শিরোনাম: ‘ভোট বানচালের জন্য বিএনপি পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে’       এটা কেমন লেভেল প্লেইং ফিল্ড : বিএনপি       তাবিথের প্রার্থিতা বাতিলের রিট খারিজ       ভারতের বিরুদ্ধে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে কঠোর সমালোচনামূলক প্রস্তাব       ধানের শীষে ভোট দিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান       হামলা করল আওয়ামী লীগ, মামলা হলো বিএনপির বিরুদ্ধে : রিজভী       যুক্তরাষ্ট্রের দম্ভ চূর্ণ-বিচূর্ণ করল ইরান       গোপীবাগে নির্বাচনী প্রচারণায় সংঘর্ষের ঘটনায় আটক ৫       রানওয়ে থেকে ছিটকে মহাসড়কে ইরানের যাত্রীবাহী বিমান       কলকাতায়ও করোনাভাইরাসের হানা, হাসপাতালে চীনা তরুণী      
অযোধ্যার দৃষ্টিসীমার মধ্যেও মিলবে না মসজিদের জমি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Tuesday, 12 November, 2019 at 7:00 PM
অযোধ্যার দৃষ্টিসীমার মধ্যেও মিলবে না মসজিদের জমি অযোধ্যায় বাবরি মসজিদের জায়গায় একটি হিন্দু মন্দির বানানোর পক্ষেই রায় দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের ৫ সদস্যের বেঞ্চ এক সর্বসম্মত রায়ে বলেছে, অযোধ্যার যে ২.৭৭ একর জমি নিয়ে বিতর্ক ছিল বহুকাল ধরে সেখানে রামমন্দিরই হবে। আর মুসলমানদের মসজিদের জন্য ৫ একর জমি দেওয়ার নির্দেশও দেয়া হয় রায়ে।
টাইমস অব ইন্ডিয়া এ খবরে বলা হয়েছে, মসজিদ নির্মাণের জন্য সুপ্রিমকোর্ট নির্দেশিত ৫ একর জমি অযোধ্যায় ঐতিহাসিক বাবরি মসজিদ জমির ধারে-কাছে নাও দেয়া হতে পারে। এর বদলে জমি দেয়া হতে পারে সর্যু নদীর অপর পাড়ের কোনো জায়গায়।
শহর কর্তৃপক্ষ বলছে, অযোধ্যা ঘনবসতিপূর্ণ একটি শহর। এখানে এত বিশাল আকারের একটা খালি জমি পাওয়া কঠিন। ফলে তাদেরকে যে জমি বরাদ্দ দেয়া হবে তা ওই বাবরি মসজিদের স্থান থেকে দৃষ্টিসীমার মধ্যে না-ও হতে পারে।
এদিকে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড জানিয়েছে, ওই জমি নেয়া বা না নেয়ার বিষয়ে আগামী ২৬ নভেম্বর সিদ্ধান্ত নেবেন তারা।
সর্যু নদীর দক্ষিণ পাড়ে অযোধ্যা জেলা অবস্থিত। নদীর অপর পাড়ে নিরিয়া ও নবাবগঞ্জ জেলা। আদালত রায়ে বলেছেন, অযোধ্যায় একটি অভিজাত বা ভালো এলাকায় মুসলিমদের জন্য জমি বরাদ্দ দিতে। তবে আদালত সুনির্দিষ্ট কোনো স্থানের নাম উল্লেখ করেননি।
বাবরি মসজিদের জায়গায় রাম মন্দির নির্মাণে সুপ্রিমকোর্টের রায়ে ভারতের মুসলমানদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রায় মেনে নেয়ার কথা বললেও এ নিয়ে নিজেদের অসন্তোষ জানিয়েছেন তারা। রায়ে এটি স্পষ্ট, বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় মুসলমানদের জন্য আইনি সহায়তা খুবই সীমিত।
স্বাভাবিকভাবেই সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ওই রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করবে না তারা।
সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের সভাপতি জাফর ফারুকী বলেছেন, ওই জমির বিষয়ে নানা ধরনের মতামত পাচ্ছেন তিনি। আগামী ২৬ নভেম্বর বোর্ডের সাধারণ সভার বৈঠক হবে।
এদিকে বাবরি মসজিদ মামলার রায়ের পর সামাজিক মাধ্যমে কড়া নজরদারি চালাচ্ছে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। রায়ের কয়েক দিন আগে থেকেই শুরু হয় ধরপাকড়। এখন পর্যন্ত কয়েক হাজার জনকে আটক করা হয়েছে।
এর মধ্যে রায়ের সমালোচনা করে পোস্ট দেয়ার অভিযোগে শতাধিক মানুষকে আটক করা হয়েছে। শনিবার রায় ঘোষণার পর থেকে মোট ১২টি এফআইআরে ৩৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এর আগে আরও অন্তত এক হাজার জনকে আটক করা হয়।





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft