শনিবার, ০৬ জুন, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
করোনা সংকটে নিম্ন আয়ের মানুষ
যশোরে প্রতিদিন দু’হাজার মানুষকে দেয়া হচ্ছে ১০ টাকার চাল
এম. আইউব :
Published : Sunday, 5 April, 2020 at 8:14 PM
যশোরে প্রতিদিন দু’হাজার মানুষকে দেয়া হচ্ছে ১০ টাকার চালকরোনাভাইরাসের কবলে পড়া অসহায় মানুষের খাদ্য সংকট রোধে যশোরে ১০ টাকা কেজিতে চাল বিক্রি করছে খাদ্য বিভাগ। প্রতিদিন দু’হাজার অস্বচ্ছল মানুষ এ সুবিধা পাচ্ছে। জেলায় পাঁচটি পয়েন্টে বিক্রি হচ্ছে এ চাল। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এ চাল বিক্রি হচ্ছে বলে দাবি করেছেন খাদ্য কর্মকর্তারা।
পৃথিবীজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। বাংলাদেশও এই দুর্যোগের বাইরে না। ইতোমধ্যে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৮৮ জন। হোমকোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে অর্ধ লক্ষাধিক মানুষকে।
এ অবস্থায় সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশের মানুষকে করোনাভাইরাস থেকে রক্ষা করতে নানা বিধি-নিষেধ জারি করা হয়েছে। একান্ত প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছাড়া অন্যান্য দোকানপাট, গণপরিবহন এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। দেশের মানুষকে প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরের বের হতে নিষেধ করা হচ্ছে। কারণ চলতি এপ্রিলের প্রথম দু’ সপ্তাহ ভয়াবহ হতে পারে বলে চিকিৎসকরা বার আশঙ্কা প্রকাশ করছেন। এ কারণে ঘরে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করতে প্রশাসনকে দিনরাত পরিশ্রম করতে হচ্ছে। বিশেষ করে সেনাবাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের একপ্রকার গলদঘর্ম হচ্ছে।
করোনার এই পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়েছে হাজার হাজার নি¤œ আয়ের মানুষ। তারা এখন দ্বিমুখি চিন্তায় পড়েছে। একেতো করোনার ভয়, অন্যদিকে খাওয়ার দুশ্চিন্তা। খেটেখাওয়া নি¤œ আয়ের মানুষের জন্যে খাদ্য বিভাগ ১০ টাকা কেজিতে চাল বিক্রি শুরু করেছে।
যশোর খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সপ্তাহে তিনদিন এ চাল বিক্রি করা হচ্ছে। জেলায় পাঁচটি পয়েন্টে পাঁচজন ওএমএস ডিলারের মাধ্যমে রোববার, মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার বিক্রি করার নির্দেশনা রয়েছে ১০ টাকা কেজির চাল। প্রত্যেক ডিলার প্রতিদিন দু’ মেট্রিকটন চাল বিক্রি করছেন। সেই হিসেবে সপ্তাহে ৩০ মেট্রিকটন চাল বিক্রি করা হচ্ছে গোটা জেলায়।
একজন মানুষ সপ্তাহে পাঁচ কেজি করে চাল নিতে পারবেন বলে জানিয়েছেন একজন খাদ্য কর্মকর্তা। পাঁচ কেজি হিসেবে প্রতিদিন প্রত্যেক ডিলার চারশ’ মানুষের মধ্যে এ চাল বিক্রি করছেন। পাঁচজন ডিলারের কাছ থেকে প্রতিদিন দু’ হাজার মানুষ ১০ টাকার এ চালের সুবিধা পাচ্ছেন। মাসে ২৪ হাজার মানুষ স্বল্পমূল্যের এ খাদ্য সহায়তা পাবেন। তবে, একই জায়গায় ভিড় কমানোর স্বার্থে খাদ্য বিভাগ ১০ টি পয়েন্টে এ চাল বিক্রি করছে। প্রত্যেকটি পয়েন্ট থেকে দুশ’ মানুষ চাল কিনতে পারছে।
একাধিক ডিলারের সাথে কথা বলে জানাগেছে, ১০ টাকা মূল্যের এ চাল নিতে প্রতিদিন ব্যাপক মানুষ ভিড় করছেন। অসহায় অবস্থার মধ্যে থাকা গরিব মানুষের সাথে নি¤œবিত্ত মানুষও লাইনে দাঁড়াচ্ছেন স্বল্পমূল্যের এ চাল নেয়ার জন্যে। এমনই একজন হাফিজুর রহমান। তিনি পেশায় ব্যবসায়ী। কসমেটিকসের দোকান রয়েছে তার। বেশ কয়েকদিন দোকান বন্ধ। সংসার চালানো নিয়ে চরম দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। তিনি রোববার লাইনে দাঁড়িয়ে ১০ টাকা কেজির চাল সংগ্রহ করেন।
১০ টাকা কেজি দরের চাল বিক্রি করছেন শহরতলীর ধর্মতলার ওএমএস ডিলার রোকন উদ্দিন ব্যাপারী। তিনি বলেন, যা বরাদ্দ তার চেয়ে অনেক বেশি মানুষ ভিড় করছে। এই চাল দিতে গিয়ে তার লোকজনদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে বিতরণ করতে হচ্ছে তাকে।
যশোরের ভারপ্রাপ্ত ডিসি ফুড লিয়াকত আলী জানান, ১০ টাকা কেজির চাল বিক্রি হচ্ছে খুবই সতর্কতার সাথে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিক্রি করা হচ্ছে এ চাল। চাল বিক্রিতে যাতে কোনোভাবেই ‘এদিক-ওদিক’ না হয় সেজন্যে খাদ্য বিভাগের লোকজন সার্বক্ষণিক মাঠে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রাথমিকভাবে ৩০ জুন পর্যন্ত এ চাল বিক্রি করা হবে বলে জানিয়েছে ডিসি ফুড।  



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft