সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
অর্থকড়ি
ভ্যাট নিবন্ধনে নতুন নিয়ম চালু করেছে এনবিআর
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 12 September, 2019 at 8:15 PM
ভ্যাট নিবন্ধনে নতুন নিয়ম চালু করেছে এনবিআরআগে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান একই মালিকানায় বা একই গ্রুপের হলেও ভিন্ন ভিন্ন ভ্যাট নিবন্ধন থাকতো। এবার সেক্ষেত্রে পরিবর্তন এনেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর। এখন থেকে একই গ্রুপের একাধিক প্রতিষ্ঠানের একাধিক ভ্যাট নম্বরের পরিবর্তে একটি বা অভিন্ন নম্বর থাকবে, যা এক জায়গা বা কেন্দ্রীয়ভাবে নিতে হবে।
সম্প্রতি এমনই এক আদেশ জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এটা কার্যকর করতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এনবিআরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভ্যাট নিবন্ধন প্রক্রিয়া সহজ করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে ব্যবসায়ীদের হয়রানি ও জটিলতা কমার পাশাপাশি ব্যবসার খরচও কমবে। তবে এটি বাধ্যতামূলক নয় বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। কেউ চাইলে আগের নিয়মে থাকতে পারে।
যেসব প্রতিষ্ঠান ১৫ শতাংশ হারে ভ্যাট পরিশোধ করবে তারাই শুধু এই নতুন নিয়মে অন্তর্ভুক্ত হবে। যেসব প্রতিষ্ঠান ১৫ শতাংশের নিতে ভ্যাট প্রদান করবে তাদের ক্ষেত্রে এই আইন প্রযোজ্য হবে না। তবে এ ক্ষেত্রে শুধু উৎপাদনমুখী প্রতিষ্ঠান নয়, আমদানি, সরবরাহ ও সেবার ক্ষেত্রে ভ্যাটের প্রতিটি স্তরে নিবন্ধন নিতে একই নিয়ম চালু করা হয়েছে।
কেন্দ্রীয়ভাবে অভিন্ন নিবন্ধন পদ্ধতিতে ভ্যাট আহরণ অনেক সহজ হবে। একইসঙ্গে নিয়মিত ভ্যাটদাতারা ভ্যাট দিতে আরও উৎসাহিত হবেন বলে জানা এনবিআরের ভ্যাট বিভাগের এক কর্মকর্তা। তিনি বলেন, যেসব উৎপাদনমুখী প্রতিষ্ঠান একই ধরনের পণ্য উৎপাদন করে সেগুলোকে সমজাতীয় ব্যবসা হিসেবে বিবেচনা করা হবে। এর সঙ্গে সেবা খাতের ব্যবসাকে মেশানো যাবে না।
এনবিআরের আদেশে বলা হয়, যেসব প্রতিষ্ঠান দুই বা এর বেশি স্থান থেকে অভিন্ন বা সমজাতীয় পণ্য উৎপাদন করে এবং কেন্দ্রীয় ইউনিটে সব হিসাব-নিকাশ সংরক্ষণ ও কর পরিশোধ করে তারা নতুন এই পদ্ধতির আওতায় আসতে পারে। নতুন আইনে কোনো প্রতিষ্ঠান বাণিজ্যিকভাবে পণ্য আমদানি করলে কেন্দ্রীয় ইউনিটের ঠিকানায় অভিন্ন বা সমজাতীয় পণ্য আমদানি এবং বিক্রয় ইউনিটের মাধ্যমে তা সরবরাহ করতে হবে।
এছাড়া ব্যবসায়ী পর্যায়ে কেন্দ্রীয় ইউনিটের ঠিকানায় কেনা বা সংগৃহীত অভিন্ন বা সমজাতীয় পণ্য নিজস্ব মালিকানা ও নিয়ন্ত্রণাধীন বিভিন্ন বিক্রয় ইউনিটের মাধ্যমে সরবরাহ করতে হবে। সেবা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে নিজস্ব মালিকানা ও নিয়ন্ত্রণাধীন বিভিন্ন শাখার মাধ্যমে অভিন্ন বা সমজাতীয় সেবা সরবরাহ করতে হবে।
উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, বিএসআরএম একটি রড উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান। এটির চট্টগ্রাম, ঢাকা, বগুড়া কিংবা অন্য জেলায় পৃথক কারখানা বা ইউনিট রয়েছে। আগে নিয়ম ছিল কারখানা যেখানে সেই স্থানের ভ্যাট অফিস থেকে নিবন্ধন নিতে হতো। নতুন নিয়মে সংশ্নিষ্ট প্রতিষ্ঠানের দেশের বিভিন্ন এলাকায় কারখানা বা ইউনিট থাকলেও এক জায়গা থেকেই ভ্যাট নিবন্ধন নিতে পারবে। সেক্ষেত্রে উৎপাদনমুখী প্রতিষ্ঠানটির কেন্দ্রীয় ইউনিট হবে একটি এবং সেখানেই মাসিক ভ্যাট রিটার্ন দিতে হবে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft