বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
আক্তার-ফয়েজ সিন্ডিকেট অপ্রতিরোধ্য : দায়িত্বশীলরা নিরব
বাগডাঙ্গায় জমজমাট তিন তাস জুয়া
অভিজিৎ ব্যানার্জী :
Published : Tuesday, 10 September, 2019 at 6:03 AM
বাগডাঙ্গায় জমজমাট তিন তাস জুয়া কেউ কিছুই বলছেন না, টাকার কাছে পুলিশও নিরব। প্রকাশ্যে অবাধে তিন কার্ড জুয়ার জমজমাট আসর চলছে যশোরের বাগডাঙ্গায়। ওই গ্রামের মাঠে ও বাগানে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে বোর্ড, চলছে এই অনৈতিকতা।
রাজনৈতিক কয়েক নেতার নাম ভাঙিয়ে ছাতিয়ানতলার আক্তার, চৌগাছার নারায়ণপুর থেকে বিতাড়িত হয়ে আসা পালবাড়ির সেই বহু বিতর্কিত ফয়েজ ও চুড়ামনকাটির রন্টু গং এই জুয়ার বোর্ড পরিচালনা করছে। বিভিন্ন এলাকার জুয়াড়িরা এই জুয়া খেলায় বুদ হচ্ছে। আর প্রতিদিন হাতবদল হচ্ছে কয়েক লাখ টাকা। অবস্থা এতোটাই বেগতিক যে, জুয়া খেলার পাশাপাশি ওই স্পটে চলছে মাদক কারবারও। এ ঘটনা দেখেও দায়িত্বশীলরা নিরবতা পালন করছেন। স্থানীয় সচেতন মহল দ্রুত পুলিশি অভিযান চালিয়ে ওই জুয়া বন্ধ করার জোর দাবি জানিয়েছেন।
স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, যশোর সদর উপজেলার চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের বাগডাঙ্গা গ্রামে প্রতিদিন বসছে তাসের ওয়ান-টেন, তিন তাস, কাটাকাটিসহ নানা নামের জুয়ার আসর। জুয়ার লোভ সামলাতে না পেরে অনেকে পথে বসছে। চলমান এই জুয়ার আসর নিয়ে ওই অঞ্চলের অভিভাবকরা উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। প্রতিদিন এ চক্রের জালে পড়ে স্থানীয়রা টাকা-পয়সা হারিয়ে নিঃস্ব হচ্ছেন। স্থানীয়রা বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনকে জানালেও তার প্রতিকার না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ।
মাস কয়েক আগে বাগডাঙ্গা গ্রামের আলোচিত জুয়াড়ি আব্দুল মজিদ এ খেলার আয়োজক থাকলেও এখন তার হাতবদল হয়ে চলে গেছে ছাতিয়ান তলার আক্তারের হাতে। তার সাথে সহযোগিতা করছেন চুড়ামনকাটি ছাতিয়ানতলা এলাকার রন্টু। আর তাদের ‘গুরু’ হিসেবে বিভিন্ন মহলকে ম্যানেজ করার দায়িত্বে রয়েছেন পালবাড়ি ও চৌগাছার ওয়ানটেন জুয়া চক্রের সদস্য সেই ফয়েজ। এছাড়া কাশিমপুর ইউনিয়নের খোজারহাট সুলতান, বাগডাঙ্গা গ্রামের সিরাজ ওরফে বুড়ো সিরাজ, খিতিবদিয়া গ্রামের সাইফুলসহ আরও অনেকে।
অভিযোগ আসছে, সেখান থেকে প্রতিনিয়ত টাকা নিয়ে আসছেন সাঝিয়ালী ফাঁড়ির ইনচার্জ আনিসুর রহমান, এএসআই আজাদ, ডিএসবির একজন, ডিবি পুলিশের পক্ষে একজনসহ আরও কয়েক অসাধু। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, খেলার বাগানে ও পাশের মাঠে এখন ছোট খাটো বাজার বসছে। এখানে যশোরের বিতর্কিত পরিচিত মুখ আর অপরিচিত অনেক লোকজনের আনাগোনা দেখা যাচ্ছে। কেউ মটর সাইকেলে, কেউ প্রাইভেটে এসে যোগ দিচ্ছে এই জুয়ার আসরে। নেশায় বুদ হওয়ার মত হুমড়ি খেয়ে পড়ছে এই আসরে। রাজনৈতিক কয়েক নেতা ও স্থানীয় চেয়ারম্যানের নাম ভাঙিয়ে চক্রটি এই জুয়ার আসর চালাচ্ছে প্রশাসনের নাকের ডগায়।
বিভিন্ন এলাকা থেকে জুয়াড়িরা এখানে আসছে। বিশেষ ব্যবস্থাপনায় জুয়ার কারবার চলে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বিষয়টি জানলেও নিরবতা পালন করছে বলে অভিযোগ। জুয়ার কারবার চালানোর কারণে অনেক পরিবার নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে এমন তথ্য মিলছে বিভিন্ন সময়ে। একটি সূত্র বলেছে, কয়েকটি মহলকে ম্যানেজ করে অসাধু চক্রটি জুয়ার কারবার চালিয়ে যাচ্ছে। এই জুয়ার আসর ওই এলাকার সাধারণ ব্যবসায়ী ও উঠতি বয়সের যুবকদের মধ্যে নানা প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে।
সূত্র জানায়, যশোরসহ দুর-দুরান্ত থেকে আসা জুয়াড়িরা এখানে লাখ লাখ টাকার হাত বদল করছে। এই জুয়াকে কেন্দ্র করে সেখানে মাদক বিকিকিনিও চলছে সমানতালে। জুয়া ও মাদকের লোভ সামলাতে না পেরে অনেকে পথে বসছেন। প্রতিদিন এ চক্রের জালে পড়ে স্থানীয়রা টাকা-পয়সা হারিয়ে নিঃস্ব হচ্ছেন। স্থানীয়রা বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনকে জানালেও প্রতিকার না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ। শ’ শ’ বিতর্কিত পরিচিত মুখ আর অপরিচিত অনেক লোকজনের আনাগোনা দেখা যাচ্ছে। যশোরের বাইরেও জীবননগর, চুয়াডাঙ্গা, বেনাপোল, মাগুরা, ঝিকরগাছা, খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, নড়াইল থেকে কাড়ি কাড়ি টাকা নিয়ে জুয়াড়িরা আসছে ওই বাগানে।  
আর এসব বিষয় ‘ট্যক অব দ্যা যশোর’ হলেও অজ্ঞাত কারণে কেউ কিছু বলছেন না! দায়িত্বশীলরাও নিরবতা পালন করছেন। স্থানীয় সচেতন মহল দ্রুত ওই জুয়া বন্ধ করার জোর দাবি জানিয়েছেন। তারা অবিলম্বে এই জুয়া বন্ধের ব্যাপারে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এ ব্যাপারে যশোর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, অভিযোগটি তিনি খোঁজ খবর নেবেন। জুয়ার কারবারে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ওই ঘটনায় পুলিশের কেউ জড়িত থাকলেও তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। জুয়ার নেশায় যুবকেরা বখে যাবে, বাবার পকেট কাটবে তা চলতে দেয়া যাবে না।




আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft