সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
স্বাস্থ্যকথা
যশোরে নতুন করে ১৯ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত
সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১২ জন
ফয়সল ইসলাম :
Published : Saturday, 3 August, 2019 at 6:34 AM
যশোরে নতুন করে ১৯ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত যশোরে নতুন করে আরো ১৯ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১২ জনকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি সাতজন বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। নতুন ১৯ জনসহ যশোরে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো একশ’ ৩৪ জনে। যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থাকা ১২ জন রোগী সুস্থ হয়ে শুক্রবার বাড়ি ফিরে গেছেন। গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৫১জন। সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।
ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ও আক্রান্তদের প্রয়োজনীয় সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছেন বিএমএ যশোরের নেতৃত্ববৃন্দ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার এমএ বাশার শুক্রবার রাত ৯টায় মোবাইল ফোনে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে, সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে যশোরবাসীর জন্যে সতর্কতামূলক বার্তা দেয়া হয়েছে। ডেঙ্গু আক্রান্তদের অধিকাংশ ঢাকা ফেরত হলেও যশোরের বিভিন্ন স্থানে বসবাসকারী আটজন এডিস মশার কামড়ে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা হলেন, সদর উপজেলার দেয়াপাড়া গ্রামের নওয়াব আলী (৪৫), মাহিদিয়া গ্রামের সোহেল (২৭), ঝুমঝুমপুরের খাদিজা (৩৫), ছাতিয়ানতলার রোমানা (১৯), চাঁচড়ার আইরিন (৩৬), আরএন রোড এলাকার বিপুল (৩২), চৌগাছার জয়নাব (৪৫) ও মহিনা (২০)। যশোরে বসবাসকারী আরো বিপুল সংখ্যক মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার আশংকায় রয়েছেন। পূর্ব সতর্কতার অংশ হিসেবে বাড়ির ঘরের আশপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করাসহ ছাদে রাখা ফুলের টব, ড্রেন, নালাসহ যেসব জায়গায় স্বচ্ছ পানি নিষ্কাশনের আহবান জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডাক্তার দিলীপ কুমার রায়।  
ডেঙ্গু রোগীদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতকরণে জাতীয় গাইডলাইন ও সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করার বিষয়ে গ্রামের কাগজে সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় অবশেষে টনক নড়েছে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের। শুক্রবার ছুটির দিনেও প্যাথলজিক্যাল ল্যাব খোলা ছিল। ডেঙ্গু রোগীদের রুটিন টেস্ট করানোর জন্যে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়। কিন্তু হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতায় কোনো অভিযান চালানো হয়নি।
ল্যাব ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানিয়েছেন, ১৮ জনের সিবিসি ও ডেঙ্গু ঘঝ১ টেস্ট করানো হয়েছে। তাদের মধ্যে একজনের ডেঙ্গু রোগ ধরা পড়েছে। ডেঙ্গু রোগ নির্ণয়ের জন্যে আবশ্যিক ঘঝ১ ডিভাইসের সংকট রয়েছে সরকারি হাসপাতালে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এখনো ডিভাইস পাওয়া যায়নি। মাত্র একটি ডিভাইস মজুদ আছে। কর্তৃপক্ষ যদি ডিভাইস সরবরাহের ব্যবস্থা না করেন তাহলে আজ থেকে টেস্ট করা সম্ভব হবে না।
সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ লিটুর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি সাড়া দেননি।
বিএমএ’র সাধারণ সম্পাদক ডাক্তার এমএ বাশার গ্রামের কাগজকে জানিয়েছেন, যশোরের ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্যে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালানোসহ আক্রান্তদের চিকিৎসায় বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। গঠন করা হয়েছে মনিটরিং সেল। যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ লিটুকে আহবায়ক করা হয়েছে ওই সেলের। যুগ্ম আহবায়ক করা হয়েছে ডাক্তার হিমাদ্রি শেখর সরকার ও ডাক্তার তৌহিদুল ইসলামকে। সদস্য সচিব করা হয়েছে ডাক্তার রবিউল ইসলামকে। এছাড়াও রিসোর্স পার্সন হিসেবে আছেন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এবিএম সাইফুল আলম। ফোকাল পার্সন হিসেবে কাজ করবেন ডাক্তার খালিদ শামস্ ও সিভিল সার্জনের প্রতিনিধি ডাক্তার মাশহুরুল হক জুয়েল। এছাড়াও সেলে সদস্য হিসেবে রয়েছেন বিএমএ যশোরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। মনিটরিং সেলের মাধ্যমে যশোরে ডেঙ্গু রোগীদের সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবাসহ প্রয়োজনীয় সবকিছু করা হবে।
ডাক্তার বাশার আরো জানিয়েছেন, আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। এরপর হবে র‌্যালি। একই সাথে জনগণের মধ্যে লিফলেট বিতরণ করা হবে। ডেঙ্গু রোগ শনাক্তের জন্যে সরকারি হাসপাতালে ডিভাইস সংকট হতে দেয়া হবে না। আজই বিএমএ’র তরফ থেকে একশ’ ডিভাইস সরবরাহ করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft