বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
দাবিডা কিন্তুক অযোক্তিক না !
Published : Tuesday, 28 April, 2020 at 4:50 PM
শুনিচি চিন দেশের উহান পোদেশ নাই করোনা ভাইরাসের আতুড় ঘর।  গ্যালো বছরের ডিসেম্বর মাসে যখন চিনি করোনা মহামারি আকারে ছড়ায় পড়িল তকন হুবেই পোদেশসহ অন্য পোদেশেত্তে ডাক্তার আর নার্স হায়েরে গিলো উহান পোদেশের লোকের চিকিসসে সিবা দিয়ার জন্যি। যাওয়ার আগে তারা ইন্টারনেটে সিবা দিয়ার পোস্ততি হিসেবে নানা ভিডিও ছাড়িল। যার বেশীর ভাগই ছিলো মাতা ন্যাড়া করার।  টাক মাতার সে ভিডিও একনও নেটে ঘুইরে বেড়াচ্চে। সিবা দিয়াত্তে কবে তারা ফেরবে কিম্বা সিবা দিয়ার সুমায় চুলির যত্ন আত্তি কত্তি পারবে না বিলে তারা মাতা টাক কইরে গিলো। এর সাথে ভাইরাস কুমা বাড়ার কোন সম্পক্ক ছিলো না। কিন্তুক আমাগের দেশে এই করোনা ভাইরাস হানা দিয়ার শুরুত্তে গণহারে টাক করা হড়িক পইড়ে গেচে। কতায় কয় ঢাকের বাড়ির চাইতে চুপার বাড়ি আগে দৌড়োয়। বিষয়ডা সিরাম হইয়ে দাড়াচে। হ্যানো কোন জাগা নেই যেন দলে দলে টাক হচ্চে না। যারা হচ্চে তারা আবার আল্লাদে আটখান হইয়ে ফেসবুকি টাক মাতার ছবি ছাইড়তেচে ঘটা কইরে। এগের বেশীর ভাগরেই ধারণা টাক কল্লি করোনায় ধরবেনা। ঘটনাডা দুই এক জাগা কিম্বা দুই একজনের মদ্দি থাকলি কতা ছিলো না কিন্তু করোনা ভাইরাসের মতো টাক করার পোবনতা সব জাগায় ছড়ায় পড়াই ইডা নিয়ে দু কতা লিকার জন্যি সিরাম কইরেচে ধইরেচে আমার কয়ডা ভাইপো। পিশায় তিনি নর সুন্দর, মোড়েঘাটে তাগের সেলুনির দুকান আচে। লকডাউনি পুলিশির গুতোন খাওয়ার ভয়তে বাড়িতি ভুকসি মাইরে আচে। আশা ছিলো এই খাইন ছাড়ালি দুকান পাট খুইলে কইরে কম্মে খাবে। কিন্তুক যে হারে সব নিজি নিজি ন্যাড়া হচ্চে তাতে তাগের ব্যবসায় লাল বাতি জ¦ইলে যাওয়া নাই শংকা দেকা দেচে। কবে মাতায় চুল গজাবি আর তারা  সেলুনি আসপে সে চিন্তায় তাগের নো পিশার হাই হইয়ে যাচ্চে। তারা জুরালো দাবি জানিয়েচে টাক হতি হলি তাগের দিয়েই কত্তি হবে।  সেলুনি আসার দরকার নেই মুবাল কল্লি তারা বাড়ি বাড়ি যাইয়ে টাক করার হোম সার্ভিস দেবে, তা না হলি তাগের প্রনোদনা দিতি হবে। মানবিক কারনে বিষয়ডা নিয়ে ভাবার জন্যি তারা জুরালো দাবি কইরেচে।
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft