বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০
জাতীয়
‘আওয়ামী লীগ ভোটের রাজনীতি থেকে বিদায় হয়ে গেছে’
ঢাকা অফিস :
Published : Saturday, 7 September, 2019 at 5:01 PM
‘আওয়ামী লীগ ভোটের রাজনীতি থেকে বিদায় হয়ে গেছে’বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ‘বিএনপি নয়, আওয়ামী লীগই সারা জীবনের জন্য ভোটের রাজনীতি থেকে বিদায় হয়ে গেছে। জনগণের কাছে ভোট চাওয়ার আর মুখ নেই, এ ইতিহাস মোছা যাবে না।’
শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে 'বহুদলীয় গণতন্ত্র ও শহীদ জিয়ার অবদান' শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক জোট নামের একটি সংগঠন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন যে বিএনপি নাকি ভোটের রাজনীতি থেকে হারিয়ে যাচ্ছে। আমি মনে করি, ডিসেম্বরের ২৯ তারিখ রাতে আওয়ামী লীগ সারা জীবনের জন্য ভোটের রাজনীতি থেকে বিদায় হয়ে গেছে।’
‘এটা একটা অস্বাভাবিক সরকার। সব কিছু অস্বাভাবিকভাবে চলছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে বালিশ কেনা ও তুলতে কতো টাকা লাগে, সেটা দেখলাম। এখন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজের পর্দা কেনার দুর্নীতি, এটাকেও হার মানিয়েছে। এক সেট পর্দা কিনতে নাকি ৩৭ লাখ টাকার বেশি লাগে। কেন? কারণ, সরকারের কোথাও কোনো নিয়ন্ত্রণ নাই। সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা লুট করছে। ব্যাংক লুট হচ্ছে, কোনো বিচার নাই, রিজার্ভ লুট হচ্ছে, কোনো বিচার নাই। খেলাপিদের আরও সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। বালিশ আর পর্দা কেনার দায়িত্বে থাকা বড় কর্মকর্তারা মনে করছেন, গত ১০ বছরে সাড়ে ছয় হাজার কোটি টাকা সুইচ ব্যাংকে গেছে, তো আমরাও কিছু করি না কেন? তাই তারা বালিশ আর পর্দা কিনতে এমন করছেন। এটা জাতি ও দেশের জন্য অত্যন্ত অশনিসংকেত। দুর্নীতি উপর থেকে নিচ পর্যন্ত ঠেকেছে। এ সমাজে পচন লেগেছে। দেশে গণতন্ত্র নেই বলে এ দুর্নীতি আমরা দেখছি। জণগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার হলে দায়বদ্ধতা থাকত। যেহেতু দায়বদ্ধতা নাই, যে যা ইচ্ছা তাই করছেন,’ যোগ করেন খন্দকার মোশাররফ।
সাবেক মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ আরো বলেন, 'মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা ছিল গণতন্ত্র। জিয়াউর রহমান বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেন। প্রেসিডেন্সিয়াল অর্ডার দিয়ে বাংলাদেশে যারা রাজনীতি করতে চায়, সেসব দলের নিবন্ধনের আহ্বান জানান। এরপর নতুন করে নিবন্ধন নিয়ে আওয়ামী লীগ রাজনীতি শুরু করে। এ ইতিহাস আওয়ামী লীগ মুছবে কীভাবে? কীভাবে তারা অস্বীকার করে? আওয়ামী লীগ যেখানে ব্যর্থ, বিএনপি সেখানে সফল। এজন্য তারা জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার নাম মুছে দিতে চায়।’
আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আযাদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য এম জাহাঙ্গীর আলমসহ অনেকে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft