বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
গুম নি‌য়ে কথা বলার অ‌ধিকার বিএন‌পির নেই : তথ্যমন্ত্রী
ঢাকা অফিস :
Published : Saturday, 31 August, 2019 at 8:51 PM
গুম নি‌য়ে কথা বলার অ‌ধিকার বিএন‌পির নেই : তথ্যমন্ত্রীগুম নি‌য়ে কথা বলার অ‌ধিকার বিএন‌পির নেই বলে মন্তব্য ক‌রে‌ছেন তথ্য মন্ত্রী হাছান মাহমুদ।
‌তি‌নি ব‌লেন, বাংলাদেশে হত্যার রাজনীতি শুরু করছে জিয়াউর রহমান ও তার বিএনপি। জিয়াউর রহমান যখন ক্ষমতায় ছিল তখন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বহু নেতাকর্মী গুম হয়েছে, হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত ২১ হাজার মানুষ হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। সুতরাং তাদের এই সমস্ত বিষয় নিয়ে কথা বলার অধিকার নেই।
শনিবার (৩১ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‌‌‌‌‘আপনি মহাসচিব হওয়ার পর থেকে মহাসচিব এর ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব এবং মূল দায়িত্ব পালনকালীন সময় আপনার নেতৃত্বের হাতে সহস্রাধিক মানুষ অগ্নি বোমা এবং সন্ত্রাসের কারণে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে। আর এই সমস্ত কিছুর হুকুমের আসামি হচ্ছেন তারা, যারা বড় বড় কথা বলেছেন গতকাল। তারা সবাই এই সমস্ত কিছুর হুকুমের আসামি।’
তিনি আরও বলেন, ‘যারা শুধু পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করেছে তারা দায়ী নয়, তাদেরকে যারা পরিচালনা করেছে, তাদেরকে অর্থায়ন করেছে, পেট্রোলবোমার তাদের হাতে যারা তুলে দিয়েছে এই বিএনপি নেতৃত্ব তারা দায়ী। আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি, একটি বিশেষ ট্রাইবুনাল করে এসব ঘটনার বিচার হওয়া দরকার।’
তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বিএনপি গতকাল সংবাদ সম্মেলন করেছে এবং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ অন্যান্য নেতারা সেখানে বক্তব্য রেখেছেন। বাংলাদেশ গত ১০ বছরে কত মানুষ হারিয়ে গেছে, সে বিষয়ে কথা বলেছেন। এই বিএনপি দলটি গঠিত হয়েছে রক্তে রঞ্জিত হাত দিয়ে, জিয়াউর রহমান হাত দিয়ে। মানুষের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে বিএনপি গঠন করা হয়েছে। জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করার পর ক্ষমতাকে নিস্কণ্ঠক করার জন্য ১৬০০ সেনাসদস্যকে হত্যা করেছে। অর্থাৎ যে জিয়াউর রহমানের হাত মানুষের রক্তে রঞ্জিত, তার হাত ধরে বিএনপি’র জন্ম। অর্থাৎ মানুষের রক্তের ওপর দাঁড়িয়ে আছে বিএনপি।
আলোচনা সভায় সাবেক খাদ্য মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল আলম টুকু, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft