শনিবার, ০৮ আগস্ট, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
ঘর পেয়ে উচ্ছ্বসিত শিউলী নুপূর ও অঞ্জলির পরিবার
স্বপ্না দেবনাথ :
Published : Friday, 24 January, 2020 at 6:40 AM
ঘর পেয়ে উচ্ছ্বসিত শিউলী নুপূর ও অঞ্জলির পরিবারঘাত প্রতিঘাতে ভরা জীবনে অবশেষে আপন নিবাসের স্বপ্ন পূরণ হতে চলেছে শিউলী, নুপূর ও অঞ্জলির পরিবারের। অভাব, অবহেলা, বঞ্চনার জীবনে অনেক কষ্টে নিজেদের নামে একটু জমি কিনেছেন। অর্থাভাবে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মাথাগোঁজার ঠাঁই তৈরি করা অনেকটা স্বপ্নের মতো ছিল তাদের কাছে। আঁধার ঘরে আলোকবাতি হয়ে সেই স্বপ্নের বাস্তবায়ন করতে এগিয়ে এসেছে যশোর জেলা প্রশাসন। আর জেলা প্রশাসনের এ উদ্যোগকে পূর্ণরূপ দান করতে সহযোগী হিসেবে কাজ করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ধারা ও বঞ্চিতা।
বৃহস্পতিবার সকালে শুরু হয়েছে তাদের স্বপ্নের ঘরের ভীত নির্মাণ। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরহীন এ পরিবার তিনটির আপন নিবাসের ভীত নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসান, ধারার নির্বাহী পরিচালক লিপিকা দাশ গুপ্তা, অ্যাডাবের সহসভাপতি শাহজাহান নান্নু, বঞ্চিতার সাধারণ সম্পাদক সুজন শেখসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসকের বিশেষ আগ্রহের ফলে সদর উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের বাউলিয়া গ্রাম এখন স্থায়ী ঠিকানা হবে তাদের।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ বলেন, গৃহহীন বা ঠিকানাহীনদের একটি ঠিকানা গড়ে দেয়ার জন্য বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বাউলিয়ায় কয়েকটি পরিবারের জন্য প্রশাসন ও উন্নয়ন সংস্থার এই পদক্ষেপ নিসন্দেহে একটি ভালো উদ্যোগ। অন্যান্য এলাকায়ও এমন উদ্যোগ ছড়িয়ে দিতে পারলে তা ছিন্নমূল, পিছিয়ে পড়া ও হতদরিদ্রদের জন্য অনন্য নজির হয়ে থাকবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যশোরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।
অ্যাডাবের সহসভাপতি শাহজাহান নান্নু জানান, অবহেলিত ও বঞ্চিত এবং পিছিয়েপড়া জনগোষ্ঠী নিয়ে তারা অনেকদিন কাজ করছেন। সম্প্রতি এ বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে একটি প্রজেক্ট প্রোপোজাল জমা দেয়া হয়। জেলা প্রশাসক এটিতে আগ্রহ দেখিয়ে ধারা কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনার মাধ্যমে শিউলী, নুপূর ও অঞ্জলির পরিবারকে ঘর করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। পিছিয়েপড়া এ পরিবারের সদস্যদের আগামীতে স্বচ্ছল এবং সুন্দরভাবে জীবিকা নির্বাহের জন্যে ব্লক বাটিক এবং নকশি কাঁথার ওপর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে ধারার নির্বাহী পরিচালক লিপিকা দাশগুপ্তা জানান, ২০০৯ সাল থেকে ধারা জেলার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মধ্যে গৃহায়ন সমস্যা সমাধানে কাজ করছে। এটি অনেকটা তার অংশ। তবে, জেলা প্রশাসনের সাথে কাজ করতে পেরে তার প্রতিষ্ঠান অনেক খুশি। জেলা প্রশাসক আগামীতে এ ধরনের উদ্যোগ নিলে ধারা তার সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে বলে জানান তিনি।
ধারার ম্যানেজার নুরুন্নাহার হিরা বলেন, প্রতিটি পরিবারের জন্যে দু’ রুম বিশিষ্ট একটি ঘর হবে। সাথে মানসম্মত বাথরুম এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা থাকবে। প্রতিটি ঘরের জন্যে দু’ লাখ ১০ হাজার টাকা বাজেট আছে। এরমধ্যে এক লাখ ৩০ হাজার টাকা ধারা এবং বাকি ৮০ হাজার টাকা দেবে জেলা প্রশাসন।
আগামী আগস্ট মাসের মধ্যে ঘরের কাজ সম্পন্ন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এ বিষয়ে ঘর পাওয়া তিন পরিবার উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে জানান, নিজের ঘর তো সকলেই চায়। তবে, ঘরের এ জমি ছাড়া আর কোনো জমি তাদের নেই। যেহেতু চলাচলে অন্যদের জমি ব্যবহার করতে হবে এ বিষয়টি সকলকে একটু মানবিক দৃষ্টিতে দেখতে অনুরোধ করেন তারা।    




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft