মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
চৌগাছায় অর্থের অভাবে ডেঙ্গু রোগী ফেরত
ইউএনও ও পৌর মেয়রের সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ
শাহানুর আলম উজ্জ্বল চৌগাছা (যশোর) থেকে :
Published : Thursday, 22 August, 2019 at 1:33 AM
ইউএনও ও পৌর মেয়রের সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণযশোরের চৌগাছায় ডেঙ্গু রোগী হালিমা খাতুন (১৪) কে টাকার অভাবে চিকিৎসা নিতে না পেরে বাড়ীতে ফেরত আনা হয়েছে। বাক প্রতিবন্ধী পিতার কাছে টাকা না থাকায় বাড়িতে ফেরত আনতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। এ খবর জানতে পেরে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে উপস্থিত হন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পৌর মেয়র। তাৎক্ষনিকভাবে ওই রোগীর পরিবারের সাথে কথা বলে রোগীকে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য হালিমাকে দ্রুত ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। 

জানাগেছে, উপজেলার পৌর সদরের ডাকবাংলা পাড়ার বাসিন্দা বাক প্রতিবন্ধী হাসু রহমানের মেয়ে ছারা বালিকা বিদ্যারয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী হালিমা খাতুন (১৪) গত ১৬ আগস্ট শুক্রবার ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়। এ দিন সকালে উপজেলার ডিভাইন হাসপাতাল থেকে পরীক্ষা করলে তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। এ অবস্থায় দরিদ্র পিতা মেয়েকে চৌগাছা ৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করেন। কিন্তু হালিমার অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করে। হালিমার চাচা মমিনুর রহমান জানান, যশোর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করার পর সেখানে রোগীর প্রচন্ড ভীড়ের কারনে জায়গা হয়নি। কোনমতে রাতটি হাসপাতালের বারান্দায় রাখি। তারপর শনিবার আমরা কুইন্স হাসপাতালে ভর্তি করি। কিন্তু হালিমার শারীরীক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় এই হাসপাতালের ডাক্তাররা হালিমাকে ঢাকাতে রেফার করে। 

তিনি বলেন, ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসার করানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তাই বাধ্য হয়ে আমরা হালিমাকে মঙ্গলবার বাড়ীতে ফেরত এনেছি।  তিনি আরো বলেন, আমার ভাই বাক প্রতিবন্ধী। খুব দরিদ্র মানুষ। আমাদের পক্ষে ঢাকায় নিয়ে যেয়ে চিকিৎসা করানো সম্ভব না। তাই বাধ্য হয়ে বাড়ীতে ফেরত আনতে হয়েছে। 

এদিকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হালিমার বাড়ীতে ফেরত আসার খবর জানতে পেরে বুধবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় ওই পরিবারে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ জাহিদুল ইসলাম ও পৌর মেয়ার নূর উদ্দীন আল মামুন হিমেল। সেখানে তাঁরা পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলেন। একই সাথে ওই রোগীকে উদ্ধার করে দ্রুত চৌগাছা হাপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে দ্রুততার সাথে প্লাটিলেট কাউন্ট করা হলে দেখা যায় হালিমার প্লাটিলেক ৬০ হাজার। এদিকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বিমানের টিকিট পাওয়া না যাওয়ায় বিশেষ এম্মুলেন্সে তাকে ঢাকা পিজি হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

 এ প্রসঙ্গে পৌর মেয়র নূর উদ্দীন আল মামুন হিমেল জানান, খবর পেয়ে নির্বাহী কর্মকর্তাসহ আমি ওই পরিবারে যায়। সেখান থেকে দ্রুত মেয়েটিকে উদ্ধার করি। রাতেই আমরা চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠায়। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম জানান, টাকার অভাবে ডেঙ্গু রোগীর চিকিৎসা হবেনা এটা দুঃখজনক। আমরা মেয়েটির জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা করেছি। ইতোমধ্যে ঢাকায় আমরা কথা বলেছি। আপনাদের মাধ্যমে মেয়েটির জন্য দোয়া চাই। সে যেন সুস্থ্য হয়ে ওঠে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft