে এই চ্যালেঞ্জের অংশ হওয়ায় টিকটকে এক দো তিন আরও একটু অন্যমাত্রা পেল বলা চলে।
মাধুরীকে বলিউডের সেরা অভিনেত্রীদের একজন হিসেবে গণ্য করা হয়। অভিনয় জীবনে তিনি ছয়টি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেছেন। অভিনয়ের পাশাপাশি তার সহজাত সৌন্দর্যচর্চা এবং নৃত্যকলায় রয়েছে তার ব্যাপক দক্ষতা।
১৯৮৪ সালে অবোধ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার অভিষেক ঘটে এবং ১৯৮৮ সালে মারপিটধর্মী প্রণয়মূলক চলচ্চিত্র তেজাব-এর মাধ্যমে প্রথম বাণিজ্যিক সফলতা লাভ করেন ও দর্শক মহলের সর্বত্র বিপুল সাড়া ফেলেন। ১৯৮০ এবং ১৯৯০-এর পুরো দশক জুড়ে তিনি হিন্দি সিনেমার নেতৃত্বদানকারী অভিনেত্রী ও শীর্ষস্থানীয় নৃত্যশিল্পী হিসেবে একচ্ছত্র প্রাধান্য ও প্রভাব বিস্তার করেন মাধুরী।
হিন্দি চলচ্চিত্রে অনবদ্য ভূমিকার জন্য তাকে ২০০৮ সালে ভারত সরকারের চতুর্থ সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft