মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
সারাদেশ
তিন জেলায় বজ্রপাতে দুই ভাইসহ ৫ জনের মৃত্যু
কাগজ ডেস্ক :
Published : Friday, 16 August, 2019 at 8:11 PM
তিন জেলায় বজ্রপাতে দুই ভাইসহ ৫ জনের মৃত্যুদেশে তিন জেলায় বজ্রপাতে আপন দুই ভাইসহ ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে জামালপুরে তিনজন, দিনাজপুরে একজন ও গাইবান্ধায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন দুইজন। শুক্রবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব ঘটনা ঘটেছে।
জামালপুর :
জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় মাছ ধরার সময় বজ্রপাতে দুই ভাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নের ভারতীয় সীমান্তবর্তী চেংটিমারী গ্রামে বজ্রপাতের এ ঘটনা ঘটে।
দুই ভাই হলেন, চেংটিমারি গ্রামের আনোয়ার (২৫) ও আল-আমিন (১৭)। তারা একই গ্রামের পূর্ব পাড়ার আব্দুল লতিফ মিয়ার ছেলে।
ডাংধরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ্ মাসুদ জানান, সকালে আনোয়ার ও আল-আমিন বাড়ির পাশে ভারতীয় সীমান্তবর্তী ঝাওলার বিলে মাছ ধরতে যায়। দুপুরের দিকে বৃষ্টি শুরু হলে হঠাৎ বজ্রপাতে ওই দুই ভাইয়ের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। পরে স্বজনরা তাদের লাশ উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যায়। তাদের শরীরের অধিকাংশ অংশ বজ্রপাতে পুড়ে গেছে। দুই ভাইয়ের মৃত্যুতে পরিবার ও এলাকার মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
দেওয়ানগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এম মইনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
অপরদিকে সদর উপজেলার নারায়নপুরে বজ্রপাতে সাইদুল ইসলাম (৩৫) নামে এক রাজমিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে।
নারায়নপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. আব্দুল লতিফ মিয়া জানান, শুক্রবার বিকেলে নারায়নপুর পূর্ব পাড়া গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে সাইদুল ইসলাম বৃষ্টির মধ্যে বাড়ির পাশের ক্ষেতে ধানের বীজতলায় চারা উঠাতে যায়। এ সময় বজ্রপাত হলে তিনি গুরুতর আহত হয়। পরে পরিবারের সদস্যরা সাইদুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
দিনাজপুর:
বিরল উপজেলায় নিজের জমিতে আমন চারা তোলার সময় বজ্রপাতে ভাই নিহত ও ছোট ভাই আহত হয়েছেন।
নিহত আবু বক্কর (৩০) বিরল উপজেলার ১১নং পলাশবাড়ী ইউনিয়নের বেণীপুর গ্রামের মৃত মনসুর আলীর ছেলে। এ সময় আহত হয়েছেন তার ছোট ভাই মোতালেব হোসেন (২৮)। তিনি বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তি রয়েছেন।
ইউপি সদস্য শামসুল ইসলাম জানান, শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে দুই ভাই আবু বক্কর ও মোতালেব হোসেন বাড়ির পাশে বীজতলা থেকে আমন চারা তুলছিল। এ সময় বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টির সময় বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই আবু বক্কর মারা যায় এবং মোতালেব হোসেন আহত হয়। বিরল থানা পুলিশের ওসি গোলাম রসুল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
গাইবান্ধা :
জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় বজ্রপাতে ছেলে রফিকুল ইসলামের (২০) মৃত্যু হয়েছে এবং বাবা আইয়ুব আলী গুরুত্বর আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।
শুক্রবার দুপুরে উপজেলার তারাপুর ইউনিয়নের খোর্দ্দা গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে বলে সুন্দরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম আব্দুস সোবহান নিশ্চিত করেছেন ।
প্রতক্ষদর্শীরা জানান, দুপুরে বাবা ও ছেলে জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করতে তিস্তা নদীর চরে যান। এ সময় বজ্রপাতের বিকট শব্দে তারা মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ছেলে রফিকুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন এবং বাবা আইয়ুব আলীকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় আইয়ুব আলীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft