বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
সমকালের বিরুদ্ধে মামলা করবো : শাহীন চাকলাদার
কাগজ সংবাদ :
Published : Thursday, 3 October, 2019 at 6:46 AM
সমকালের বিরুদ্ধে মামলা করবো : শাহীন চাকলাদারদৈনিক সমকালে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ‘আওয়ামী পরিবার।’ বুধবার দুপুরে প্রেসক্লাবের সম্মেলন কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার বলেন, যশোরে আওয়ামী লীগের আসন্ন সম্মেলনকে সামনে রেখে তার সুনাম ক্ষুন্ন করা এবং পৌর ও সদর উপজেলায় সম্ভাব্য নেতৃত্বকে ঘায়েল করার অপচেষ্টা হিসেবে দলের মধ্যে কিছু অনুপ্রবেশকারী অর্থলগ্নী করে হলুদ সাংবাদিকতার মাধ্যমে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। আরও বলেন, প্রকাশিত সংবাদের যদি এক ভাগও সত্যতা থাকতো সেটাকে তিনি শতভাগ বলে মেনে নিতেন। কিন্তু প্রকাশিত সংবাদটি ভিত্তিহীন এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিত।
তিনি বলেন সংবাদে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এ কে এম খয়রাত হোসেনকে জামায়াতের রোকন এবং অপর সহসভাপতি আব্দুল খালেক মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছিলেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে। যা সত্য নয়। খয়রাত হোসেন মুক্তিযুদ্ধে স্বক্রিয় অংশ গ্রহণ করেছিলেন। পাক সেনারা তার মাথার দাম ২৫ হাজার টাকা ঘোষণা দিয়েছিল। অপর সহসভাপতি আব্দুল খালেক ছিলেন দলের দুর্দিনের কান্ডারী। মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকে আজ পর্যন্ত এ দুজন নেতা দলের নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে কাজ করে চলেছেন।
তিনি বলেন, যারা দু’তিন বছর আগে মারা গেছে (হাত কাটা মনিরুল, সোহাগ ও মকা) তারা কিভাবে আমার সাথে থাকতে পারে।
শাহীন চাকলাদার বলেন, ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে তিনি স্বক্রিয় ছিলেন। ১৯৯৭ সালে শহর আওয়ামী লীগের সদস্য, ১৯৯৮ সালে যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং ২০০২ সালে যশোর জেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য মনোনীত হন। পরে তৃণমূলের সরাসরি ভোটে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সর্বশেষ সম্মেলন থেকেও তিনি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।
অবৈধ সম্পদ ও দখলদারিত্ব প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, পারিবারিকভাবে তারা পূর্ব প্রতিষ্ঠিত তাই রাজনীতিতে আসার পর সম্পদ গড়ার খবর অসত্য। এ সময় তিনি বলেন ব্যবসা তার পেশা আর রাজনীতি তার আদর্শ। তাই তিনি আগে ব্যবসায়ী পরে রাজনীতিক।
তিনি দৃঢ়তার সাথে প্রকাশিত সংবাদের সকল তথ্য প্রত্যাখান করে বলেন, যারা তার সুনাম ক্ষুন্ন করেছে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। শুধু তিনি নন সমকালে প্রকাশিত সংবাদে যত নেতৃবৃন্দের নাম এসেছে সকলেই পৃথক পৃথকভাবে ফৌজদারী ও মানহানী মামলা করবেন।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তৃতা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম খয়রাত হোসেন ও আব্দুল খালেক।
সহসভাপতি আব্দুল খালেক বলেন, খালেক ওয়েল্ডিং এর স্বত্ত্বাধিকারী আব্দুল খালেক যিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় স্বাধীনতা বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত ছিলেন সেই খালেক আর তিনি এক ব্যক্তি নন। নাম ও ঠিকানা একই হওয়ায় তার নামে মিথ্যাচার করা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft