শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
‘দেশে হিন্দু জনসংখ্যা ২ শতাংশ বেড়েছে’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 17 August, 2019 at 7:51 PM
‘দেশে হিন্দু জনসংখ্যা ২ শতাংশ বেড়েছে’দেশে হিন্দু জনগোষ্ঠীর সংখ্যা দুই শতাংশ বেড়েছে বলে দাবি করেছেন আপিল বিভাগের বিচারপতি (অব.) এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক।
শনিবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট ফোরাম (বোয়াফ) আয়োজিত 'সিরিজ বোমা হামলা-২০০৫; মৌলবাদ-জঙ্গিবাদ ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক বলেন, 'হিন্দুদের সংখ্যা দুই শতাংশ বেড়েছে। যারা চলে গিয়েছিল তারা ফিরে আসবে। আমরা চাই তারা ফিরে আসুক। কারণ বাংলাদেশ একটি অসম্প্রদায়িক দেশ।'
অবসরপ্রাপ্ত এই বিচারপতি বলেন, ‘মোনোয়েম খানের নীতি নিয়েই জিয়ার জন্ম। সেই মোনায়েম খান ন্যাশনাল স্টুডেন্ট ফোরাম নামে সন্ত্রাসী ছাত্র সংগঠন করে তাদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছিল। ৭১'র যুদ্ধের মধ্য দিয়েই এগুলো সব নিঃশেষ হয়ে গেছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আবার তা শুরু করেন মোনায়েম খানের উত্তরসূরি জিয়াউর রহমান।’
তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান হিজবুল বাহার নামে একটি সংগঠন করেছিলেন। ক্ষমতা পাকা-পোক্ত করতে সে সময় কয়েকজন ছাত্রকে জাহাজে করে পাঠিয়েছিলেন এবং তাদের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছিলেন। এর মধ্য দিয়ে নতুন করে ছাত্রসংগঠনে অস্ত্রের মহড়া শুরু করেন জিয়াউর রহমান।’
তিনি বলেন, ‘বাংলা ভাইদের হামলা, বঙ্গবন্ধুকে হত্যা একইসূত্রে গাঁথা। একটি ওয়াহাবী রাষ্ট্র গঠন করা বিএনপি-জামায়াতের মূল উদ্দেশ্য ছিল। গুলশানের হলি আর্টিজানের মতো ঘটনাও একই সূত্রে গাঁথা। এটি করছে বিএনপি ও জামায়াত। দুটি দলই সাম্প্রদায়িক শক্তি।’
নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব:) আবদুর রশীদ বলেন, ‘জঙ্গিবাদের মতাদর্শ একটি ভাইরাস, মানুষের মস্তিষ্কে বাস করে, পরে তা ছড়িয়ে পড়তে পারে। সেটি বন্ধ করতে হবে এবং তা বন্ধের জন্য কিছু পদ্ধতি প্রয়োগ করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধকে ধরে রাখতে হলে জঙ্গিবাদকে নির্মূল করতে হবে।’
তিনি বলেন, ‘জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ শুধু সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাজ নয়। সম্মিলিতভাবে এটি প্রতিরোধ করতে হবে। তাহলে জঙ্গিবাদ প্রসারিত হবে না।’
সংগঠনের সভাপতি কবীর চৌধুরী তন্ময়ের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও কলাম লেখক মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ আলী সিকদার, বীর প্রতীক ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত লে. কর্নেল (অব.) কাজী সাজ্জাদ আলী জহির প্রমুখ।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft