শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯
আন্তর্জাতিক সংবাদ
কারগিল যুদ্ধের সৈনিকও এনআরসি থেকে বাদ!
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 31 August, 2019 at 5:21 PM
কারগিল যুদ্ধের সৈনিকও এনআরসি থেকে বাদ!ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের চূড়ান্ত ন্যাশনাল রেজিস্টার অব সিটিজেন্স (এনআরসি) বা নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ করা হয়েছে। এ তালিকায় চূড়ান্তভাবে ঠাঁই হয়েছে ৩ কোটি ১১ লাখ লোকের। আর ১৯ লাখ মানুষ তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন।
শনিবার (৩১ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে তালিকাটি প্রকাশ করা হয়।
আর এ তালিকা থেকে বাদ পড়েছেন দুই দশক আগে কারগিল যুদ্ধে ভারতীয় সেনাবাহিনীর হয়ে লড়াই করা অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ সানাউল্লাহ।খবর হিন্দুস্তান টাইমসের
দেশটির গণমাধ্যম জানিয়েছে, নাগরিক তালিকায় দেখা গেছে ওই সেনা কর্মকর্তার তিন সন্তান, দুই মেয়ে ও এক ছেলের নামও নেই। অথচ তার স্ত্রীর নাম রয়েছে সেই তালিকায়।
মোহাম্মদ সানাউল্লাহ ভারতীয় সেনাবাহিনীতে জুনিয়র কমিশনড অফিসার (জেসিও) পদধারী ছিলেন। তিনি কারগিল যুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন। রাষ্ট্রপতি পদকও রয়েছে তার।অথচ তিনিই নাকি বিদেশি নাগরিক। সে ঘটনাও ভারতের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রকাশ হয়।
সেসব সংবাদ থেকে জানা যায়, ২০০৮ সালে সন্দেহজনক ভোটার হিসেবে সানাউল্লাহর নাম তালিকাভূক্ত হয়। আসাম সরকারের কর্মকর্তা চন্দ্রমাল দাস সানাউল্লাহকে বিদেশি আখ্যায়িত করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেন।
এর পর ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে তার নামে মামলা হলে ২০১৮ সালে তিনি ট্রাইব্যুনালে হাজির হন। ২৩ মে তাকে বিদেশি ঘোষণা করে গোয়ালপাড়ার একটি বন্দিশিবিরে পাঠানো হয়। পরে গুয়াহাটি হাইকোর্ট থেকে তিনি জামিন পান।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, সানাউল্লাহ ও তার সন্তানদের বিরুদ্ধে ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালের রায় গুয়াহাটি হাইকোর্টে বিচারাধীন থাকায় এনআরসির ধারা অনুসারে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় তাদের নাম অন্তর্ভুক্তি করা হয়নি।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft