বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
জাতীয়
জাবিতে খাদ্যমন্ত্রী
‘একটা গাছ কাটলে ৩০২ ধারায় মামলা হওয়া উচিত’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 18 January, 2020 at 9:03 PM
‘একটা গাছ কাটলে ৩০২ ধারায় মামলা হওয়া উচিত’একটা গাছ কাটলে ৩০২ ধারায় মামলা হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার।
শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) জহির রায়হান মিলনায়তন সেমিনার কক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ ও বাংলাদেশ বোটানিক্যাল সোসাইটি কর্তৃক আয়োজিত বার্ষিক উদ্ভিদবিজ্ঞান সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।
মন্ত্রী বলেন, ‘একটা গাছ কাটা এবং একজন মানুষকে খুন করা একই কথা। একজন মানুষকে খুন করলে ৩০২ ধারায় মামলা হলে, একটা গাছ কাটলেও ৩০২ ধারায় মামলা হওয়া উচিত। যারা গাছ কেটে দেশের পরিবেশের ক্ষতি করছে তাদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত।’
খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এক সময় বাংলাদেশে ৭ কোটি মানুষ ছিল। তারপরেও সে সময় অনেকে ভাত না পেয়ে ভাতের মাড় খেয়ে দিন পার করেছে। তখন বিদেশ থেকে আমাদের চাল আমদানি করতে হয়েছে। কিন্তু এখন আমরা বিদেশ থেকে চাল আমদানি না করেও ১৭ কোটি মানুষের পূর্ণ খাদ্যের সহায়তা দিতে পারছি। মানুষ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জমি কমেছে তারপরেও দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। এখন সরকার মানুষের কাছে ভেজাল মুক্ত পুষ্টিমান ও নিরাপদ খাবার সরবরাহের জন্য কাজ করছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘একজন কৃষক চাষাবাদ করে চাহিদা অনুযায়ী ফল না পেলে পরবর্তীতে তাদের আগ্রহ কমে যায়। কিন্তু এখন বাংলাদেশ সরকারের সহযোগিতা ও উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের গবেষণার ফলে কৃষকরা সকল রকম ফসল চাষাবাদে আগ্রহী হচ্ছে। উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের কারণেই দেশের কৃষকদের এত সফলতা। উদ্ভিদ বিজ্ঞানীরা গবেষণা করে একটা জিনিস সৃষ্টি করে যে আনন্দটা পায়, রাজনীতি করে সেই আনন্দটা আমরা পাই না।’
বাবু সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় চেষ্টা করেন সৎ থেকে দেশের প্রতিটা জায়গার উন্নয়ন ও দুর্নীতিমুক্ত করার। দেশের উন্নয়নের জন্যে তিনি একাই যে পরিমাণ চিন্তা করেন, তা আমাদের মতো হাজার হাজার মানুষের পক্ষেও সম্ভব না। সত্যি করে এভাবে সবাই যদি এ দেশটাকে ভালোবাসত তাহলে এ দেশ আরও উন্নতি লাভ করত।’
সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বলেন, ‘প্রকৃতির গুরুত্বপূর্ণ অবদান হলো উদ্ভিদ। গত ৬ বছরে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে মাধ্যমে ৫ হাজারের মতো গাছ লাগিয়েছি। কিন্তু শুধু গাছ লাগালেই হবে না সেটাকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য তার যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। এছাড়া আমাদের পরিকল্পিতভাবে গাছ লাগানো উচিত যাতে ভবিষ্যতে সেই গাছগুলো কেটে না ফেলতে হয়। এ বিষয়ে আমাদের অধিক সচেতন হতে হবে।’
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন—বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক জেড এন তাহমিদা বেগম, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মো. আমির হোসেন, উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক নুরুল আলম, বাংলাদেশ বোটানিক্যাল সোসাইটির (বিবিএস) সভাপতি অধ্যাপক এম আবদুল গফুর, বার্ষিক উদ্ভিদবিজ্ঞান সম্মেলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক ফিরোজা হোসেন ও সদস্য সচিব অধ্যাপক এম মাহফুজুর রহমান এবং উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মো. নুহু আলম প্রমুখ।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft