রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
সারাদেশ
জাজিরায় দেড় মাসেও নিখোঁজ ইমাম ফরিদুল উদ্ধার হয়নি
শরীয়তপুর প্রতিনিধি :
Published : Monday, 5 August, 2019 at 5:29 PM
জাজিরায় দেড় মাসেও নিখোঁজ ইমাম ফরিদুল উদ্ধার হয়নিশরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় প্রায় দেড় মাস যাবৎ মাওলানা ফরিদুল ইসলাম (৪০) নামে স্থানীয় মসজিদের এক ইমাম নিখোঁজ হলেও এখনো উদ্ধার হয় নি। গত ২০ জুন এশা’র নামাজের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন তিনি। এ ঘটনায় জেলা পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ ও জাজিরা থানায় সাধারন ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে। পরে শরীয়তপুর কোর্টে মামলা করা হয়েছে। নিখোঁজ ওই ইমামের বাড়ি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থানার পূর্ববিরাশী গ্রামে। তিনি ওই গ্রামের মৃত এরশাদ আলীর ছেলে। তিনি বিবাহিত, ফারিয়া আক্তার তামান্না (১০) ও সাদমান শাহরিয়া (৬) নামে দুই সন্তান রয়েছে। গত ৬ বছর যাবত জাজিরার বড়কান্দি ইউনিয়নের সুধান্য মন্ডলেরকান্দি এলাকায় আব্দুল করিম জামে মসজিদে ইমামতি করতেন তিনি। এদিকে দীর্ঘদিন ধরে ইমাম ফরিদুল নিখোঁজ থাকায় পরিবারের সদস্যরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। অন্যদিকে এখনো তিনি উদ্বার না হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে মুসল্লীরা ও বিভিন্ন মসজিদের ইমাম এবং আলেমরা। আর পুলিশ বলছে, বিষয়টি পুলিশ গুরুত্ব সহকারে নিয়ে ব্যাপক খোঁজ নেয়া হচ্ছে। এছাড়াও শরীয়তপুর কোর্টে মামলা হওয়ায় তদন্ত চলছে।
স্থানীয়রা জানান, ফরিদুল ৬ বছর আগে থেকে ওই মসজিদে ইমামতি করেন। তিনি মসজিদের বারান্দায় একটি কক্ষে থাকতেন। গত ২০ জুন এশা’র নামাজ শেষে স্থানীয় মুসল্লি ইকরাম আলী মোড়লের বাড়িতে রাতের খাবার খেয়ে ঘুমাতে যান। পরের দিন ফজরের নামাজ পড়তে মুসল্লিরা মসজিদে যায়। তখন ইমামকে দেখতে না পেয়ে মসজিদ কমিটির সদস্যদের জানান। এরপর কমিটির সদস্যরা ইমামের কক্ষে গিয়ে তালাবদ্ধ দেখতে পান। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।
মসজিদ কমিটির সভাপতি আবুল হোসেন মোড়ল জানান, ইমামকে না পেয়ে পরের দিন জাজিরা থানায় জিডি ও জেলা পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এছাড়াও তার গ্রামের বাড়ি এবং সম্ভাব্য সব স্থানে খোঁজ করেও এখনো কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।
নিখোঁজের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, ঈদ-উল-ফিতরের ছুটি নিয়ে গত ৬ জুন বাড়িতে এসেছিলেন তার স্বামী মাওলানা ফরিদুল ইসলাম। পরে ছুটি কাটিয়ে ২০ জুন শরীয়তপুরে কর্মস্থলে যান। ওই দিন রাত থেকে তিনি নিখোঁজ। স্বামীর দ্রুত সন্ধান চেয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা গরিব, তাকে ছাড়া কীভাবে সন্তানেদের নিয়ে বাঁচব?’ আমরা এখন মানবেতর জীবন যাপন করছি।
এ বিষয়ে জাজিরা থানার ওসি মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর ব্যাপক খোঁজ নেয়া হচ্ছে। বিষয়টি পুলিশ গুরুত্ব সহকারে দেখছে। এছাড়াও শরীয়তপুর কোর্টে মামলা হওয়ায় তদন্ত চলছে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft