বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যমেক হাসপাতাল
অভিযানের ভয়ে মোটরসাইকেল চালকদের কৌশল পরিবর্তন
আশিকুর রহমান শিমুল :
Published : Sunday, 3 November, 2019 at 6:06 AM

অভিযানের ভয়ে মোটরসাইকেল চালকদের কৌশল পরিবর্তন যততত্র রাস্তায় গাড়ি পার্কিং আইনের জরিমানার হাত থেকে বাঁচতে কৌশল অবলম্বন করছেন যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আগত জনসাধারণ ও ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা। প্রশাসন, পৌরসভা ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের হাত থেকে রক্ষা পেতে রাস্তার ওপর মোটরসাইকেল না রাখলেও তারা বেছে নিয়েছেন জরুরি বিভাগের সামনে ও প্রধান তিনটি গেট।
বিকেল হলেই বিভিন্ন ক্লিনিকে ডাক্তার ভিজিট করার জন্যে হাসপাতালের প্রাচীরের পাশে রাস্তার উপর মোটরসাইকেল রেখে উধাও হয়ে যায় কোম্পানির প্রতিনিধিরা। তবে বর্তমান প্রশাসন অভিযান পরিচালনা করায় তারা গেট তিনটি বেছে নিয়েছেন। এক ও তিন নম্বার গেটের সামনে মোবরসাইকলে রেখে গেট বন্ধ রাখায় হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে করোনারি কেয়ার ইউনিট ও মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডের রোগীদের।
হাসপাতালে ভর্তি খলিলুর রহমান নামে এক রোগীর স্বজন জানিয়েছেন, তার পিতা ছবদেল আলী (৬০) হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে তিন দিন ভর্তি রয়েছেন। প্রায়ই চিকিৎসক রোগীরে ওষুধ ও টেস্ট লিখে দিচ্ছেন। গত দু’দিন ধরে হাসপাতালের এক নম্বর গেটটি মোটরসাইকেলে বন্ধ রয়েছে। তাই বাধ্য হয়ে দু’নম্বর গেট ব্যবহার করতে হচ্ছে। তার ওপর হাসপাতালের গেটের সামনে যে ভাবে ইজিবাইক, রিকশা ও মোটরসাইকেল দাঁড়িয়ে থাকে তাতে গাড়ি নিয়ে ঢোকা যায় না। সকাল থেকে সন্ধ্যা সব সময়ই হাসপাতালের সামনে যানজটে নাকাল হতে হচ্ছে। রোগীদের হয়রানির কথা তো বাদই দিলাম। তার উপর গাড়ির প্রচ- হর্নের বিকট আওয়াজ।
হাসপাতালে ভর্তি জেনিয়া বেগম নামে একজনের স্বজন জানিয়েছেন, তার মেয়ে মুনিয়া সুলতানা (২১) পারিবারিক মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। ওয়াডের্র রোগীরা তিন নম্বর গেট ব্যবহার করেন। কিন্তু বর্তমান মোটরসাইকেল ও অ্যাম্বুলেন্সের কারণে গেটটি বন্ধ হয়ে গেছে। রোগীর ওষুধ কিনতে এক নম্বর গেট ব্যবহার করতে হচ্ছে। অশঙ্কাজনক রোগীর বিভিন্ন টেস্ট করাতে ও ওষুধ  কিনতে রোগীর স্বজনদের  দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ গেট তিনটি দিয়ে চলাচলের ব্যবস্থা করলে সকল রোগী ও স্বজনরা উপকৃত হবে। ভুক্তভোগীদের সাফ জবাব প্রশাসনের উচিত রোগীদের স্বার্থে হাসপাতাল গেট ও রাস্তা যানজটমুক্ত করা।
হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাক্তার আবুল কালম আজাদ লিটু জানিয়েছেন, হাসপাতালের গেটে কারো
কোনো যানবহন রাখতে দেয়া হবেনা। কেউ হাসপাতালের গেট বন্ধ করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft