মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
বিএনপিতে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে আ.লীগে তা নেই : মওদুদ
ঢাকা অফিস :
Published : Tuesday, 12 November, 2019 at 8:22 PM
বিএনপিতে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে আ.লীগে তা নেই : মওদুদবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপিতে যত মুক্তিযোদ্ধা আছে আওয়ামী লীগে এত মুক্তিযোদ্ধা নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ।
তিনি বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ নিজেরাই বলছেন তাদের দল এখন অনুপ্রবেশকারী দিয়ে ভরে গেছে। অর্থাৎ তারা মুক্তিযোদ্ধা না অনুপ্রবেশকারী। তাহলে এখন কি ধরে নিতে হবে আওয়ামী লীগ এখন মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রতিনিধিত্ব করে না বরং যে স্বাধীনতা জন্য আমরা সংগ্রাম করেছি যুদ্ধ করেছি সেই স্বাধীনতাকে সম্পূর্ণরূপে ভুলন্ঠিত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।’
মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে বেগম জিয়ার মুক্তি ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধিনে নির্বাচনের দাবিতে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মওদুদ বলেন, ‘আমরা এখন মাঠে নেই। আমাদেরকে কোথাও সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হয় না। তারপরও সরকারের মধ্যে আমরা এক রকম অস্বস্তি দেখতে পাচ্ছি। এর কারণটা কী? এর কারণ হলো তাদের দুঃশাসন, অপশাসন, দুর্নীতি, অত্যাচার, নির্যাতন, নিপীড়ন এমন একটি পর্যায়ে চলে গেছে যে আজকের তাদের এই অপকর্মের ভারেই তাদের পতন ঘটবে।’
তিনি বলেন, ‘আজকে তারা স্বাধীনতার চেতনার নতুন সংজ্ঞা দিয়েছেন। সেই সংজ্ঞা হলো— স্বাধীনতার চেতনা মানেই হলো একদলীয় শাসন, ভোট চুরি করে জোর করে রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকা, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা থাকতে পারবে না, আইনের শাসন থাকতে পারবে না এবং আমাদের গণমাধ্যমের স্বাধীনতা থাকতে পারবে না।’
তিনি বলেন, ‘আমরা ২৪ বছর আন্দোলন-সংগ্রাম ও যুদ্ধ করে দেশকে স্বাধীন করেছে। এখন মাঝেমধ্যে ভাবতে হয় আমরা কেন এই মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলাম।’
১১টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে উল্লেখ করে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, ‘এসব ভিসিদের তো শিক্ষার্থীদের সম্মান করার কথা ছিল। তাদের তো আদর্শপুরুষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তারা সম্মান রক্ষা করতে পারেন নাই, তাই শিক্ষার্থীরা তাদের সম্মান করেননি। ভিসিরা দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়েছে আর আমাদের সরকারপ্রধান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলছে যে তারা দুর্নীতির প্রমাণ করতে না পারলে তাদেরকে উপযুক্ত শাস্তি দেবেন। যার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তিনি যদি স্বপদে বহাল থাকেন তবে তার বিরুদ্ধে নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করা কোনভাবে সম্ভব নয়।’
উন্নয়ন প্রকল্প বন্ধ করে দেয়া হবে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে মওদুদ বলেন, ‘এই উন্নয়ন প্রকল্প এর অর্থ কি কোন ব্যক্তিগত অর্থ? এই প্রকল্পতো বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য, হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীদের মঙ্গলের জন্য। এই প্রকল্পের অর্থ বন্ধ করে দেয়ার এই যে একটা মানসিকতা তিনি প্রকাশ করেছেন এতেই প্রমাণ সরকারের মধ্যে ভীতি কাজ করছে।’
নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মওদুদ বলেন,‘ এটা মনে রাখবেন যে বেগম জিয়াকে আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্ত করা সম্ভব নয়। কারণ সরকারের রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে তার জামিনে মুক্ত হওয়া খুব কঠিন হয়ে যাবে। বেগম জিয়ার মুক্তির একমাত্র পথ আন্দোলন আর এর মাধ্যমেই বেগম জিয়া মুক্ত হবেন।’
আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফজলুর রহমান, বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান, বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামিমুর রহমান শামিম প্রমুখ।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft