সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
সারাদেশ
লিবিয়ায় অপহৃত বাংলাদেশিকে নির্যাতন, ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা :
Published : Sunday, 1 September, 2019 at 7:32 PM
লিবিয়ায় অপহৃত বাংলাদেশিকে নির্যাতন, ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবিলিবিয়ায় স্পেনসহ ইউরোপের বিভিন্ন দেশে পাঠানোর কথা বলে বাংলাদেশি রায়হান ভূঁইয়া জনিকে (২০) অপহরণের পর অমানবিক নির্যাতন করেছেন দুর্বৃত্তরা। এর পর এ নির্যাতনের ভিডিও দেশে পাঠিয়ে স্বজনদের কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রায়হান ভূঁইয়া জনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া উপজেলার হীরাপুর গ্রামের শাহনেওয়াজ ভূঁইয়ার ছেলে। তার বাবা শাহনেওয়াজ দক্ষিণ ইউনিয়নের যুবলীগ নেতা।
স্বজদের অভিযোগ, তিন মাস আগে অপহরণের পর নির্যাতনের ভিডিও স্বজনদের কাছে পাঠিয়ে দফায় দফায় ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায় করে নেয় লিবিয়ায় থাকা ওই প্রভাবশালী অপহরণকারী (কিডন্যাপ) প্রতারক চক্রটি।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, রায়হান ভূঁইয়া জনি ভাগ্য বদলের আশায় ২০১৮ সালের অক্টোবরে স্বপ্নের দেশ স্পেন যাবেন বলে লিবিয়ায় পাড়ি জমান। চলতি বছরের জুন মাসে লিবিয়া থেকে জনি অপহরণ হন। দীর্ঘ তিন মাস আটক রেখে তার ওপর চালানো হয় অমানবিক নির্যাতন।
অপহরণকারী চক্র নির্যাতনের সেই ভিডিও ফুটেজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে পরিবারের স্বজনদের কাছে পাঠিয়ে তাদের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে।
ভিডিও দেখে লিবিয়ায় অবস্থানরত অপহরণকারী চক্রের নির্যাতন স্বজনরা সহ্য করতে না পেরে সর্বস্ব বিক্রি করে। পরে দফায় দফায় দেশে ও বিদেশে অপহরণকারী চক্রের সক্রিয় সদস্যদের কাছে পাঠায় ২৫ লাখ টাকা। তবে টাকা দিলেও জনি ভূঁইয়াকে এখনও তার স্বজনরা কাছে পাননি।
সম্প্রতি লিবিয়ার সেনাবাহিনী জনিকে উদ্ধার করে লিবিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাছে পাঠালেও তিনি এখন অসুস্থ। স্বাভাবিক চলাচলের শক্তি নেই তার। চোখেমুখে ভয়ের ছাপ আর নির্যাতনের চিহ্ন তার সমস্ত শরীরে বয়ে বেড়াচ্ছে।
জনির বাবা যুবলীগ নেতা শাহনেওয়াজ বলেন, আমার ছেলেকে স্পেন পাঠানোর কথা বলে লিবিয়ায় আটকে রেখে একাধিকবার বিভিন্ন অঙ্কে ২৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায় করেছে প্রতারক দালাল চক্র।
চক্রটির অমানসিক নির্যাতনে আমার সন্তানকে হারানোর ভয়ে এবং তাদের নির্যাতনের হাত থেকে সন্তানকে বুকে ফিরে পাব এ আশায় আমার সহায় সম্বল বিক্রি করে মুক্তিপণের টাকা দিয়ে অপহরণকারীর জিম্মিদশা থেকে মুক্ত করি। এখন কবে আমার মানিককে আমার বুকে ফিরে পাব সে আশায় পথ চেয়ে আছি।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, স্পেন কিংবা ইতালিসহ ইউরোপের দেশগুলোতে অবৈধভাবে প্রবেশের উদ্দেশ্যে লিবিয়ায় পাড়ি জমায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শত শত যুবক। কিন্তু স্বপ্নের দেশ স্পেন বা ইতালিতে পাড়ি জমাতে গিয়ে লিবিয়ায় বাংলাদেশি দালাল চক্রের প্রতারণার শিকার হয়ে নিঃস্ব হচ্ছে ওই সব অসহায় পরিবার।
ইউরোপে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে লিবিয়াতে আটকে রাখা যুবকদের জিম্মি করে বাংলাদেশে তাদের পরিবারের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। দালালদের জিম্মিদশায় আটক থাকা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার যুবকদের অনেকেই টাকার বিনিময়ে মুক্তি পেয়ে লিবিয়া থেকে ফেরত আসছেন দেশে।
লিবিয়ায় আটক ভুক্তভোগীর একাধিক পরিবারের অভিযোগ, কতিপয় দালাল চক্র অল্প টাকায় ইতালি, স্পেন পাঠানোর কথা বলে লিবিয়ায় পৌঁছানোর পর ওই চক্রের সদস্যরা তাদের জিম্মি করে শারীরিক নির্যাতনসহ পরিবারের কাছ থেকে দফায় দফায় টাকা আদায় করে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft