শুক্রবার, ০৫ জুন, ২০২০
শিক্ষা বার্তা
আগেভাগে প্রস্তুতি গ্রহণের তাগিদ বিশেষজ্ঞদের
পড়ালেখা নিয়ে দুশ্চিন্তায় শিক্ষার্থী-অভিভাবকরা
স্বপ্না দেবনাথ :
Published : Tuesday, 7 April, 2020 at 7:40 PM
পড়ালেখা নিয়ে দুশ্চিন্তায় শিক্ষার্থী-অভিভাবকরাকরোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষার নির্দিষ্ট দিন নিয়ে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা। একইসাথে নির্দিষ্ট সময়ে সিলেবাস শেষ হওয়া নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়ছেন অষ্টম ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা। পরিস্থিতি বিবেচনায় এখনই জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষা নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অগ্রিম পদক্ষেপ নেয়া জরুরি বলে মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। এদিকে শিক্ষার্থীদের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে অন্যান্য শ্রেণির ক্লাস এবং পরীক্ষা গ্রহণ পদ্ধতি নিয়েও আগেভাগেই পরিকল্পনা প্রয়োজন বলে মনে করছেন অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।  
রাকিব হোসেন এবারের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। উপশহর কলেজের এ শিক্ষার্থী একটি পার্টটাইম চাকরি করে পড়াশুনার খরচ মেটানোর পাশাপাশি পরিবারেও আর্থিক সহযোগিতা করে। এইচএসসি পরীক্ষা উপলক্ষে চাকরি থেকে সে মার্চ মাসের শুরুতে ছুটি নিয়েছে। করোনার কারণে পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। কবে নাগাদ পরীক্ষার নতুন রুটিন আসবে তার ঠিক নেই। দুর্যোগের মধ্যে চাকরিতে যেতে পারছে না সে। একদিকে পরীক্ষার চিন্তা অন্যদিকে আর্থিক টানাপড়েন এসব কারণে পড়া হচ্ছে না তার।  
সিটি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী প্রাপ্তি বিশ্বাস জানায়, পড়ার টেবিলে গেলে পড়া হচ্ছে না নানা দুশ্চিন্তার কারণে।
জেসমিন রিনি, পরশ সাহানী, অথরা সাহা সকলেই পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী। তাদের এবং স্কুল কোচিং সব বন্ধ। আসছেন না বাসার প্রাইভেট টিচারও। মোবাইল গেম, টিভি দেখে দিন কাটাচ্ছে তারা। তবে, চিন্তা বাড়ছে তাদের অভিভাবকদের। অথরার বাবা শুভেন্দু সাহা বলেন, মেয়ে লেখাপড়ায় তেমন ভালো না। অনেক জোর করে পড়ার টেবিলে বসাতে হয় তাকে। কিন্তু এখন সবই বন্ধ। ঘরে বন্দি অবস্থায় বারবার পড়ার চাপও দেয়া যাচ্ছে না। চিন্তা স্কুল খুললে কি করবে। এর উপর বড় চিন্তা বছরের শেষে বোর্ড পরীক্ষা। তিনি আরও বলেন, গত কয়েক বছর ধরে শুনছি পিইসি পরীক্ষা আর থাকবে না। কিন্তু বন্ধও হচ্ছে না। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় পিইসি পরীক্ষা গ্রহণ নিয়ে আরেকবার ভাবতে সংশ্লিষ্টদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তিনি।
জবা সাহানী, বিপ্লব পাল, শ্যামল মুখার্জী, আনোয়ার হোসেনসহ আরও কয়েকজন  অভিভাবক জানান, নির্দিষ্ট সময়ে সন্তানদের সিলেবাস শেষ করা নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন তারাও। তারা বলেন, দেশে এখন অসংখ্য টিভি চ্যানেল। শুধুমাত্র সংসদ টিভিতে   শিক্ষার্থীদের ক্লাস প্রচার করছে। এ উদ্যোগ অন্য চ্যানেলগুলোও নিতে পারে। অন্য টিভি চ্যানেল যদি শ্রেণি ভিত্তিক শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান প্রচার করে তাহলে দেশের এই অবস্থায় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে।
এ বিষয়ে যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান প্রফেসর আমিরুল আলম খান বলেন, তারা দেশের শিশু থেকে তরুণদের শিক্ষা নিয়ে চিন্তিত। চলমান পরিস্থিতিতে কিছু জরুরি সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় এসেছে। একজন শিক্ষক হিসেবে তিনি মনে করেন এখনই প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী এবং জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট-জেএসসি পরীক্ষা বাদ দেয়া উচিত। এতে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবক সকলের মানসিক চাপ কমবে। সরকারসহ সংশ্লিষ্টরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত একেবারে শেষ মুহূর্তে নেয় এক্ষেত্রে প্রস্তুতি আগেভাগেই নিতে হবে।  



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft