মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
করোনা জয় করেও মুক্তি পাননি
ডাঃ নাহিদকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় নিয়ে সোহরাওয়ার্দীতে ভর্তি
ফয়সল ইসলাম :
Published : Friday, 5 June, 2020 at 10:40 PM
ডাঃ নাহিদকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় নিয়ে সোহরাওয়ার্দীতে ভর্তি টানা এক মাস করোনার সাথে লড়াই করে জয়ী হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার ২৪ ঘণ্টা পার না হতেই প্রাণ সংশয়ের মধ্যে পড়েছেন যশোরের চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার নাহিদ সিরাজ। তার জীবন রক্ষার্থে ভেন্টিলেশনের প্রয়োজন হওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় নেয়া হয়েছে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় শুক্রবার রাত ৮টার দিকে যশোর বিমানবন্দর থেকে ডাক্তার নাহিদ সিরাজকে বহনকারী বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার ঢাকার উদ্দেশ্যে উড়াল দিয়েছে। তাকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন।
করোনাভাইরাসে সংক্রমিত সন্দেহভাজন ও আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসার দায়িত্বে ছিলেন ডাক্তার নাহিদ সিরাজ। আগে থেকে অ্যাজমা রোগে আক্রান্ত হওয়া সত্বেও করোনা যুদ্ধের সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে ছিলেন তিনি। কিন্তু গত ৪ মে নিজেই সংক্রমিত হন। বাড়িতেই আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্দি জীবন-যাপন করাসহ প্রয়োজনীয় ওষুধ সেবন অব্যাহত রেখেছিলেন। সংক্রমিত হওয়ার ২৩ দিন পর ২৭ মে ঘরবন্দি করোনা যোদ্ধা ডাক্তার নাহিদের নমুনা নেয়া হয়। ৩০ মে তার নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট নেগেটিভ আসে। ওইদিন আবারও নমুনা নেয়া হয়। কিন্তু তিনি অ্যাজমাসহ অন্যান্য রোগের উপসর্গ থাকায় তার শারিরিক অবস্থার চরম অবনতি হয়। পহেলা জুন তাকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। ডক্টরস কেবিনে ভর্তি রেখে মেডিসিন বিভাগের ডাক্তাররা তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া শুরু করেন। এরই মধ্যে ৩ জুন তার নমুনা পরীক্ষার রেজাল্ট নেগেটিভ আসে।
৪ জুন তাকে করোনা জয়ী ঘোষণা করে স্বাস্থ্য বিভাগ। সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন ও হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাক্তার হারুন-অর-রশিদ তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানোসহ করোনা জয়ীর মেডিকেল সার্টিফিকেট হস্তান্তর করেন। কিন্তু অ্যাজমার সমস্যা নিয়ন্ত্রণে না থাকায় তাকে হাসপাতালেই ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। শুক্রবার সকাল থেকেই তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। মেডিসিন বিভাগের ডাক্তাররা যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছিলেন প্রয়োজনীয় চিকিৎসার মাধ্যমে তাকে স্বাভাবিক রাখার। কিন্তু কোনো কিছুতেই কাজ হয়নি। অবশেষে সিদ্ধান্ত হয় বিশেষজ্ঞদের নিয়ে মেডিকেল বোর্ড করার।
মেডিসিন বিভাগের প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক এবিএম সাইফুল আলমের নেতৃত্বে মেডিকেল বোর্ডের সদস্য সচিব ছিলেন ডাক্তার নাহিদ সিরাজের চিকিৎসার দায়িত্ব পালনকারী সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার গৌতম কুমার আচার্য্য। এছাড়াও ব²ব্যাধি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মোস্তাফিজুর রহমান ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার তৌহিদুল ইসলাম মেডিকেল বোর্ডের সদস্য ছিলেন। বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেন করোনা জয় করলেও ডাক্তার নাহিদ সিরাজের শারিরিক অবস্থা মোটেও স্বাভাবিক নয়। তার উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে দরকার ভেন্টিলেশনের। আইসিইউ সাপোর্টও লাগতে পারে। এসবের ব্যবস্থা যশোরে নেই। তাই কোনো কালক্ষেপণ না করে দ্রæত তাকে ঢাকায় নিয়ে যেতে হবে। মেডিকেল বোর্ডের এ সিদ্ধান্ত স্বাস্থ্য বিভাগসহ প্রশাসনকে অবহিত করা হয়।
মেডিসিন বিশেষজ্ঞ সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার গৌতম কুমার আচার্য্য গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, করোনা যুদ্ধে জয়ী ডাক্তার নাহিদ সিরাজ পোস্ট কোভিড হাইপো অক্সেমিয়ায় ভুগছেন। অর্থাৎ তার ফুসফুসে অক্সিজেনের সরবরাহ কমে গেছে। একজন মানুষের ফুসফুসে অক্সিজেন সরবরাহের টার্গেট লেভেল ৯৪ শতাংশ ওপরে থাকে। কিন্তু ডাক্তার নাহিদ সিরাজের ক্ষেত্রে সেটি ৮৯ শত্যাংশর ওপরে কোনোভাবেই উঠছে না। ক্রমেই তার অবস্থা খারাপে দিকে যাচ্ছে। ফলে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তাকে ঢাকায় প্রেরণ করার সিদ্ধান্ত নেন মেডিকেল বোর্ডে সদস্যরা।
সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীন জানান, বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের সমন্বয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত জানার সাথে সাথে জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে সরকারের ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে যোগাযোগ করা হয়। ডাক্তার নাহিদ সিরাজের উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করতে ও তাকে ঢাকায় নেয়ার জন্যে সরকারি নির্দেশনায় বিমান বাহিনী হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করে। হেলিকপ্টারটি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে যশোর বিমান বন্দরে অবতরণ করে। তার আগেই যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ডাক্তার নাহিদ সিরাজকে অক্সিজেন সাপোর্ট দিয়ে হেলিকপ্টারে তুলে দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া ছিল। রাত ৮টার দিকে তাকে নিয়ে হেলিকপ্টারটি ঢাকার উদ্দেশ্যে উড়াল দেয়। রাত পৌনে ৯টায় ঢাকার তেজগাঁও পুরাতন বিমান বন্দরে হেলিকপ্টারটি অবতরণ করে। সেখানে আগে থেকে প্রস্তুত থাকা অ্যাম্বুলেন্সযোগে ডাক্তার নাহিদ সিরাজকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
বিমানবন্দরে ডাক্তার নাহিদ সিরাজকে বিদায় জানানোর সময় সিভিল সার্জন ডাক্তার শেখ আবু শাহীনসহ উপস্থিত ছিলেন যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাক্তার হারুন-অর-রশিদ, চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার লুৎফুন্নাহার, জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি এনডিসি প্রীতম সাহা, বিএমএ যশোরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার মাহমুদুল হাসান পান্নু ও দপ্তর সম্পাদক ডাক্তার গোলাম মোর্তুজা।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft