মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই, ২০২০
জাতীয়
সংকট মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্যের তাগিদ রিজভীর
ঢাকা অফিস :
Published : Friday, 10 April, 2020 at 3:22 PM
সংকট মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্যের তাগিদ রিজভীরসরকারের অবহেলার কারণেই স্বাস্থ্যখাতে চরম সঙ্কট বিরাজ করছে মন্তব্য করে এ সংকট মোকাবিলায় জাতীয় ঐক্য গড়ার ফের তাগিদ দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।
তিনি বলেছেন, ‘যখন থেকে করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব শুরু হয়েছে সরকার তখন থেকেই কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। তাই আজ মেডিকেল সেক্টরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের কোনও ব্যবস্থা নিতে পারছে না। সরকারের অবহেলার কারণেই স্বাস্থ্যখাতে চরম সঙ্কট বিরাজ করছে। এই সঙ্কটের মধ্যেও অনেক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মী নিবেদিতভাবে কাজ করছেন। তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। যার যার অবস্থানে থেকে সবাইকে সচেতনভাবে কাজ করতে হবে।’
শুক্রবার (১০ এপ্রিল) বেলা ১১টায় রাজধানীর হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের চিকিৎসকদের মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম (পিপিই) প্রদানকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন (জেডআরএফ) ও ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর উদ্যোগে হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত চিকিৎসক ও অন্যদের জন্য এসব পিপিই প্রদান করা হয়।
রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘সমস্ত দেশবাসী এখন বৈশ্বিক মহামারি করোনার ভয়ে ভীত এবং মারাত্মক সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে। পরীক্ষিতদের মধ্যে করোনা রোগী সনাক্তকরণের হার প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে। ঢাকাসহ সারা দেশের ২০ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের থাবা লক্ষ্য করা গেছে। এই সংকট মোকাবিলায় আমাদের জাতীয় ঐক্য দরকার।’
তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টায় (বৃহস্পতিবার) দেশের ১০টি জেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন কমপক্ষে ১৫ জন। এমন হিসাব প্রায় প্রতিদিনের। সত্যিকারার্থে জনস্বাস্থ্য নিয়ে এ সরকার কিছুই করেনি। সরকারের মন্ত্রীদের মুখে দেশে উন্নয়নের জোয়ারের খবরে এতদিন দেশ ভেসে গেছে! তাহলে স্বাস্থ্যে খাতের এত বেহাল দশা কেনো? হাসপাতালে নেই কোনো আধুনিক সরঞ্জামাদি। পরীক্ষা করতে নেই সামগ্রী, রোগ ডায়ালাইসিসের কোনো ব্যবস্থা নেই, তেমন কোনো আইসিউ নেই, ১৭ কোটি মানুষের জন্য ভেন্টিলেটর আছে মাত্র ১৭শ। হাসপাতালে চিকিৎসক নেই, নার্স নেই। হাসপাতালে ঘুরতে ঘুরতে চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেছে ঢাবি শিক্ষার্থীসহ অসংখ্য মানুষ। এমন পরিস্থিতিতে মানুষের বর্তমানে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে।’
তিনি বলেন, ‘আমাদের এই দরিদ্র দেশে এই মুহুর্তে দৈনিক আয়ের ওপর নির্ভরশীল কোটি কোটি মানুষ এখন কর্মহীন। চাল-ডাল যোগাড় করতে তারা যদি সামাজিক দূরত্বের দেয়াল ভেঙে বেরিয়ে আসেন সংক্রমণ প্রতিরোধ তখন অসম্ভব হয়ে পরবে। কারণ ক্ষুধার আক্রমণ করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর। তাই রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ওইসকল জনগোষ্ঠীর জন্য আপদকালীন সহযোগিতাই পারে করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধ করতে। এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যেই বিএনপি বেশকিছু প্রস্তাবনা জাতির সামনে পেশ করেছে।’
রুহুল কবির রিজভী অনুষ্ঠানের আয়োজকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপনাদের ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও দেশনায়ক তারেক রহমান প্রবাসে। কিন্তু ইতোমধ্যেই তিনি আপনাদেরকে এবং সর্বস্তরের দলীয় নেতাকর্মীদের এই মহামারি মোকাবিলায় ঝাঁপিয়ে পড়তে নির্দেশ দিয়েছেন। আজকে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন এবং ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) যৌথভাবে তার ডাকে সাড়া দিয়ে হটলাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা পরামর্শ দিতে শুরু করেছেন। আপনাদের নির্বাহী পরিচালক ডাঃ ফরহাদ হালিম ডোনার এই মুহুর্তে অসুস্থ। এ অবস্থায়ও বাকী সহকর্মীরা মিলে বর্তমানে চলমান কর্মসূচিকে আপনারা বর্ধিত আকারে বেগবান করে যাচ্ছেন। বিএনপি তথা মহামারী আক্রান্ত জাতির পক্ষ থেকে আপনাদেরকে কৃতজ্ঞতা জানাই এবং আপনাদের সফলতা কামনা করি।’
তিনি বলেন, ‘সকলকে এই মহামারি মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধভাবে সহযোগিতা করার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানাই। সর্বোপরি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তিতে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানিয়ে তার আশুরোগ মুক্তি কামনা করি।’
উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী বিতরণের পাশাপাশি করোনা সংক্রান্ত বিষয়ে কোনো পরামর্শ এবং প্রাথমিক জরুরি স্বাস্থ্যসেবার জন্য ২৪ ঘণ্টার মোবাইল হটলাইন চালু করেছে জেডআরএফ ও ড্যাব। রোগের ধরণ বুঝে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের সাথে ফোনে সংযুক্ত করার পাশাপাশি সমস্যা জেনে টেলিফোনেই রোগিকে প্রেসক্রিপশন দেয়া এবং মূল্য পরিশোধ সাপেক্ষে রোগীর চাহিদা অনুযায়ী ওষুধ রোগীর বাড়ি পৌঁছানোর জন্য একটি টিম বিনামূল্যে সেবাদানে নিয়োজিত আছেন। এছাড়াও দেশের প্রায় সব বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরতদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম বা পিপিই প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন ও ড্যাব।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft