শিরোনাম: বিএনপি পাকিস্তানের আদর্শ বাস্তবায়নে এখনও চক্রান্তে লিপ্ত : হানিফ       ঢাকা শহরকে হংকং-সিঙ্গাপুর বানানো হবে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী       পাকিস্তানের যে ৫ অস্ত্রে ভারতের ভয়       কাশ্মীরিদের পাশে মমতা       ভারতের ৫ রাজ্যে নিজস্ব পতাকা প্রদর্শন!       খালেদা জিয়ার জন্ম তারিখ ঠিক করার পরামর্শ তথ্যমন্ত্রীর       ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ হলে গোটা মধ্যপ্রাচ্যে আগুন জ্বলবে : হিজবুল্লাহ       আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা হলেন আতাউর রহমান       কাশ্মীর সঙ্কট নিয়ে ট্রাম্পকে যা বললেন ইমরান       চামড়া নিয়ে ব্যবসায়ীদের ‘দুরভিসন্ধি’ দেখছেন রাঙ্গা      
চামড়াবাজি ঠেকানোই গ্যালো না!
Published : Thursday, 15 August, 2019 at 6:19 AM
কুরবানীর চামড়ার টাকা দান করা ধম্মের বিধান। এই দানের টাকা এতিমখানা, মাদরাসা কিম্বা গরীবগুরো মানসির হাতে দিয়ার কতা। কিন্তুক ইবার দাম নিয়ে যে আন্দাজ করা হচ্চিলো, তার চাইতেও বেশী খারাপ গেচে চামড়ার দাম। জ্ঞাণীগুণী মানসিরা কচ্চেন ইবার কম দামে চামড়া কিনতি পারা আর কাচা চামড়া বিদেশে রপ্তানির অনুমতি পাওয়ায় ৫০০ কোটি টাকা দেড়ি লাভ হাতায় নেবে ব্যবসায়ী, আড়তদার আর ট্যানারি মালিকরা। তাগের এই ৫০০ কোটি টাকা দেড়ি লাভ মানে গরীবগুরো মানসির ঢপ দিয়ে ৫০০ কোটি টাকা ঠকায় দিয়া।
লাভের গুড় নিয়ে এর মদ্দি ঠেলাঠেলি শুরু হইয়ে গেচে। ট্যানারী মালিকরা কচ্চে, আড়তদাররা নিজিরেই সিন্ডিকেট কইরে চামড়ার দাম কুমায় দেচে এই লাভ খাবে আড়তদার আর ব্যবসায়ীরা। আর আড়তদাররা কচ্চে ট্যানারি মালিকরা গ্যালোবারের চামড়ার দাম শোধ না করায় এবার বেশির ভাগ আড়তদার বা ব্যবসায়ীরা চামড়া কিনাত্তে মুক ফিরোয় নেচেন। যে কারনে চামড়ার দাম পইড়ে গেছে। তেবে শেষ মাতায় যারা থাকে তারাই মচ্চি মুলামে লাভ খায়, তাগের শুদু লবন মাকামাকিই সার!
শুনতি পালাম ইবার ঈদির কুরবানীর চাহিদা ছিলো পিরায় ১ কোটি ১০ লক্কোর মতো। এর মদ্দি গরু কুরবানী হয়েচে ৪২ লক্কোর বেশী, বাদবাকী ছাগল আর মোষ কুরবানী করা হয়েচে। গরুর চামড়া তিনশত্তে পাচশোর বেশী কেউ দামায়ইনি। আর ছাগলের চামড়া শুনলি কতা কওয়ারই টাইম নেই ইরাম ভাব। মনের দুক্কি অনেকে চামড়া মাটিতি দাফন কইরে দেচে। অনেকে রাগ কইরে ফেলায় দিয়েচে।
আমি মুক্কু সুক্কু মানুস, চামড়া দেকার জন্যিও কোন মুন্ত্রী আচেন সিডা জানতাম না। পরে শুনলাম ইডা শিল্প মুন্ত্রণালয়ের মদ্দি পড়ে। পরে খোজ নিয়ে জানতি পাল্লাম শিল্পমুন্ত্রী মুন্সী চাচা কইয়েচেন, ব্যবসায়ীরা যে ইরাম কাজ করবে তা তিনি মালুমই কত্তি পারেন নি। ইরাম ছাবালপানা কতা শুইনে আকাটা মাইরে গিলাম, মনে যা আইলো তা যেদি লিকি, তালি হয়ত আমার পিটির চামড়াই থাকপেন না।
ইতি-
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »


সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft