বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
বাকড়ীতে অমল সেনের স্মরণসভায় মেনন
দাম না পেলে কৃষক এমন ধর্মঘট করবে যা অতীতে কেউ দেখেনি
চন্দন দাস, বাকড়ী থেকে ফিরে :
Published : Saturday, 18 January, 2020 at 6:45 AM
দাম না পেলে কৃষক এমন ধর্মঘট করবে যা অতীতে কেউ দেখেনিবাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি, সাবেক মন্ত্রী, সংসদ সদস্য রাশেদ খান মেনন বলেছেন, গত ১৫ বছরের উন্নয়নে দেশ অনেক দূর এগিয়েছে। তবে সে উন্নয়নে সাধারণ মানুষ যুক্ত হতে পেরেছেন কি না তা পর্যবেক্ষণ করার প্রয়োজন হয়ে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে দেশে এক লাখ ৪০ হাজার কোটিপতির জন্ম হয়েছে। মানুষের মাথাপিছু আয় বাড়লেও অনেক এলাকা আছে যেখানে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ।
তিনি বলেন, কৃষক তার ফসলের ন্যায্য দাম পাচ্ছে না। কৃষক মহাকষ্টে ধান উৎপাদন করলেও লটারির নামে সে ধান কিনে সরকারের কাছে বিক্রি করছে মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা। তিনি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বলেন, ‘কৃষক আন্দোলনের পুরোধাপুরুষ অমল সেনের স্মৃতিবিজড়িত বাকড়ীতে দাঁড়িয়ে সরকারকে বলতে চাই, এদেশের কৃষক কোনোদিন ধর্মঘট করেনি। কিন্তু, আগামীতে যদি কৃষক ধান, পাট, আঁখ, সবজিসহ ফসলের ন্যায্য দাম না পায় তাহলে কৃষক এমন ধর্মঘট করবে যা এদেশের মানুষ অতীতে দেখেনি।’
উপমহাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের অন্যতম পুরোধা, ঐতিহাসিক তেভাগা আন্দোলনের নেতা, ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক সভাপতি কমরেড অমল সেনের ১৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় রাশেদ খান মেনন ওপরোক্ত কথা বলেন। যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার বাকড়ী স্কুলমাঠে স্মরণসভায় সভাপতিত্ব করেন দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও নড়াইল জেলা কমিটির সভাপতি এবং অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম।  
রাশেদ খান মেনন বলেন, অমল সেন কমিউনিস্ট ঐক্যের মন্ত্র শিখিয়েছেন। কিন্তু, আমাদের কিছু লোক সেই মন্ত্র ভুলে বিভ্রান্তি আর অনৈক্যের মাধ্যমে এদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে তৎপর হয়েছেন। কিন্তু তাদের সেই আকাঙ্খা কোনোদিন পূরণ হবে না। ওয়ার্কার্স পার্টির নেতাকর্মীরা সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে জনগণতান্ত্রিক বিপ্লবের দিকে এগিয়ে যাবে।
সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক, সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। অন্যানের মধ্যে বক্তৃতা করেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মল্লিক, ড. সুশান্ত দাস, নূর আহমেদ বকুল, অ্যাডভোকেট মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, বরিশাল জেলা সভাপতি নজরুল ইসলাম, জ্যোতি শংকর, যশোর জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট আবু বক্কর সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক সবদুল হোসেন খান, কৃষক নেতা মাহমুদ হাসান মানিক, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা কামরুল আহসান, কবির লাকরা, জাকির হোসেন রাজু, নড়াইল সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান স্বপ্না সেন, যশোর জেলা যুবমৈত্রীর সভাপতি অনুপ কুমার পিন্টু, যশোর জেলা ছাত্রমৈত্রী সভাপতি শ্যামল শর্মা এবং জাসদের নড়াইল জেলা সভাপতি আব্দুস সালাম খান।
এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টায় সভাপতি ইকবাল কবির জাহিদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক বিপুল অধিকারীর নেতৃত্বে অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটির পক্ষে স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীর নেতৃবৃন্দও। এর পরপরই পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষে রাশেদ খান মেনন এমপি ও ফজলে হোসেন বাদশা, দলের যশোর, বাঘারপাড়া, নড়াইল, গোপালগঞ্জ, সাতক্ষীরা, রাজশাহী, বরিশাল, মাগুরা, রাজবাড়ী, চুয়াডাঙ্গা জেলা কমিটি, যুবমৈত্রী, ছাত্রীমৈত্রী, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন নেতৃবৃন্দ।
এদিকে, অমল সেনের সমাধীসৌধে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ করা নিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ও মার্কসবাদীদের মধ্যে তীব্র বাকবিতন্ডা হয়। ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতা মার্কসবাদীর সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদের সাথে এই বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। এনিয়ে সামান্য উত্তেজনার সৃষ্টি হলেও আর কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার সৃষ্টি হয়নি।
পরে বিভিন্ন জেলা থেকে ওয়ার্কার্স পার্টির নেতাকর্মীরা কাস্তে-হাতুড়িখচিত লাল পতাকা নিয়ে মিছিলসহকারে স্মরণানুষ্ঠানে যোগ দেয়। জাতীয় ও কমিউনিস্ট আন্তর্জাতিক পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় স্মরণানুষ্ঠান। এর আগে অনুষ্ঠান মঞ্চে গণসংগীত পরিবেশন করা হয়।
অমল সেনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এবারও বাকড়ীতে শুরু হয়েছে অমল মেলা। কয়েকশ দোকানি তাদের পণ্য সাজিয়ে বসে আছে। বাকড়ী স্কুলের পূর্ব পাশের মাঠে অনুষ্ঠিত মেলায় বিপুল দর্শক সমাগম ঘটেছে। অমল সেন স্মৃতি রক্ষা কমিটি এই মেলার আয়োজন করেছে। এ উপলক্ষে বাকড়ী বাজারকে সাজানো হয়েছে কাস্তে-হাতুড়িখচিত লাল পতাকায়।
সম্প্রতি ওয়ার্কার্স পার্টি ভেঙে যাওয়ায় এবারের অনুষ্ঠান দ্বিখন্ডিতভাবে হচ্ছে। ওয়ার্কার্স পার্টি শুক্রবার স্মরণানুষ্ঠানের আয়োজন করলেও ওয়ার্কার্স পার্টি মার্কসবাদীরা অনুষ্ঠান করবে আজ শনিবার।  



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft