শিরোনাম: কলাপাড়ায় আ’লীগের চম্পাপুর ত্রিবার্ষিক সম্মেলন পন্ড, দু’গ্রুপে রণক্ষেত্র       ফ্লাইট এসেছে কিন্তু পেঁয়াজ আসেনি        খুলনায় সকাল থেকে বাস চলাচলের কথা থাকলেও চলছে না       ঝালকাঠিতে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৫ তম জন্মবাষিকি পালিত       রামেক হাসপাতালের তৃতীয় তলা ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে রোগীর আত্মহত্যা       ইরানকে নিয়ে নতুন শঙ্কায় যুক্তরাষ্ট্র       গাছের গোড়ায় নয়, ডগাতেই ধরে মিশরে পেঁয়াজ       পেঁয়াজের ঝাঁজে বিএনপি লাফাচ্ছে : ইনু       তারেক রহমান সন্ত্রাসী দলের যোগ্য নেতা : হানিফ       সামাজিক সূচকে আমরা ভারতের চেয়েও এগিয়ে : গণপূর্তমন্ত্রী      
ঝালকাঠিতে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া, পানি বৃদ্ধি, আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে আগ্রহ কম
ঝালকাঠি প্রতিনিধি :
Published : Saturday, 9 November, 2019 at 2:49 PM
ঝালকাঠিতে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়া, পানি বৃদ্ধি, আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে আগ্রহ কমঘুর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে ঝালকাঠিতে থেমে থেমে ধমকা বাতাস ও বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। বিষখালিসহ অন্যান্য নদীর তীরে স্বাভাবিকের চেয়ে ২/৩ পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। অভ্যন্তরিন এবং দুর পাল্লার সকল রুটে নৌযান চলালচ বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক প্রস্তুতি নিলেও আশ্রয় কেন্দ্রে যেতে যাচ্ছে না নতী তীরের মানুষ। সুপার সাইক্লোন বুলবুল মোকাবেলায় উপকূলীয় জেলা ঝালকাঠিতে ৭৪ টি ঘুর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নদী তীরবর্তী জন সাধারনকে এসব আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ায় জন্য মাইকিং করা হচ্ছে। কিন্তু ঝুকিপূর্ণ এলাকার মানুষ তুলনামূলক খুবই কম আশ্রয় কেন্দ্রে যাচ্ছেন। জেলায় ৫ টি কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে। অতি ঝুকিপূর্ণ জেলার তালিকায় অন্তর্ভক্ত হওয়ার খবরে জেলার সাধারন মানুষের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে। বাতিল করা হয়েছে সকরারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের ছুটি। সম্ভাব্য পরিস্থিতি মোকাবেলায় ত্রান মন্ত্রনালয় থেকে ১০ লাখ টাকা ও ৩৫০ প্যাকেট শুকনা খাবার বরাদ্দ করা হয়েছে। বিভিন্ন হাসপাতাল স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিকে জরুরি সেবাদানের ব্যবস্থা গ্রহন, রেডক্রিসেন্ট ও এনজিওর ১ হাজার স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রাখা হয়েছে।  এদিকে শুক্রবার সারাদিন হালকা ও মাঝারি বৃষ্টি হলেও শনিবার দুপুর থেকে মাঝারি ও ভাড়ি বর্ষা শুরু হয়েছে বর্ষায় রোপা আমন ধান পড়ে গেছে, এতে ক্ষতির শঙ্কা করছে কৃষকরা।  আবহাওয়ার পরিবেশ অনেকটা সিডর পূর্ববর্তী সময়ের মত মনে হওয়ায় জনমনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বিপাকে পড়েছেন দিনমজুর, জেলে ও শ্রমিকরাসহ খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। কয়েকজন আশ্রয় নেয়া নদী তীরের মানুষ জানান, অনেকে পেটের তাগিদে জীবনের ঝুকি নিয়ে নদীতে এখনও মাছ ধরছে, অনেকে আবার পরিস্থিতি দেখে এবং দুপুরের পর আশ্রয় কেন্দ্রে আসবেন। ইউএনও সোহাগ হাওলাদার জানান, ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবেলায় সর্বাত্ম প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে, ইতোমধ্যে নদী তীরের ঝুকিপূর্ণ এলাকার অনেক লোক আশ্রয় নিয়েছে এবং বাকিদের আশ্রয়কেন্দ্রে নিরাপদে রাখার জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে। তবে দুপুরের পর সকলেই আশ্রয় নিবেন বলে তিনি মনে করেন।




« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft