বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা
জাহাঙ্গীর আলম, মণিরামপুর (যশোর)
Published : Tuesday, 7 July, 2020 at 12:20 AM
গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যামণিরামপুরে বিয়ের এক বছর পার হতে না হতেই স্বামীর বাড়িতেই লাশ হতে হলো আসমা খাতুন (১৯) নামে গৃহবধূকে। পিতাসহ অভিভাবকদের দাবি, আসমাকে স্বামী হাবিবুল্লাহ মারপিটের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে লাশ ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যার প্রচার চালায়। এরপর নিহতের স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়িসহ পরিবারের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে। আর এ ঘটনাটি ঘটেছে রোববার দুপুরের দিকে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে। খবর পেয়ে সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সহকারী পুলিশ সুপার (মণিরামপুর সার্কেল) সোয়েব আহমেদ খান এবং ওসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্যে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
নিহত গৃহবধূর চাচা এনজিও কর্মী আবদুল মান্নান ও মামা মাসুদুজ্জামান জানান, কেশবপুর উপজেলার আড়–য়া গ্রামের ঘের মালিক মুনসুর আলী সরদারের একমাত্র মেয়ে আসমা খাতুন গতবছর এইচএসসি পাস করেন। এরপর বিয়ে দেয়া হয় মণিরামপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুল মাজেদ ফকিরের ছেলে হাবিবুল্লাহ হাবিবের সাথে। বিয়ের দু’-তিনমাস তাদের দাম্পত্য জীবন বেশ সুখময় ছিল। এর কিছুদিন পর আসমা অ্যাপিন্ডিসাইটস রোগে আক্রান্ত হয়ে পিতার বাড়িতে দু’ মাস অবস্থান করে চিকিৎসা নেন। সুস্থ হওয়ার পর আসমাকে তার শ্বশুর মাজেদ ফকির এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ গোলাম বাড়িতে আনেন। তাদের অভিযোগ, আসমার স্বামী প্রায়ই নেশা করে বাড়িতে ফিরতেন। এ নিয়ে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতো। কারণে অকারণে শাশুড়িও আসমার সাথে দুর্ব্যবহার করতেন।
আসমার পিতা মুনসুর আলী সরদার জানান, রোববার বেলা ১২ টার দিকে আসমা মোবাইলফোনে তাকে জানায়, ‘আব্বু আমারে এরা মারতেছে, তুমি এসে আমারে নিয়ে যাও। নাহলে আমারে এরা জানে মেরে ফেলবে।’ হাবিবুল্লাহ তাকে বেধড়ক মারপিট করায় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ সময় আসমা পিতার কাছে বারবার আকুতি জানান হাবিবের হাত থেকে তাকে রক্ষার জন্যে। এরপর দুপুরের দিকে মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে দেখেন আসমার নিথর দেহ পড়ে আছে বারান্দায়। ওই বাড়ির লোকজন পালিয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলাম আজিজ জানান, স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার পর হাবিবুল্লাহ একটু মারপিট করার পর আসমা গলায় দঁড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন। এদিকে খবর পেয়ে বিকেল পাঁচটার দিকে সহকারী পুলিশ সুপার (মণিরামপুর সার্কেল) সোয়েব আহমেদ খান ও ওসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সন্ধ্যার দিকে এসআই আশরাফুল আলম লাশ উদ্ধার করে থানায় আনেন। ওসি (সার্বিক) রফিকুল ইসলাম জানান, সোমবার সকালে লাশ ময়নাতদন্তের জন্যে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।  




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft