বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
বিএনপি যে কারণে ১৫ আগস্ট খালেদার জন্মদিন পালন করেনি
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 15 August, 2019 at 7:35 PM
বিএনপি যে কারণে ১৫ আগস্ট খালেদার জন্মদিন পালন করেনিএবার দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৭৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ১৫ আগস্ট কোনও কর্মসূচি নেই বিএনপির। এমনকি দলের পক্ষ থেকে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলন থেকেও বিরত রয়েছে তারা। তবে খালেদা জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ১৬ আগস্ট কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে দলটির পক্ষ থেকে।
অর্থাৎ শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দেশব্যাপী খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও দীর্ঘায়ু কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। বেলা ১১টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এবং বিকেলে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। উভয় কর্মসূচিতে দলের সিনিয়র নেতাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী অংশ নেবেন।
খালেদা জিয়ার জন্মদিন উপলক্ষে সাধারণত ১৫ আগস্ট প্রথম প্রহরে বিএনপি নেতাকর্মীরা কেক কেটে উৎসব করলেও গত কয়েক বছর এ কর্মসূচি থেকে বিরত রয়েছেন তারা। বিগত বছরে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে খালেদা জিয়ার জন্মবার্ষিকী পালন করায় রাজনৈতিক অঙ্গনে বিতর্ক সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে ২০১৬ সাল থেকে এ দিনটিতে কর্মসূচি পালন থেকে বিরত রয়েছে বিএনপি।
দলীয় সূত্র জানায়, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের দিন বেগম খালেদা জিয়ার জন্মবার্ষিকী পালন নিয়ে যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে সেটার ইতি টানতেই ১৫ আগস্ট জন্মদিনসহ রাজনৈতিক কর্মসূচি থেকে বিরত রয়েছে বিএনপি।
প্রসঙ্গত, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনককে হত্যার দিনটিকে খালেদা জিয়া তার জন্মদিন হিসেবে পালন করে আসছিলেন ৯০ দশক থেকে। তবে এই দিন আদৌ তার জন্ম হয়েছিল কি না, এ নিয়ে বিতর্ক আছে। বিএনপি নেত্রীর জন্মদিন হিসেবে একাধিক তারিখের তথ্য আছে।
১৯৯১ সালে বিএনপি নেত্রী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নেয়া তথ্যে রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা বাসসের করা প্রতিবেদনে জন্মদিন হিসেবে ১৯৪৭ সালের ১৯ আগস্টকে জানানো হয়। তবে তার আরও চারটি জন্মদিবস পাওয়া যায়।
# বিএনপি নেত্রী মেট্রিক পারীক্ষার নম্বরপত্রে জন্মতারিখ হিসেবে উল্লেখ রয়েছে ৫ সেপ্টেম্বর, ১৯৪৬।
# বিয়ের কাবিননামায় আছে ১৯৪৪ সালের ৯ আগস্ট।
# ২০০০ সালের ভোটার তালিকার তথ্য বিবরণী ফরমে বিএনপি নেত্রী তার জন্মদিন হিসেবে ১৯৪৬ সালের ১৫ আগস্টের কথা উল্লেখ করেন।
# খালেদা জিয়ার পাসপোর্টে জন্মদিন হিসেবে উল্লেখ আছে ১৯৪৬ সালের ৫ আগস্ট।
১৯৯১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য শহীদুল হক জামালের পরামর্শে ১৫ আগস্ট জন্মদিন পালন শুরু করেন বলে সে সময় গণমাধ্যমে প্রতিবেদন এসেছে। আর এটিই আওয়ামী লীগের তীব্র আপত্তির কারণ।
আওয়ামী লীগের অভিযোগ, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার দিন উৎসব হিসেবে পালন করতে খালেদা জিয়া ‘ভুয়া জন্মদিন’ পালন করেন। এর মাধ্যমে তিনি খুনিদের প্রতি পরোক্ষ সমর্থন জানান।
তবে বিএনপি থেকে বেরিয়ে আসা একাধিক ব্যক্তি এই জন্মদিন পালনের সমালোচনা করেছেন। খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে বিএনপির সঙ্গে জোটে যাওয়া কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের নেতা আবদুল কাদের সিদ্দিকীও তাকে অনুরোধ করেছেন এই দিনকে জন্মদিন হিসেবে পালন না করতে।
২০১৩ সালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে টেলিফোনালাপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ১৫ আগস্ট জন্মদিন হিসেবে পালন না করার অনুরোধ করেছিলেন। তবে পরের বছরই তিনি ঘটা করে এদিন জন্মদিন হিসেবে পালন করেন।
এই ‘ভুয়া জন্মদিন’ পালনের অভিযোগে বিএনপি নেত্রীর বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। আর দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ড পাওয়া সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে এই মামলাতেও গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft