রবিবার, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০
জাতীয়
কার কাছে মানবাধিকারের দাবি করব : মইনুল
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 10 December, 2019 at 7:51 PM
কার কাছে মানবাধিকারের দাবি করব : মইনুলআন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেছেন, ‘আজ মানবাধিকারের দাবি করব কার কাছে?’
সব নিয়মতান্ত্রিক প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে দাবি করে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আমরা বিদ্যা-বুদ্ধির পথ চলতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছি। এখন ভরসা নতুন প্রজন্মের সহসের ওপর। কারণ তারা আজ জেগে উঠেছে, পরিবর্তন চাচ্ছে।’
মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ পরিষদ আয়োজিত ‘বিশ্ব মানবাধিকার পরিস্থিতি ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মইনুল বলেন, ‘কিসের জন্য স্বাধীনতা যুদ্ধ করেছি? কী আমাদের অর্জন? আজ আমাদের ভোটাধিকার নেই, বিচার ব্যবস্থা নেই, মানবাধিকার নেই। সব হারিয়ে ফেলেছি। জনগণের ওপর চলছে নির্যাতন। মৌলিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে। জনগণ যে সকল ক্ষমতার উৎস, তা সরকার ভুলে গেছে। কারণ এই সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি।’
ব্যারিস্টার মইনুল বলেন, ‘বর্তমান সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়নি। তাই সরকার যতই দাম্ভিকতা দেখাক না কেন, আন্তর্জাতিকভাবে কোনো মর্যাদা পাচ্ছে না।’
‘সময় এসেছে পরিবর্তনের। দেশের নতুন প্রজন্ম পরিবর্তন চায়। আজ স্বাধীনতার ৪৮ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের কথা বলা হচ্ছে। অথচ দেশ ও জাতির মুক্তির কথা বলা হচ্ছে না।’
কোনো মামলায় আসামির জামিন পাওয়াকে মৌলিক অধিকার আখ্যা দিয়ে এই আইনজীবী বলেন, ‘কোনো মামলায় জামিন পাওয়া ব্যক্তির মৌলিক অধিকার হিসেবে গণ্য হবে। জামিন দেওয়ার বিষয়টি কোর্টের  নিজস্ব বিষয়। কিন্তু বাস্তবে কাউকে গ্রেপ্তার করলেই তার জামিন অনিশ্চিত, বন্দিজীবন নিশ্চিত। তাকে পুলিশ রিমান্ডে সম্পূর্ণ অসহায় অবস্থায় জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে। নির্যাতন চালাতেও কোনো অসুবিধা নেই। নির্যাতনে ফলে কারো জীবন গেলে সেটা তার দুর্ভাগ্য। এ বিষয়ে কাউকে দায়িত্ব নিতে হয় না। অথচ কোনো ব্যক্তিকে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদ করতে হলে সেখানে আসামিপক্ষের আইনজীবীর উপস্থিতিও আসামির অধিকার। এ বিষয় সুপ্রিম কোর্টের যে নির্দেশ, সেটিও উপক্ষা করা হচ্ছে।’
মইনুল বলেন, ‘বর্তমান যুগে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে মানবাধিকার হরণকারী সরকারের গর্ব করার কিছু থাকে না। নিশ্চয়ই আমাদের সরকার তা পদে পদে অনুভব করছে।’
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মানবাধিকার পর্যবেক্ষণ পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল হুদা মিলু চৌধুরী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft