মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই, ২০২০
সারাদেশ
গোয়ালঘরের সেই বৃদ্ধ দম্পত্তি প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে ঘর ও জমি পেলেন
জাবির হোসেন, রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) থেকে :
Published : Saturday, 26 October, 2019 at 6:56 PM
গোয়ালঘরের সেই  বৃদ্ধ দম্পত্তি প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে ঘর ও জমি পেলেন গোয়াল ঘরে অবস্থান নেয়া সেই বৃদ্ধ দম্পত্তি অবশেষে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে ঘর ও জমি বরাদ্ধ পেলেন।  ছেলের প্রতারণায় সর্বহারা হয়ে শুকুর দেওয়ান ও সহুরা বেগম নামের এই বৃদ্ধ দম্পত্তি আশ্রয় নিয়েছিল বাড়ির পাশের একটি গোয়ালঘরে। সেখানে দীর্ঘ এক মাস ধরে মানবেতর জীবন-যাপন করে আসছিলেন তারা। বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে প্রকাশিত ওই সংবাদটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নজরে এলে তিনি স্থানীয় সংসদ সদস্যকে ব্যাবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন। পরে পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দূর্যোগ সহনীয় একটি ঘর ও এক একর জমি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান সংসদ সদস্য। এছাড়াও প্রতিবেদক জাবির হোসেনের সাথে পরামর্শের মাধ্যমে তাৎখনিকভাবে বৃদ্ধ ওই দম্পত্তিকে উদ্ধার করে একটি বাড়িতে থাকার ব্যবস্থা করেন সাংসদ।
এদিকে সংবাদটি জেলা প্রশাসক মতিউল আলম চৌধুরীর নজরে এলে তিনি রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে ইউএনও মো.মাশফাকুর রহমান নগদ ১০ হাজার টাকা দেন ওই দম্পত্তিদের। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দেয়া ও সংসদ সদস্যের নির্দেশনার সেই ঘরটি নির্মাণের কাজ বাস্তবায়ন করছেন ইউএনও।
প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে দেয়া দূর্যোগ সহোনীয় ঘরটি নির্মাণের কার্যক্রম ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে।  ঘরটির নির্মাণ কাজ শেষ করতে প্রায় একমাস সময় লাগতে পারে। এ কারণে আপাতত একটি বাড়িতে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘরটি উদ্ভোধনের আগ পর্যন্ত সেখাই থাকবেন এই দম্পত্তি। তাদের খাবারের জন্যও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষথেকে পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এছাড়াও বয়স্কভাতাসহ স্থাণীয় পর্যায়ে দেয়া সরকারের সকল সহযোগীতা পাবেন এই বৃদ্ধরা। এতদিন যাদের মুখে দুমুঠো ভাত জোটা ছিল ভাগ্যের, আজ তারা পাচ্ছেন ঘর, জমি ও টাকা। তাদের আর অভাবই থাকছেনা। নতুন করে শুরু করবেন সংসার জীবন। এখন থেকে আর হাতাশা থাকছেনা এই বৃদ্ধাদের। সন্তান পরিত্যক্তা এই বৃদ্ধাদের ব্যপারে সরকারের উদ্যোগের প্রশংসা চলছে ঘোটা উপজেলা জুড়ে।
স্থানীয়রা জানান, প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যের এমন উদ্যোগ রাঙ্গাবালী উপজেলাবাসীর কাছে স্বরণীয় হয়ে থাকবে। সংবাদ প্রকাশের একদিনের মধ্যে এত বড় ব্যবস্থা কোনকালে দেখা যায়নি। এমন ব্যবস্থার কারণে সরকারের উপর ভরসা রাখতে পারছেন বলে জনান তারা।
এই প্রতিবেদককে সেই বৃদ্ধ শুকুর দেওয়ান বলেন, ‘বাবা আমনেগো ধারে আমরা ঋণী। আমনেরা খবর দিছেন, হেইয়া প্রধামন্ত্রী দ্যাখছে। খবরডা দেইখ্খা আমারে প্রধানমন্ত্রী ঘর দিছে, জমি দিছে। এমন প্রধানমন্ত্রী আছে বইল্লাই আমাগো আইজ ঠাঁই অইছে। আমাগো মতো গরীব মাইনষের খবরও রাহে প্রধানমন্ত্রী। তা নাঅইলে আমাগো মরণ ছাড়া কোন উপয় ছিলনা। প্রধানমন্ত্রীরে আল্লা বাচায় রাহুক, নামাজ পইরা তার জন্য দোয়া করি। আর হেই লগে এমপি স্যারেরেও দোয়া করি। হে আমার লগে ফোনে কথা কইছে। লোক পাঠাইয়া আমাগো খাওনের ব্যবস্থা করছে, থাহার ব্যবস্থা করছে।’
এব্যাপারে রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.মাশফাকুর রহমান বলেন, ‘সংবাদটি দেখার সাথেসাথে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আমাকে জেলা প্রশাসক মহোদয় নির্দেশ দেন। আমি তাৎখনিকভাবে ওই বৃদ্ধাদের জন্য নগদ ১০ হাজার টাকা দেই। এর পরে এমপি মহোদয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে একটি দুর্যোগ সহোনীয় ঘর ও জমি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ইতোমধ্যেই আমরা ঘরটি নির্মানের কাজ শুরু করেছি। এখন এই দম্পত্তিদের আর কোন সম্যসা নেই।’
পটুয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মহিব্বুর রহমান মহিব জানান, বৃদ্ধ দম্পত্তির মানবেতর জীবন-যাপনের  সংবাদটি দেখেন মাণনীয় প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তার কার্যালয় থেকে আমাকে মুঠোফোনে বলা হয়। আমি তাৎখনিকভাবে লোক পাঠিয়ে ওই বৃদ্ধ দম্পত্তিদের উদ্ধার করে একটি বাড়িতে থাকা ও খাবারের ব্যবস্থা করেছি। তাদের জন্য দুর্যোগ সহোনীয় একটি ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। তাদেরকে সরকারী খাস জমি বন্দোবস্ত দেয়ার কার্যক্রম চলছে। এছাড়াও বয়স্কভাতাসহ সরকারের সকল সুযোগ-সুবিধা পাবেন এই বৃদ্ধ দম্পত্তি।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft